সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০২:৫৪ অপরাহ্ন

দিরাইয়ে জলমহাল দখল নিয়ে আ.লীগ- যুবলীগের দুই গ্রুপ মুখোমুখি

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৮
  • ৮৩ Time View

দিরাই প্রতিনিধি
দিরাই উপজেলার বাগুয়া নদী নামক জলমহাল দখলকে কেন্দ্র করে তাড়ল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আহমদ চৌধুরী এবং ইউনিয়ন যুবলীগের সহ সভাপতি জাহেদ চৌধুরী ও ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমীন চৌধুরীর নেতৃত্বে দুটি গ্রুপ মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন এলাকাবাসি। স্থানীয়রা জানান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আহমদ চৌধুরী গংরা জোরপূর্বক জলমহালটি অবৈধভাবে ভোগ দখল করতে দক্ষিণ নাগেরগাঁও সমিতির সাধারণ সম্পাদক ধনঞ্জয় দাস সহ জেলেদের উপর হামলা করেন। হামলায় সমিতির নারী সদস্য শেফুল রানী দাস সহ একাধিক জেলে আহত হন। এদিকে জেলেদের পক্ষে অবস্থান নেন ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা জাহেদ চৌধুরী ও আল আমিন চৌধুরী গংরা। এ নিয়ে এলাকায় দু’পক্ষের লোক জনের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে আহমদ চৌধুরী দাবী করছেন, জলমহালের অংশীদারিত্ব নিতে সমিতির সম্পাদক ধনঞ্জয় দাসকে আড়াই লক্ষ টাকা দিয়েছেন জলমহালের খাজনা দেয়ার জন্যে, বিষয়টি মেয়র মোশাররফ মিয়াও অবগত আছেন বলে জানান তিনি। জানা গেছে, দক্ষিন নাগেরগাও মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি বিগত ৬ বছর যাবৎ বাগুরা জলমহালটি যথাযথভাবে ইজারা প্রাপ্ত হয়ে ভোগ দখল করে আসছিল । ১৪২৫ সনে নতুন ভাবে ক্যালেন্ডার হয়। এতে দক্ষিন নাগেরগাও ও সরালিতোপা মৎস্য সমবায় সমিতি জলমহালটির ইজারা গ্রহণে জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করলে পুনরায় দক্ষিণ নাগেরগাঁও মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি যথাযথ ভাবে উক্ত জলমহালটি ইজারা প্রাপ্ত হয়। সমিতির সাধারণ সম্পাদক ধনঞ্জয় দাস জানান, আমাদের পুর্বপুরুষ দক্ষিণ নাগেরগাও গ্রামের বাসিন্দা হিসেবে গ্রামের আশপাশে হাওর বিল নদী নালা হতে মৎস্য আহরণ করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকি, প্রকৃত মৎস্যজীবী হিসেবে বাগুয়া নদী নামক জলমহালটি বিগত ছয় বৎসর যাবৎ সমিতির মাধ্যমে সরকারি খাজনা প্রদান করে আইনসঙ্গত ভাবে ভোগ দখল করে আসছি, বিগত বছরের ন্যায় আবারও জলমহালটি ১৪২৫-১৪২৭ বাংলা সনে তিন অর্থ বছরের জন্য ইজারা প্রাপ্ত হয়ে গত ১৮ অক্টোবর যথাযথভাবে খাজনা পরিশোধ করি। তিনি জানান, পার্শ্ববর্তী ত্ড়াল গ্রামের বাসিন্দা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আহমদ চৌধুরী ও হত্যা ও ডাকাতিসহ একাধিক মামলার আসামী শাহনুর গংরা জলমহালের মালিক হওয়ার জন্যে হুমকি ধামকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে, গত শুক্রবার ১১ টার দিকে আমি ও আমার সমিতির নারী সদস্য শেফুল রানী দাসকে টানা হেছরা ও মারধর করে, এক পর্যায়ে আমরা গৃহবন্দী হয়ে পড়ি। পরদিন শনিবার আমার মহাজন যুবলীগের সহ সভাপতি জাহেদ চৌধুরী, আল আমিন চ্যৌধুরী, মোশাহিদ চৌধুরী ও শাহ আলম চৌধুরীর সহযোগিতায় আইনী সহায়তার লক্ষ্যে দিরাই থানার উদ্যেশ্যে রওয়ানা হই, নজরুলের বাড়ির সামনে আসার পর শাহনুর ও নজরুল, আবিদুর গংরা আমাদের উপর আক্রমণ চালায়। এ ব্যাপারে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি।
উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক(প্রস্তাবিত) মোহন চৌধুরী বলেন, দক্ষিণ নাগেরগাও মৎস্য সমবায় সমিতি বিগত ৬ বছর যাবৎ লীজ নিয়ে কাদির মিয়ার নেতৃত্বে বৈধভাবে দখল করে আসছিল, ১৪২৫-১৪২৭বাংলা সনের ইজারা প্রাপ্তির জন্য ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আহমদ চৌধুরীর নেতৃত্বে সরালিতোপা মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি ও জাহেদ চৌধুরী, আল আমিন চৌধুরীর নেতৃত্বে দক্ষিন নাগেরগাও মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি আবেদন করলে, আবারও দক্ষিণ নাগেরগাও সমিতি ইজারা প্রাপ্ত হয়, এরপর আহমদ চৌধুরী উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মেয়র মোশাররফ মিয়ার নাম ভাঙ্গিয়ে জোরপূর্বক অবৈধভাবে জলমহালটি দখলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠে। এমনকি নীরিহ জেলেদের উপর চাপ সৃষ্টি করে ও হামলা চালায়।
দিরাই থানর ওসি(তদন্ত) দেলোয়ার হোসেন বলেন, এ ব্যাপারে পুলিশ প্রশাসন সতর্ক রয়েছে, ঘটনাস্থল পুলিশ পরিদর্শন করেছে, এখনো কোন মামলা হয় নাই। মামলা হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24