জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। শুক্রবার রাত পোনে নয়টার দিকে নির্বাচন কমিশন থেকে এ ব্যাপারে চিঠি পাঠানো হয়েছে সুনামগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে। এই উপজেলায় রোববার ভোট হওয়ার কথা ছিল।
জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার নির্বাচন স্থগিতের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নির্বাচন কমিশনের চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে এই উপজেলায় ন্যায়সঙ্গত, নিরপেক্ষ ও আইনানুগভাবে নির্বাচন পরিচালনা করা সম্ভব নয় মর্মে প্রতিয়মান হওয়ায় নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। তিনি জানান, সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন এজন্যই সম্ভবত. কমিশন নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেছেন। এই উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইউসুফ আল আজাদের পক্ষে প্রকাশ্যে প্রচারণায় অংশ নেন স্থানীয় সাংসদ মোয়াজ্জেম হোসেন রতন।
এ ব্যাপারে স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম শামীম সাংসদের বিরুদ্ধে লিখিতভাবে নির্বাচন কমিশন, নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দেন। বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন থেকে সাংসদ মোয়াজ্জেম হোসেন রতনকে সুষ্ঠু ও আইনানুগভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানে সহায়তা করার জন্য এলাকা ত্যাগের অনুরোধ করা হয়। কিন্তু তিনি নির্বাচনী এলাকাতেই ছিলেন।
সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন মুঠোফোনে বলেন,‘জামালগঞ্জের নির্বাচন স্থগিতের বিষয়টি উদ্দেশ্য প্রণোদিত। এখানে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনার উদ্ভব হয়নি। থানায় একটি জিডিও হয়নি। আমি হাওর রক্ষা বাঁধ পরিদর্শনের জন্য ৬ মার্চ জামালগঞ্জে গিয়েছিলাম। সেখানে একজন মুক্তিযোদ্ধা আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আমি তাঁর পক্ষে কথা বলতেই পারি। নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত জেনেই উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে এটি করা হয়েছে। এ কারণে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীগণ আথিক. মানসিক ও শারিরিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।
জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ছিলেন তিনজন। এরাঁ হলেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইউসুফ আল আজাদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম শামীম ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের নেতা মু. রশীদ আহমদ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» আসসালামু আলাইকুম বলে পার্লামেন্টে বক্তব্য দিলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

» সুনামগঞ্জে ছুরিকাঘাতে আ.লীগ নেতা খুন, আটক-৩

» আ.লীগের দু’পক্ষের গোলগুলি, নিহত ২

» ওসির বিরুদ্ধে ৫ লাখ টাকা ঘুষ দাবী’র অভিয়োগ আ.লীগ প্রার্থীর

» জগন্নাথপুরে ছাত্রলীগের উদ্যোগে যুক্তরাজ্য আ.লীগ নেতাকে সংবর্ধনা

» বালাগঞ্জে নৌকার প্রার্থী মফুর নির্বাচিত

» নেদারল্যান্ডসে যাত্রীবাহী ট্রামে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ১

» রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে প্রিজাইডিং কর্মকর্তাসহ নিহত ৫

» জগন্নাথপুরে ‘বাঁধা’ দেয়ায় হাওরের সড়কের কাজ বন্ধ

» জগন্নাথপুরে সড়ক থেকে মাইক্রোবাস দোকানে, আহত ৩

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। শুক্রবার রাত পোনে নয়টার দিকে নির্বাচন কমিশন থেকে এ ব্যাপারে চিঠি পাঠানো হয়েছে সুনামগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে। এই উপজেলায় রোববার ভোট হওয়ার কথা ছিল।
জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার নির্বাচন স্থগিতের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নির্বাচন কমিশনের চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে এই উপজেলায় ন্যায়সঙ্গত, নিরপেক্ষ ও আইনানুগভাবে নির্বাচন পরিচালনা করা সম্ভব নয় মর্মে প্রতিয়মান হওয়ায় নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। তিনি জানান, সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন এজন্যই সম্ভবত. কমিশন নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেছেন। এই উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইউসুফ আল আজাদের পক্ষে প্রকাশ্যে প্রচারণায় অংশ নেন স্থানীয় সাংসদ মোয়াজ্জেম হোসেন রতন।
এ ব্যাপারে স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম শামীম সাংসদের বিরুদ্ধে লিখিতভাবে নির্বাচন কমিশন, নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দেন। বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন থেকে সাংসদ মোয়াজ্জেম হোসেন রতনকে সুষ্ঠু ও আইনানুগভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানে সহায়তা করার জন্য এলাকা ত্যাগের অনুরোধ করা হয়। কিন্তু তিনি নির্বাচনী এলাকাতেই ছিলেন।
সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন মুঠোফোনে বলেন,‘জামালগঞ্জের নির্বাচন স্থগিতের বিষয়টি উদ্দেশ্য প্রণোদিত। এখানে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনার উদ্ভব হয়নি। থানায় একটি জিডিও হয়নি। আমি হাওর রক্ষা বাঁধ পরিদর্শনের জন্য ৬ মার্চ জামালগঞ্জে গিয়েছিলাম। সেখানে একজন মুক্তিযোদ্ধা আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আমি তাঁর পক্ষে কথা বলতেই পারি। নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত জেনেই উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে এটি করা হয়েছে। এ কারণে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীগণ আথিক. মানসিক ও শারিরিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।
জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ছিলেন তিনজন। এরাঁ হলেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইউসুফ আল আজাদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম শামীম ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের নেতা মু. রশীদ আহমদ।

© 2018 জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

error: ভাই, কপি করা বন্ধ আছে।