পিঅাইওকে উৎকোচ না দেয়ায় টেন্ডারে বাতিল চার ঠিকাদার

স্টাফ রিপোর্টার ::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে উৎকোচ না দেয়ায় সেতুর কাজের দরপত্রের লটারীতে অংশ নেয়া থেকে চার টিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে বাতিল করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বুধবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবরে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান লিখিতভাবে এ অভিযোগ করেন।
অভিযোগে বলা হয় জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন ভূঁইয়া কে চাহিদা মোতাবেক উৎকোচ না দেয়ায় ক্ষুব্দ হয়ে তিনি বুধবার অনুষ্ঠিত উপজেলা প্রকল্প কার্যালয়ের চারটি সেতুর দরপত্রের লটারী চলাকালে কাগজপত্রে ক্রটির অভিযোগ এনে চারটি প্রতিষ্ঠানকে বাতিল করেন। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো জগন্নাথপুরের তারেক ট্রেডার্স, মেসার্স ফাতেমা কনস্ট্রাকশন,হিবলু ট্রেডার্স ও মতিন ট্রেডার্স।
তারেক ট্রেডার্স এর মালিক উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাফরোজ ইসলাম বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার চাহিদা মোতাবেক উৎকোচ না দেয়ায় আমাদের চারটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে মিথ্যা অভিযোগ এনে দরপত্রের লটারীতে অংশ নেয়া থেকে বাতিল করেন। তিনি বলেন,সকল ঠিকাদারের মতামতকে উপেক্ষা করে ম্যাজিষ্ট্রেট ও পুলিশ এনে লটারী দিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন।
মতিন ট্রেডার্সের মালিক পৌর বিএনপি সভাপতি আব্দুল মতিন বলেন,প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আমাদের কাছে উৎেকাচ চেয়েছিলেন। চাহিদামোতাবেক উৎকোচ না দেয়ায় মিথ্যা অভিযোগ এনে আমাদের দরপত্র বাতিল করা হয়। তাই আমরা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবরে আবেদন করেছি।
প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন ভুঁইয়া বলেন, কাগজপত্রে ত্রুটি থাকায় চারটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে বাতিল করে বৈধ দরপত্র দিয়ে লটারী করা হয়েছে। উৎকোচের অভিযোগ সঠিক না।
জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান বলেন,ঠিকাদারদের অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» জগন্নাথপুরে ভুয়া নাগরিক-প্রমাণ মিলল চারজনের, পদক্ষেপ নিতে প্রতিমন্ত্রীর এমএ মান্নানের নিকট আবেদন

» শেখ হাসিনার সরকার উন্নয়নে বিশ্বাসী- এম এ মান্নান

» জগন্নাথপুরে ১ কোটি ৪২ লাখ টাকা ব্যয়ে দুটি বিদ্যালয় ভবনের উদ্ধোধন করলেন মন্ত্রী এম এ মান্নান

» জগন্নাথপুরে মাদকসহ গ্রেফতার-২

» সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতির সুনামগঞ্জ জেলা সভাপতি হারুন রশীদ সাধারণ সম্পাদক প্রনব দাস

» সুনামগঞ্জের খবরের সম্পাদক পঙ্কজ দে কে দেখতে গেলেন প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান

» বঙ্গবন্ধু কাপ: ১ অক্টোবর থেকে সিলেটে বসছে ফুটবলের আন্তর্জাতিক আসর

» জগন্নাথপুরে উন্নয়ন মেলা উদযাপনের লক্ষ্যে প্রস্তুুতিসভা

» মৃত ঘোষণার পর নড়ে উঠল তরুণী

» ফারমার্স ব্যাংকের ৬ কর্মকর্তাকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

পিঅাইওকে উৎকোচ না দেয়ায় টেন্ডারে বাতিল চার ঠিকাদার

স্টাফ রিপোর্টার ::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে উৎকোচ না দেয়ায় সেতুর কাজের দরপত্রের লটারীতে অংশ নেয়া থেকে চার টিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে বাতিল করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বুধবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবরে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান লিখিতভাবে এ অভিযোগ করেন।
অভিযোগে বলা হয় জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন ভূঁইয়া কে চাহিদা মোতাবেক উৎকোচ না দেয়ায় ক্ষুব্দ হয়ে তিনি বুধবার অনুষ্ঠিত উপজেলা প্রকল্প কার্যালয়ের চারটি সেতুর দরপত্রের লটারী চলাকালে কাগজপত্রে ক্রটির অভিযোগ এনে চারটি প্রতিষ্ঠানকে বাতিল করেন। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো জগন্নাথপুরের তারেক ট্রেডার্স, মেসার্স ফাতেমা কনস্ট্রাকশন,হিবলু ট্রেডার্স ও মতিন ট্রেডার্স।
তারেক ট্রেডার্স এর মালিক উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাফরোজ ইসলাম বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার চাহিদা মোতাবেক উৎকোচ না দেয়ায় আমাদের চারটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে মিথ্যা অভিযোগ এনে দরপত্রের লটারীতে অংশ নেয়া থেকে বাতিল করেন। তিনি বলেন,সকল ঠিকাদারের মতামতকে উপেক্ষা করে ম্যাজিষ্ট্রেট ও পুলিশ এনে লটারী দিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন।
মতিন ট্রেডার্সের মালিক পৌর বিএনপি সভাপতি আব্দুল মতিন বলেন,প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আমাদের কাছে উৎেকাচ চেয়েছিলেন। চাহিদামোতাবেক উৎকোচ না দেয়ায় মিথ্যা অভিযোগ এনে আমাদের দরপত্র বাতিল করা হয়। তাই আমরা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবরে আবেদন করেছি।
প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন ভুঁইয়া বলেন, কাগজপত্রে ত্রুটি থাকায় চারটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে বাতিল করে বৈধ দরপত্র দিয়ে লটারী করা হয়েছে। উৎকোচের অভিযোগ সঠিক না।
জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান বলেন,ঠিকাদারদের অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে পদক্ষেপ নেয়া হবে।

© 2018 জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

error: ভাই, কপি করা বন্ধ আছে।