বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে সংগ্রামী সেই মেয়েটির পরিবারে উপজেলা পরিষদের সেলাই মেশিন প্রদান জগন্নাথপুরে মোটরযান ও ভোক্তা আইনে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা সৌদিতে নির্যাতিতা জগন্নাথপুরের কিশোরীকে দেশে ফেরাতে পরিকল্পনামন্ত্রীর ডিও লেটার কলকলিয়া ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলন সম্পন্ন হলেও কমিটি হয়নি আইসিজেতে গাম্বিয়ার আইনমন্ত্রী-মিয়ানমারের গণহত্যা কোনোভাবেই গ্রহণ করা যায় না জগন্নাথপুরে মানবাধিকার দিবসে র‌্যালি ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত সিলেটে মাকে হত্যা করল পাষান্ড ছেলে ঘৃনার বদলে অমুসলিমদের মধ্যে ১০ হাজার কোরআন বিতরণ করবে নরওয়ের মুসলিমরা জগন্নাথপুরে ফুটবল এসোসিয়েশনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন উপলক্ষে প্রস্তুতিসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে পারাপারের সময় খেলা নৌকা থেকে পড়ে মৃগী রোগির মৃত্যু

নানা অজুহাতে বাঁধের কাজ পেছানো হচ্ছে

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০১৮
  • ১১৩ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি
‘নানা অজুহাতে বাঁধের কাজ পেছানো হচ্ছে, এটা ঠিক হচ্ছে না, পরিকল্পিতভাবে কাজ না করলে এবার বাঁধের কাজ শেষ হবার আগেই হাওরে পানি আসবে এবং কৃষকদের জন্য এবারও বিপর্যয় নেমে আসবে। কোথায় বাঁধের পাশে পানি রয়েছে, কাদা মাটি আছে, এসব দেখার সময় নাই এখন, এক দিনকে এক মাস মনে করে কাজ করতে হবে। বাঁধের পাশের নরম বা কাদা মাটি কিংবা পানি থাকলেও এক্সেভেটারের বাকেট দিয়ে পানি থেকেই মাটি তুলতে হবে। কয়েকদিন মাটি বাঁধে রাখলেই শুকিয়ে যাবে। পরে এই মাটির উপর দিয়ে এক্সভেটার চালালে মাটি কমপেকশন হয়ে যাবে। শ্রমিক লাগিয়ে এবং বাকেট দিয়ে বাঁধের দুই পাশের স্লোপও কমপেকশন করা যাবে। এভাবে বাঁধের কাজ না করলে কম সময়ে এতো বাঁধের কাজ শেষ করা সম্ভব হবে না।’ জেলার শাল্লা উপজেলার বাহাড়া ইউনিয়নের কৃষক নরেশ অধিকারী’র মন্তব্য এটি। বৃহস্পতিবার দুপুরে এই প্রতিবেদকের সঙ্গে হাওরের বাঁধ নির্মাণ কাজ বিলম্বিত হওয়া নিয়ে কথা বলার সময় এমন মন্তব্য করেন তিনি।
নরেশ অধিকারী’র এই মন্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করলেন শাল্লার কুশিয়ারার ডান তীরের হাওরপাড়ের কৃষক লোকমান মিয়া, বারেক মিয়া ও পিযুষ কান্তি দাস। এই কৃষকরা বললেন,‘বাঁধের কাজ এখন না করলে পানি আসার আগে নরম মাটি দিয়ে বাঁধ করলে, পানি আসতেই বাঁধ ভেঙে যাবে। বিপজ্জনক ক্লোজার যেখানে, সেখানে দুটি বাঁধ দেওয়া যেতে পারে। মাটি দিয়ে ক্লোজার বন্ধ করা হবে, আবার এই ক্লোজারকে নিরাপদ রাখার জন্য ক্লোজারের সামনে আরেকটি বাঁধ দেওয়া হবে, একটি ভাঙলে আরেকটি হাওর রক্ষা করবে।’
পাগনার হাওরপাড়ের বড় কৃষক ফেনারবাঁক ইউপি চেয়ারম্যান করুণাসিন্ধু তালুকদার বলেন,‘এবার হাওরে শ্রমিক নেই, কর্মজীবী দিনমজুররা হাওর ছেড়ে গত এপ্রিল- মে মাসেই ঢাকায়, সিলেটে, ভোলাগঞ্জে চলে গেছে, এখন এক্সেভেটার দিয়ে বাঁধের কাজ করা ছাড়া বিকল্প নেই। এক্সেভেটার দিয়ে ৫০ ফুট দূর থেকেও মাটি তোলা যায়, প্রয়োজনে একবার দূরবর্তী স্থান থেকে মাটি তুলে, আরেকবার এক্সেভেটার দিয়ে বাঁধে ফেলা যাবে মাটি। এজন্য বাঁধের কাজে এক্সেভেটারের সংখ্যাও বাড়াতে হবে।’
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জেলার ১১ উপজেলার ৮২৫ টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসি) মধ্যে ৯৮ টির কাজ শুরু করেছে।
উপজেলা অনুযায়ী বাঁধের কাজ শুরু হয়েছে সুনামগঞ্জ সদরে ৪৮ টি’র মধ্যে ৯ টি, বিশ্বম্ভরপুরে ৩৫ টি’র মধ্যে ৩ টি, জামালগঞ্জে ৭০ টি’র মধ্যে ১০ টি, তাহিরপুরে ৬২ টি’র মধ্যে ৭ টি, ধর্মপাশায় ১৩৬ টি’র মধ্যে ৩২ টি, শাল্লায় ১৪৪ টি’র মধ্যে ৯ টি, দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ৬০ টি’র মধ্যে ৬ টি, দোয়ারাবাজারে ৪৩ টি’র মধ্যে ৫ টি, জগন্নাথপুরে ১০৫ টি’র মধ্যে ১২ টি এবং দিরাইয়ে ১১৩ টি’র মধ্যে ৫ টিতে।
হাওরপাড়ের একাধিক কৃষক বলেছেন,‘এভাবে কাজে মন্থর গতি থাকলে বাঁধের কাজের শেষ সময়সীমা ২৮ ফেব্রুয়ারি’র মধ্যে অনেক কাজ শুরুই করা যাবে না।’ কৃষকরা মনে করেন কোন অজুহাতেই বাঁধের কাজ পেছানো যাবে না।
সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বকর সিদ্দিক ভুইয়া বললেন,‘প্রাক্কলন তৈরির কাজ শেষ না হওয়ায় বাঁধের কাজ শুরু করতে কিছু বিলম্ব হচ্ছে, অবশ্য কাজ শুরু করেও প্রাক্কলন তৈরি করা যেত, দায়িত্বপ্রাপ্তরা সেটি না করায় প্রাক্কলন দ্রুত তৈরির জন্য ৩৫ জন উপ-সহকারী প্রকৌশলী সুনামগঞ্জে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এসেছেন। প্রকৌশলীর এই সংখ্যা পানি উন্নয়ন বোর্ড সুনামগঞ্জে কাজ শুরু করার পর থেকে সবচেয়ে বেশি। আমরা দ্রুত বাঁধের কাজ সম্পন্ন করার জন্য গুরুত্ব দিচ্ছি। মাননীয় পানিসম্পদ মন্ত্রীও শুক্রবার সুনামগঞ্জে আসবেন।’ বাঁধের পাশে নরম বা কাদা মাটি হলেও এক্সভেটার দিয়ে তুলে শুকিয়ে কমপেকশন করে দেবার যে পরামর্শ কৃষকরা দিয়েছেন, এটি সঠিক পরামর্শ জানিয়ে তিনি বললেন, ‘এভাবে করা যেতে পারে।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24