জগন্নাথপুরে রোপা আমনের ভাসমান বীজতলা

বিশেষ প্রতিনিধি::

জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কার্যালয়ের পরামর্শে কৃষকরা এবার রোপা আমনের ভাসমান বীজতলায় চারা লাগিয়েছেন। উপজেলার বিভিন্ন হাওরের পাশের খালগুলোতে দোলছে এসব ভাসমান চারা। অকাল বন্যা ও প্রাকৃতিক বিপর্যয় থেকে রোপা আমন আবাদের বাধা দূর করতে ভাসমান বীজতলা বিশেষ ভূমিকা পালন করবে বলে আশাবাদ কৃষি বিভাগের।
জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কার্যালয় সূত্র জানায়, এবার উপজেলায় ৮২৮০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে কৃষকদের লাগানো চারা বড় হতে শুরু করছে। এখন এসব চারা জমিতে রোপন করা হবে এবং অগ্রহায়ন মাসে ফসল উত্তোলন করা হবে।
জগন্নাথপুর উপজেলার ইকড়ছই গ্রামের কৃষক ফিরোজ মিয়া বলেন, ‘কৃষি বিভাগের পরামর্শে মোমিনপুর হাওরের হাশিমাবাদ এলাকায় সরকারি খালের ওপর ভাসমান বীজতলায় চারা রোপন করেছি।’
তিনি বলেন, দ্রুত এসব চারা বাড়তে শুরু করেছে। তারপর সময়মতো চারাগুলো জমিতে রোপন করব।
জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কার্যালয়ের উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা তপন চন্দ্র শীল জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘বন্যা ও প্রাকৃতিক নানা বিপর্যয়ে আমন চাষাবাদ যাতে পুরোপুরি বিঘিœত না হয় সেজন্য আমরা ভাসমান চারা লাগাতে কৃষকদেরকে উৎসাহ দেই।’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» সুনামগঞ্জে বিএনপি নেতাকর্মীর গণপদত্যাগ

» জগন্নাথপুরে অতিরিক্ত মূল্যে বোরো ধানের বীজ বিক্রির অভিযোগ

» সুনামগঞ্জ-৩ আসনে মনোনয়ন সংগ্রহ করলেন বিএনপির তিন নেতা

» সিলেটে বাড়ছে যানবাহনের চাপ, বাড়ছে না সড়ক

» জগন্নাথপুরে মাসিক আইনশৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত

» অটোরিকশার চাকায় ওড়না পেচিয়ে নারীর মৃত্যু

» ঐক্য ধরে রেখে সামনে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান খালেদা জিয়ার

» দ্বিতীয় দিন শেষে চালকের আসনে বাংলাদেশ

» জগন্নাথপুরে ডাকাতি মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামীসহ গ্রেফতার-৬

» স্পিডবোটডুবির ঘটনায় নবদম্পতিসহ তিন যাত্রীর লাশ উদ্ধার

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

জগন্নাথপুরে রোপা আমনের ভাসমান বীজতলা

বিশেষ প্রতিনিধি::

জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কার্যালয়ের পরামর্শে কৃষকরা এবার রোপা আমনের ভাসমান বীজতলায় চারা লাগিয়েছেন। উপজেলার বিভিন্ন হাওরের পাশের খালগুলোতে দোলছে এসব ভাসমান চারা। অকাল বন্যা ও প্রাকৃতিক বিপর্যয় থেকে রোপা আমন আবাদের বাধা দূর করতে ভাসমান বীজতলা বিশেষ ভূমিকা পালন করবে বলে আশাবাদ কৃষি বিভাগের।
জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কার্যালয় সূত্র জানায়, এবার উপজেলায় ৮২৮০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে কৃষকদের লাগানো চারা বড় হতে শুরু করছে। এখন এসব চারা জমিতে রোপন করা হবে এবং অগ্রহায়ন মাসে ফসল উত্তোলন করা হবে।
জগন্নাথপুর উপজেলার ইকড়ছই গ্রামের কৃষক ফিরোজ মিয়া বলেন, ‘কৃষি বিভাগের পরামর্শে মোমিনপুর হাওরের হাশিমাবাদ এলাকায় সরকারি খালের ওপর ভাসমান বীজতলায় চারা রোপন করেছি।’
তিনি বলেন, দ্রুত এসব চারা বাড়তে শুরু করেছে। তারপর সময়মতো চারাগুলো জমিতে রোপন করব।
জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কার্যালয়ের উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা তপন চন্দ্র শীল জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘বন্যা ও প্রাকৃতিক নানা বিপর্যয়ে আমন চাষাবাদ যাতে পুরোপুরি বিঘিœত না হয় সেজন্য আমরা ভাসমান চারা লাগাতে কৃষকদেরকে উৎসাহ দেই।’

© 2018 জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

error: ভাই, কপি করা বন্ধ আছে।