শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ০৮:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরের চিতুলিয়া গ্রামে আগুন,দুইটি ঘরসহ পুড়ল ১২ লাখ টাকার মালামাল জগন্নাথপুরে এখনও সম্পন্ন হয়নি আ.লীগের ওয়ার্ড ভিত্তিত্ব কমিটি প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা শুরু ১৭ নভেম্বর জগন্নাথপুরে সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে সুযোগ পেল ১৭ পরীক্ষার্থী বন্ধ হলো ফেসবুকের সাড়ে পাঁচ’শ কোটি ভুয়া অ্যাকাউন্ট রংপুর এক্সপ্রেসে আগুন, চারটি বগি লাইনচ্যুত জেলা মহিলা আ.লীগ নেত্রী রফিকা চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জগন্নাথপুরে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত আর্জেন্টিনার আদালতে সু চির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ছাতক-সুনামগঞ্জ সড়কে বিআরটিসি বাস চালুর দাবি সম্মেলনকে সামনে রেখে জগন্নাথপুরে আ.লীগের কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ ও সফরকারী পাকিস্তানের মধ্যকার প্রথম টেস্ট ড্র ।

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২ মে, ২০১৫
  • ৮০ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডকটম ডেস্ক :: স্বাগতিক বাংলাদেশ ও সফরকারী পাকিস্তানের মধ্যকার প্রথম টেস্ট ড্র হয়েছে।

খুলনায় ম্যাচের শনিবার ম্যাচের পঞ্চম ও শেষ দিনের শেষ সেশনে বাংলাদেশ নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেট ৫৫৫ রান করার পর দুই দলের অধিনায়করা ড্র মেনে নিলে খেলার সমাপ্তি ঘটে।

শেষ পর্যন্ত সাকিব আল হাসান ৭৬ রানে ও শুভাগত হোম ২০ রানে অপরাজিত ছিলেন।

প্রথম ইনিংসে ২৫ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ২০৬ রান করা তামিম ইকবাল ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন।

বিনা উইকেটে ২৭৩ রান তুলে ম্যাচের চতুর্থ দিন শেষ করা বাংলাদেশ পঞ্চম ও শেষ দিন শনিবার সকালে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ফের ব্যাট করতে নামে। আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান এদিন দলীয় সংগ্রহে যোগ করেন ৩৯ রান। আর তাতে টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে দ্বিতীয় ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েন তামিম ও ইমরুল।

দলীয় ৩১২ রানে ইমরুলকে সাজঘরে ফেরত পাঠিয়ে জুটি ভাঙ্গেন পাকিস্তানি স্পিনার জুলফিকার বাবর। বদলি ফিল্ডার বাবর আজমের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে ১৬টি চার ও ৩টি ছয়ের সাহায্যে ইমরুল খেলেন ১৫০ রানের অসাধারণ ইনিংস।

এরপর দলীয় ৩৪৫ রানে বাংলাদেশের দ্বিতীয় উইকেটের পতন হয়। ২১ রান করা মুমিনুল হককে বোল্ড করে সাজঘরে ফেরত পাঠিয়ে পাকিস্তান শিবিরে দিনের দ্বিতীয় সাফল্য এনে দেন পাকিস্তানি পেসার জুনাইদ খান।

টেস্টে ক্যারিয়ারের প্রথম দ্বিতশক হাঁকিয়ে দলীয় ৩৯৯ রানে সাজঘরে ফেরেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। মোহাম্মদ হাফিজের বলে স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরার আগে তামিম খেলেন ২০৬ রানের ইনিংস। ১৭টি চার ও ৭টি ছয়ে সাজানো তার এই অসাধারণ ইনিংসটি টেস্টে বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস।

এরপর চা-বিরতির পর তৃতীয় সেশনে ব্যাটিংয়ে নেমে পরপর দুই ওভারে মাহমুদুল্লাহ ও অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

দলীয় ৪৬৩ রানে মাহমুদুল্লাহকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে সাজঘরে ফেরান পেসার জুনাইদ খান। মাহমুদুল্লাহ করেন ৪০ রান। পরের ওভারে বোলিংয়ে এসে অধিনায়ক মুশফিককে ফেরান পাকিস্তানি স্পিনার মোহাম্মদ হাফিজ। এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরার আগে মুশফিক কোনো রান করতে পারেননি।

দলীয় ৫২৪ রানে সৌম্য সরকার আউট হলে বাংলাদেশের ষষ্ঠ উইকেটে পতন হয়। আসাদ শফিকের বলে মোহাম্মদ হাফিজের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে এই ম্যাচে টেস্ট অভিষেক হওয়া সৌম্য করেন ৩৩ রান।

দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে চতুর্থ দিনের মধ্যাহ্ন বিরতির কিছুক্ষণ আগে প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানকে ৬২৮ রানে গুটিয়ে দেয় বাংলাদেশ। এতে প্রথম ইনিংসে ২৯৬ রানের লিড পায় সফরকারীরা।

পাকিস্তানের পক্ষে প্রথম ইনিংসে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ হাফিজ তুলে নেন তার টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম দ্বিশতক। তিনি শেষ পর্যন্ত ২২৪ রানে আউট হন। এছাড়া প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানের পক্ষে আজহার আলি ৮৩, আসাদ শফিক ৮৩, সরফরাজ আহমেদ ৮২ ও অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক ৫৯ রান করেন।

স্বাগতিকদের পক্ষে তাইজুল ১৬৩ রানে ৬ উইকেট শিকার করেন।

এরপর ২৯৬ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে খেলতে নেমে চতুর্থ দিন শেষে অপরাজিত থাকেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার তামিম ও ইমরুল। ৬১ ওভার ব্যাট করে তারা করেন ২৭৩ রান।

গত মঙ্গলবার খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া এই ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। ব্যাট করতে নেমে সবক’টি উইকেট হারিয়ে প্রথম ইনিংসে ৩৩২ রান তোলে স্বাগতিকরা। প্রথম ইনিংসে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮০ রান করেন মুমিনুল হক। এছাড়া ইমরুল কায়েস ৫১ ও মাহমুদুল্লাহ ৪৯ রান করেন।

প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানের পক্ষে ওয়াহাব রিয়াজ ও ইয়াসির শাহ ৩টি করে এবং মোহাম্মদ হাফিজ ও জুলফিকার বাবর দুটি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৩৩২/১০, ১২০ ওভার (মুমিনুল ৮০, ইমরুল ৫১; ওয়াহাব ৩/৫৫, ইয়াসির ৩/৮৬)

পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ৬২৮/১০, ১৬৮.৪ ওভার (হাফিজ ২২৪, শফিক ৮৩; তাইজুল ৬/১৬৩, শুভাগত ২/১২০)

বাংলাদেশ ২য় ইনিংস: ৫৫৫/৬, ১৩৬ ওভার (তামিম ২০৬, ইমরুল ১৫০, সাকিব ৭৬; হাফিজ ২/৮২, জুনাইদ ২/৮৮)

ম্যান অব দি ম্যাচ: তামিম ইকবাল

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24