মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৮:২১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে মোটরযান ও ভোক্তা আইনে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা সৌদিতে নির্যাতিতা জগন্নাথপুরের কিশোরীকে দেশে ফেরাতে পরিকল্পনামন্ত্রীর ডিও লেটার কলকলিয়া ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলন সম্পন্ন হলেও কমিটি হয়নি আইসিজেতে গাম্বিয়ার আইনমন্ত্রী-মিয়ানমারের গণহত্যা কোনোভাবেই গ্রহণ করা যায় না জগন্নাথপুরে মানবাধিকার দিবসে র‌্যালি ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত সিলেটে মাকে হত্যা করল পাষান্ড ছেলে ঘৃনার বদলে অমুসলিমদের মধ্যে ১০ হাজার কোরআন বিতরণ করবে নরওয়ের মুসলিমরা জগন্নাথপুরে ফুটবল এসোসিয়েশনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন উপলক্ষে প্রস্তুতিসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে পারাপারের সময় খেলা নৌকা থেকে পড়ে মৃগী রোগির মৃত্যু জগন্নাথপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহতের স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত

জগন্নাথপুরে ২৫টি মন্ডপে ষষ্ঠী পূজার মধ্যদিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
  • ১০৩ Time View

স্টাফ রিপোর্টার::
উমা থেকে পার্বতি। তারপর পার্বতি থেকে দুর্গা। এই নামেই তিনি বেশি পরিচিত। ব্রহ্মবৈবর্ত পুরাণে আছে, তিনি গিরিরাজ হিমালয়ের কন্যা ও পর্বতের অধিষ্ঠাত্রী দেবী, তাই তিনি পার্বতী। পরের অধ্যায়ে তিনি হয়ে উঠেন দানবদলনী দশভূজা। আর তখনিই তার নাম হয় দুর্গা। দুর্গাপূজা সনাতন ধর্মাবলম্বী সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। মঙ্গলবার ষষ্ঠী পূজার মধ্যদিয়ে সারাদেশের ন্যায় জগন্নাথপুর উপজেলার ২৫টি মন্ডপে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে শুরু হয় পাঁচদিনের এ উৎসব। বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত পঞ্জিকা মতে, ৩০ সেপ্টেম্বর শনিবার বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এ উৎসবের।
দুর্গা শব্দের অর্থ হলো ব্যূহ বা আবদ্ধ স্থান। যা কিছু দুঃখ কষ্ট মানুষকে আবদ্ধ করে, যেমন বাধাবিঘ্ন, ভয় দুঃখ, শোক, জ্বালা, যন্ত্রণা এসব থেকে তিনি ভক্তকে রক্ষা করেন। শাস্ত্রকাররা দুর্গার নামে অন্য একটি অর্থ করেছেন। দুঃখের দ্বারা যাকে লাভ করা যায় তিনিই দুর্গা। দেবী দুঃখ দিয়ে মানুষের সহ্যক্ষমতা পরীক্ষা করেন। তখন মানুষ অস্থির না হয়ে তাকে ডাকলেই তিনি তার কষ্ট দূর করেন।
এদিকে পূজাকে আনন্দমুখর করে তুলতে বর্ণাঢ্য প্রস্তুতি এরই মধ্যে শেষ হয়েছে। এখন বইছে উৎসবের আমেজ। ঢাক-ঢোল কাঁসা এবং শঙ্খের আওয়াজে মুখরিত হয়ে উঠেছে বিভিন্ন ম-প। দেবীর অবস্থানকালে এই পাঁচদিন পৃথিবীর ভক্তরা ‘দেবী মা’-এর বন্দনা করেন। তারপর বোধন, আমন্ত্রণ ও অধিবাসের মধ্যে মাকে বরণ করে নেওয়া হয়। রীতি অনুযায়ী, বোধনেই মায়ের মুখ উন্মোচন হয়।
দুর্গোৎসব চলাকালে পূজাম-পগুলোতে প্রতিদিনই অঞ্জলি, প্রসাদ বিতরণ, ভোগ ও আরতি অনুষ্ঠান হবে। এ ছাড়া আলোকসজ্জা, আরতি প্রতিযোগিতা, নাটক, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। জগন্নাথপুর উপজেলা সদরে তিনটি সর্বজনীন ও দুটি ব্যক্তিগত মন্ডপে পূজার আয়োজন করা হয়েছে। সর্বজনীন মন্ডপগুলোতে সাজ সাজ রব বিরাজ করছে,উৎসব আনন্দে অন্যরকম পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। সোমবার সপ্তমী বিহীত পূজা অনুষ্ঠিত হবে। জগন্নাথবাড়িস্থ কেন্দ্রীয় পূজা মন্ডপে সঙ্গীতানুষ্টানের আয়োজন রয়েছে। বাসুদেববাড়ি আনন্দময়ী পূজা কমিটির ইসকন নামহট্রের আয়োজনে দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করেছে। এছাড়াও বিভিন্ন মন্ডপে রয়েছে নানা আয়োজন। জগন্নাথপুরের ২৫টি পূজা মন্ডপ হল জগন্নাথপুর পৌরসভার জগন্নাথ জিউর আখড়া, দাস সম্প্রদায় সার্বজনিন পূজা মন্ডপ বাসুদেব বাড়ি, আনন্দময়ী সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, কলকলিয়া ইউনিয়নের কালিটেকী সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, কলকলিয়া দুর্গা বাড়ি সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, পাটলী ইউনিয়নের রসুলগঞ্জ বাজার সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, মীরপুর ইউনিয়নে বাউর কাপন সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়নে গোপরাপুর গোপাল জিউর আখড়া সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, গয়াসপুর সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, রানীগঞ্জ ইউনিয়নে রানীগঞ্জ বাজার জগন্নাথ জিউর আখড়া সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, হিলালপুর সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, গোপালগঞ্জ বাজার সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, রৌয়াইল সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, হরিনাকান্দি সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নের অনুচন্দ বুধরাইল সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, আশারকান্দি ইউনিয়নের শহীদ নগর সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, জয়দা সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, পাইকপাড়া সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, ছোট শেওড়া ও বড়শেওড়া সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, পাইলগাঁও ইউনিয়নে সাধু সাধক কেতকি দেবের বাড়ি সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, আলীপুর সার্বজনিন দূগা পূজা উদযাপন পরিষদ মন্ডপ, খানপুর সার্বজনিন পূজা মন্ডপ, সাধু সাধক রবি দেবের বাড়ি সার্বজনিন পূজা মন্ডপ এবং জগন্নাথপুর পৌরসভার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব’র মহাজন বাড়িতে দেবু দেবের পারিবারিক পূজা মন্ডপ ও শহরের পূর্ব ভবানীপুর ভটবাড়ি পূজা মন্ডপে পারিবারিকভাবে দুর্গোৎসব অনুষ্টিত হবে।
কেন্দ্রীয় পূজা কমিটির সভাপতি হীরা মোহন দে ও সেক্রেটারী সুজিত রায় জানান,পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে। আমরা ধর্ম যার যার উৎসব সবার এ শ্লোগানে ৫দিন ব্যাপী পূজার উৎসবাদি পালন করতে চাই। এছাড়াও বিভিন্ন উৎসব সংকোচিত করে রোহিঙ্গা শরনার্থীদের সহায়তায় অর্থ প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে তারা জানান।
জগন্নাথপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সতীশ গোস্বামী ও সাধারণ সম্পাদক প্রনব কুমার বণিক জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান,জগন্নাথপুর উপজেলার ২৫ মন্ডপে এবার শারদীয় দুর্গোৎসব হচ্ছে। প্রতিটি মন্ডপে আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ ও থানার অফিসার ইনচার্জ হারুণ রশিদ চৌধুরী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, প্রতিটি পূজা মন্ডপে পুলিশ, আনসার মোতায়েন করা হয়েছে। সরকারি বরাদ্দ সমবন্টমের মাধ্যমে বিতরণ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24