শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ০৬:০৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে সমাপনী পরীক্ষার্থীদের সংবর্ধনা জগন্নাথপুরের সাম্রাটে সমাপনী পরীক্ষার্থীদের সংবর্ধনা জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র মনাফকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকায় প্রেরণ জগন্নাথপুরের চিতুলিয়া গ্রামে আগুন,দুইটি ঘরসহ পুড়ল ১২ লাখ টাকার মালামাল জগন্নাথপুরে এখনও সম্পন্ন হয়নি আ.লীগের ওয়ার্ড ভিত্তিত্ব কমিটি প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা শুরু ১৭ নভেম্বর জগন্নাথপুরে সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে সুযোগ পেল ১৭ পরীক্ষার্থী বন্ধ হলো ফেসবুকের সাড়ে পাঁচ’শ কোটি ভুয়া অ্যাকাউন্ট রংপুর এক্সপ্রেসে আগুন, চারটি বগি লাইনচ্যুত জেলা মহিলা আ.লীগ নেত্রী রফিকা চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জগন্নাথপুরে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

জগন্নাথপুরে ‘ভুয়া’নাগরিক সনদধারীদের ঠেকাতে জনপ্রতিনিধিদের দ্বারে দ্বারে স্থানীয়রা

বিশেষ প্রতিনিধি::
  • Update Time : শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯
  • ৫৩৫ Time View

জগন্নাথপুরে প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০১৮ এর লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ বহিরাগতদের ঠেকাতে স্থানীয়রা পৌরসভাসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রতিনিধিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। প্রতারণার মাধ্যমে স্থানীয় বাসিন্দা সেজে অন্য জেলার (বহিরাহত) বাসিন্দা নাগরিক সনদপত্র সংগ্রহকারীদের সনাক্ত করে আইনানুগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য একাট্টা জগন্নাথপুরের স্থানীয়রা।
গত কয়েকদিন ধরে জগন্নাথপুর উপজেলার চিলাউড়া হলদিপুর. সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়ন, মিরপুর ইউনিয়নের জনপ্রতিধিদের সঙ্গে দেখা করে বহিরাগতদের চিহ্নিত করতে কার্যক্রম চালিয়েছেন স্থানীয় চাকুরী প্রত্যাশীরা। এর মধ্যে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে প্রশাসনের নিকট লিখিতভাবে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।
জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে জগন্নাথপুর উপজেলায় ভুয়া নাগরিক সনদপত্র সংগ্রহ করে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে বহিরাগতরা অবৈধভাবে চাকুরীপ্রাপ্ত হচ্ছেন। তাদের দাপটে সরকারি সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন স্থানীয়রা। এবারও ভুয়া নাগরিক সনদপত্র সংগ্রহে চাকুরীপ্রাপ্ত হওয়ার প্রচেষ্টা চলছে।
এবার জগন্নাথপুর উপজেলা থেকে ৫০১ জন প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক পদে লিখিত পরীক্ষায় উর্ত্তীণ হয়েছেন। এরমধ্যে অধিকাংশই অন্য জেলার নাগরিক। আগামী ২১ অক্টোবর থেকে ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত লিখিত পরীক্ষায় উর্ত্তীণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। ওই পরীক্ষায় প্রার্থীদের নাগরিক সনদপত্রসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দেয়ার কথা।
স্থানীয়রা বলছেন, সরকারি নিয়ম অনুযায়ী চাকুরী প্রত্যাশীরা স্থানীয় বাসিন্দা হতে হবে। কিন্তু অন্য জেলার নাগরিকরা স্থানীয় বাসিন্দা সেজে জালিয়াতির মাধ্যমে চাকুরীপ্রাপ্ত হচ্ছেন। এসব অনিয়ম, দুর্নীতি প্রতিরোধে প্রতি বছরই সভা, সমাবেশসহ বিভিন্ন কর্মসুচী পালন করা হলেও সুফল মিলেনি। কারণ একশ্রেণীর অসাধু জনপ্রতিধিদের উৎকোচ দিয়ে ম্যানেজ করে ভুয়া নাগরিক সনদপত্র সংগ্রহ করা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে।
প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক পদে লিখিত পরীক্ষায় উর্ত্তীণ জগন্নাথপুরের স্থানীয় নাগরিক চাকুরীপ্রত্যাশী জিবুল জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বহিরাগতের কারণে ভুয়া নাগরিক সার্টিফিকেট বাণিজ্যের কারণে আমরা স্থানীয়রা বঞ্চিত হচ্ছি। আমাদের ন্যায্য অধিকার আদায়ের প্রয়োজনে জগন্নাথপুর উপজেলাবাসীকে নিয়ে আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।
শের আলী নামে আরেক স্থানীয় চাকুরিপ্রত্যাশী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, প্রতিদিন আমরা বিভিন্ন ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছি, বহিরাগতের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে। এরমধ্যে ১৬ জন বহিরাগত নাগরিককে নাম পাওয়া গেছে। ২১ অক্টোরের আগেই বহিরাগতের সনাক্ত করে লিখিতভাবে আমরা প্রশাসককে অবহিত করবো। এসব প্রতারকদের প্রতিরোধে প্রয়োজনে আন্দোলনে নামব আমরা।
জগন্নাথপুর উপজেলার চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান বাবুল মাহমুদ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডচকমকে জানান, আমরা বহিরাগতের বিষয়ে সচেতন রয়েছি। কোন অবস্থায় স্থানীয়দের অধিকার বঞ্চিত করে অন্য জেলার নাগরিককে সনদ দেব না।
জগন্নাথপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ভুয়া নাগরিক সনদপত্র নিয়ে স্থানীয় নাগরিক সেজে যারা চাকুরী করার চেষ্টা করছেন তাদের বিরুদ্ধে প্রমাণ পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24