মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:১৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
পরিকল্পনামন্ত্রীর ডিও লেটারে জগন্নাথপুরে ২৩টি স: প্রা: স্কুলে নতুন ভবন নির্মাণ হচ্ছে সুনামগঞ্জে স্বামীর মৃত্যুর খবর পেয়ে স্ত্রীর আত্মহত্যা জগন্নাথপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল চালু জগন্নাথপুরে প্রকাশ্য দিবালোকে গ্রামীণ ফোনের ৫ লাখ টাকা ছিনতাই, জনতার ধাওয়ায় বাইকসহ আটক ১ জগন্নাথপুরে সড়ক রক্ষায় ১০ টন ওজনের অধিক যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা মিরপুর ইউপি নির্বাচনে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ, আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারণা প্রার্থীরা গরুর মাংস বিক্রি: ভারতে খ্রিস্টান যুবককে পিটিয়ে হত্যা জগন্নাথপুরের ব‌্যবসায়ী ফেরদৌস মিয়া খুনের ঘটনায় সানিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড, তিনজনের যাবজ্জীবন ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ওপর ছাত্রলীগের ‘হামলা’ আহত ২৫

জগন্নাথপুরে হাওরের ফসলরক্ষায় মসজিদে মসজিদে মোনাজাত

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ৫ এপ্রিল, ২০১৯
  • ১২৫ Time View

স্টাফ রিপোর্টার::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে বোরো ধান রক্ষায় মসজিদে মসজিদে বিশেষ মোনাজাত করা হয়েছে।  শুকবার জুম্মার নামাজে জগন্নাথপুরের বিভিন্ন মসজিদে এ প্রার্থনা
অনুষ্ঠিত হয়। গত কয়েকদিন ধরে জগন্নাথপুরে ব্যাপক ঝড় বৃষ্টির হচ্ছে। এরমধ্যে গত বরিবাবারে দু’দফা শিলাবৃষ্টির তান্ডবে জমিনের আধা পাকা ধান
ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। প্রাকৃতিক বিপর্যয় থেকে হাওরের পাকা ধান রক্ষায় আল্লাহপাকের দরবারে মোনাজাত করা হয় মসজিদগুলোতে।
জগন্নাথপুর উপজেলা সদর জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আজমল হোসেন জামী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন,
জগন্নাথপুরের হাওরগুলোতে এখন পাকা আধা পাকা ফসলে মাঠ ভরপুর। গত কয়েকদিন ধরে ঝড় বৃষ্টিতে কৃষকদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছি ফসল নিয়ে। প্রাকৃতিক
বিপর্যয় থেকে ফসলরক্ষায় আমরা আমাদের রিজিকের মালিক আল্লাহপাকের নিকট মোনাজাত করেছি। এরইমধ্যে শিলাবৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে
বলে তিনি জানিয়েছেন।
উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা নিজাম উদ্দিন জালালী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এক ফসলী বোবো ফসলের ওপরই উপজেলাবাসী মূলত নির্ভরশীল। ২০১৭ সালে এ উপজেলায় অকাল বন্যায় হাওরের ফসল হারিয়ে কৃষক পরিবারগুলো মানবেতর জীবন যাপন করেন।
গত বছর ফসল ভালো হলেও এবার শুরুতেই প্রাকৃতিক বিরূপ দেখা দিয়েছে।  হাওরের পাকাধান রক্ষায় আমরা আল্লাহ’র নিকট প্রার্থনা করেছি।

জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার  জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এবার জগন্নাথপুরের প্রায় ২১ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো ফসল আবাদ করা হয়েছে। এখনও হাওরজুড়ে পাকা আধা পাকা ধানের শীষ দুলছে। বিচ্ছিন্ন ভাবে কিছু কিছু এলাকায় সামান্য পরিবারের জমিনে ধান কাটা শুরু হয়েছে। পুরো ধান পাকতে আরো
এক সপ্তাহের মতো সময় লাগতে পারে। প্রাকৃতিক পরিবেশ অনুকুলে থাকে ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে ধান গোলায় তোলা সম্ভব।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24