রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯, ১০:৫৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে বিদ্যালয়ের নির্বাচন স্থগিত করায় প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে মাদক মামলার ৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ হরমুজ আলীর কবিতা-অমাবস্যা সময় সংবাদ সম্মেলনে জগন্নাথপুরের রাখাল চন্দ্রের অভিযোগ, ‘সামাজিকভাবে হেয় করতেই সীমানা পিলার চুরির অপবাদ দেওয়া হয়েছে’ বেশি দামে সিগারেট বিক্রি করায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অবশেষ ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন গ্রেফতার ভারতে তীব্র দাবদাহে ৪০ জনের মৃত্যু আদালতের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা চাইলেন নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান জগন্নাথপুরে ধান বিক্রয়ে কৃষকের ভয়, বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন ইউএনও জগন্নাথপুরে ডাকাত গ্রেফতার

প্রশ্নপত্র কেলেংকারিতে সংসদে ক্ষোভ

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯
  • ১৫ Time View

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::

এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনে প্রশ্নপত্র বিতরণে কেলেংকারির ঘটনা নিয়ে সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্যরা। তারা বলেছেন, প্রশ্নপত্র বিভ্রাটে বেশ কিছু কেন্দ্রে অনিয়মিত পরীক্ষার্থীদের জন্য তৈরি করা প্রশ্নে পরীক্ষা দিতে হয়েছে নিয়মিত পরীক্ষার্থীদের।

অবশ্য এই ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি কোনোওশিক্ষার্থী যাতে ক্ষতিগ্রস্থ না হয়, সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

রোববার একাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে মন্ত্রীদের জন্য নির্বারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র কেলেংকারির বিষয়টি উত্থাপিন করেন বিরোধী দলীয় সদস্যরা।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠকে জাতীয় পার্টির এমপি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির কাছে জানতে চান, কর্তৃপক্ষের ভুলের কারণে ভিন্ন প্রশ্নে নিয়মিত পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা দিতে হয়েছে। এতে শিক্ষার্থীদের বড় ধরনের ক্ষতির মুখে পড়তে হবে। যা তাদের শিক্ষাজীবনের ওপর প্রভাব ফেলবে। এ বিষয় মন্ত্রণালয় কি ব্যবস্থা নিয়েছে?

জবাবে শিক্ষামন্ত্রী জানান, সারাদেশের এসএসসি পরীক্ষার প্রায় ৪ হাজার কেন্দ্র রয়েছে। এর মধ্যে কয়েকটি কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটেছে। কেন্দ্র সচিবসহ যাদের ভুলের কারণে এটা ঘটেছে, ইতোমধ্যে তাদেরকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত্ম কমিটিও গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর দায়ি সকলের বিরম্নদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, প্রথম দিনের পরীক্ষায় যারা ভুল প্রশ্নে পরীক্ষা দিয়েছে, তাদেরকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তারা যাতে কোনোভাবেই ক্ষতিগ্রস্থ না হয়, সেজন্য তাদের খাতা ভিন্নভাবে দেখা হবে। আগামীতে যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে- সে বিষয়েও সংশিতষ্ট সকলকে সতর্ক করা হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রীর এই বক্তব্যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান জাতীয় পার্টির আরেক সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম। তিনি বলেন, শিক্ষামন্ত্রী নৈতিকতাবিরোধী বক্তব্য দিলেন। যারা ভুল প্রশ্নে পরীক্ষা দিয়েছেন তাদের কোন মানদণ্ডে নম্বর দেবেন। সিলেবাসের বাইরের প্রশ্নে তারা পরীক্ষায় কী লিখলো? তারা না লিখলেও কী নম্বর দিবেন? বরং তাদের সিলেবাসে নতুন প্রশ্নে তাদের আবরো পরীক্ষা নেওয়া যায় কি-না?

জবাবে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, নতুন করে পরীক্ষা নিলেও তো একই মানদণ্ড নিশ্চিত করা সম্ভব নয়। কারণ আগের যে প্রশ্নে অন্যরা পরীক্ষা দিয়েছে, একই প্রশ্নে আবারো পরীক্ষা নেওয়ার সুযোগ নেই। আর নতুন প্রশ্ন করলে তো আলাদাই হলো। তবে, সমাধান কী? এবিষয়ে যুক্তিযুক্ত ও গ্রহণযোগ্য বিকল্প কোনো প্রস্তাব থাকলে তা মন্ত্রণালয়কে জানানোর অনুরোধ জানান তিনি।
সৌজন্যে-সমকাল

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24