শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯, ০৫:৩১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুর আর্ট স্কুলের অধ্যক্ষ প্রণব বণিক আর নেই হাওরের দুনীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকবে হাওর বাঁচাও আন্দোলন কমিটি যুক্তরাজ্য বিএনপি থেকে সাবেক ছাত্র নেতা এম এ কাদিরের পদত্যাগ জগন্নাথপুরে শনিবার সকাল ৮টা থোক বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ থাকবে বিদেশে থেকেও তিনি ‘হত্যা’ মামলার দুই নম্বর আসামী! সন্মেলনকে সামনে রেখে কলকলিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের সভা অনুষ্ঠিত ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে জগন্নাথপুরে মোবারক র‌্যালি জগন্নাথপুর পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ড আ.লীগের কমিটি গঠন তাহিরপুরকে হারিয়ে বিজয়ী জগন্নাথপুর,ম‌্যাচ সেরা অলি বাস-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৭

বিদায়ী বার্তায় শেখ রফিকুল ইসলাম -এক স্বর্গীয় সৌন্দর্যের এবং অসীম সম্ভাবনার শহর সুনামগঞ্জ

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২১ মে, ২০১৭
  • ৫৮ Time View

দুই বছর দশ মাস ১৯ দিনের কর্মজীবন শেষে আজ নতুন কর্মস্থলে যোগদানের উদ্দ্যেশে প্রিয় শহর সুনামগঞ্জ ছেড়ে চলে যাচ্ছি। নতুন কর্মস্থল জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো, ঢাকা । পিছনে ফেলে যাচ্ছি জল জোছনার শহর হাওর কন্যা সুনামগঞ্জকে। হৃদয়ের গভীরে করে নিয়ে যাচ্ছি আমার তিন বছরের সুখ স্মৃতি আর এ জেলার সকল প্রিয় মানুষকে। মিস করব প্রিয় মানুষগুলোকে। সুরের শহর ,গানের শহর সুনামগঞ্জকে। পিছিয়ে পড়া নাম মুছে দিয়ে বীরদর্পে উন্নয়নের শিখরে দৃঢ় হেঁটে যাওয়া সুনামগঞ্জকে।
যোগদানের পর হাওর অঞ্চলের শিক্ষা প্রসার-কে একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়ে আমি প্রতিটি উপজেলার অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গিয়েছি। শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী অভিভাবকদের সাথে মতবিনিময় করেছি। শিক্ষার সম্প্রসারণে, শিক্ষকদের শুন্যপদ পূরণে, হাওর অঞ্চলে আবাসিক বিদ্যালয় স্থাপন করাসহ নানা বিষয়ে তিনটি জেলা প্রশাসক সম্মেলনসহ একাধিকবার ভিডিও কনফারেন্সে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করেছি। সহ¯্রাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উন্নয়নমূলক কাজের জন্য বরাদ্দ প্রদানের ব্যবস্থা করেছি। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় শুধু গত বছরেই শিক্ষার ঝরে পড়ার হার কমেছে ৬.১৪%।এ হার বজায় থাকলে আগামী তিন বছরে ঝরে পড়ার হার শূন্যে নেমে আসবে বলে আশা করি। ছাতক ও জগন্নাথপুর উপজেলাকে স্কাউট উপজেলা ঘোষণা করা হয়েছে। শিক্ষার মাধ্যমে প্রতিবন্ধী শিশুদের উন্নয়নের মূল ¯্রােতে ফিরিয়ে আনতে তাদের জন্য বিশেষায়িত বিদ্যালয় “সুনামগঞ্জ অটিস্টিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়” প্রতিষ্ঠা করেছি। সংস্কৃতির রাজধানী সুনামগঞ্জের শিল্প, সংস্কৃতি ও সাহিত্যের প্রসারে এবং তা আন্তর্জাতিক পরিসরে তুলে ধরতে প্রতিটি উপজেলায় শিল্পকলা একাডেমীর স্বতন্ত্র ভবন করা হয়েছে। সুনামগঞ্জের ইতিহাস , ঐতিহ্য সম্ভাবনা-কে তুলে ধরতে “ সুনামগঞ্জ জেলাঃ ইতিহাস, ঐতিহ্য, সম্ভাবনা “ নামে ৫২৪ পৃষ্ঠার একটি বৃহৎ বই প্রকাশ করা হয়েছে। সুনামগঞ্জের উন্নয়ন,সম্ভাবনা আর সমৃদ্ধ সংস্কৃতির কথা বলতে চালু হয়েছে অনলাইন রেডিও “ রেডিও সুনামগঞ্জ”। সুনামগঞ্জবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিতে সুনামগঞ্জ চেম্বারের সহযোগিতায় সমগ্র শহরে সিসি টিভি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। প্রতিদিন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আসা মানুষের বসার জন্য জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে একটি চিত্তাকর্ষক “সেবা চত্বর” নির্মাণ করা হয়েছে। জেলার সকল মানুষের অভিযোগ, মতামত এবং সিটিজেন জার্নালিজমের উন্মোক্ত পাটফর্ম হিসেবে খুলা হয়েছে জেলা প্রশাসনের নিজস্ব ফেসবুক পেজ যা প্রতি সপ্তাহে দশ থেকে পঞ্চাশ হাজার লোক দেখে থাকেন। এক লক্ষ পনের হাজার লাল কার্ড দেখিয়ে সুনামগঞ্জকে বাল্য বিবাহ মুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে যা একটি বিশ্ব রেকর্ড এবং এটি গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড বই-এ উঠানোর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। সুনামগঞ্জের চার জন বীর প্রতীক সহ সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাকে নিয়ে ভিডিও ভিডিও ডকুমেন্টারি তৈরি করা হয়েছে এবং তা সুনামগঞ্জ ঐতিহ্য জাদুঘরে প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাকে একটি করে ডায়রি উপহার দেয়া হয়েছে এবং যুদ্ধ দিনের স্মৃতি নিয়ে তাঁদের স্বহস্তে লেখা এ ডায়রিগুলো সুনামগঞ্জ ঐতিহ্য জাদুঘরে সংরক্ষণ করা হয়েছে। সুনামগঞ্জ ঐতিহ্য জাদুঘরেকে সংস্কার এবং আধুনিক করে পূর্নাঙ্গ রূপ দিয়ে সর্ব সাধারনের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে। জাদুঘরেকে রুটিন কাজের বাইরে আমি জনকল্যাণমূলক প্রায় পঞ্চাশটি প্রজেক্টের কাজ করার চেষ্টা করেছি।
প্রিয় সুনামগঞ্জবাসী, এক স্বর্গীয় সৌন্দর্যের এবং অসীম সম্ভাবনার একটি উর্বর জেলায় আপনারা বাস করেন। আপনাদের সকলকে একসাথে নিয়ে সুনামগঞ্জেকে সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যেতে আমি চেষ্টার ত্রুটি করেনি। সময় প্রবাহমান নদীর মত। সময়ের পরিক্রমায় আমার নতুন কর্মস্থলে চলে যাবার সময় হয়েছে। কিন্তু সুনামগঞ্জকে নিয়ে যাচ্ছি হৃদয়ের গভীরে করে। হৃদয়ের পবিত্রতা নিয়ে আমি সুনামগঞ্জের সুখ ও সমৃদ্ধির জন্য প্রার্থনা করি।
আমি সুনামগঞ্জের সকলের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি আমার সকল সহকর্মীসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে কর্মরত সরকারি বেসরকারি দপ্তরে কর্মরত সকল কর্মকর্তা কর্মচারির প্রতি। সকল,কৃষক, শ্রমিক, শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, পেশাজীবি, ব্যবসায়ী, শিল্পী, সুধীজন, সমাজের তৃতীয় নয়ন সাংবাদিক বৃন্দ সহ সকল আপামর জনসাধারণের প্রতি আমি বিন¤্র কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি যাঁরা আমাকে নিরন্তর ক্লান্তিহীন সহযোগিতা করেছেন এবং অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন। বিশেষভাবে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই এ জেলার সকল মাননীয় সংসদ সদস্য, জেলা পরিষদ ও উপজলা পরিষদেরসম্মানিত চেয়ারম্যানগণ, সকল সম্মানিত পৌর মেয়রসহ সকল জনপ্রতিনিধি-কে যাঁরা আমার কাজের জন্য এক অসম্ভব সুন্দর এবং অনুকূল পরিবেশের সৃষ্টি করে দিয়েছেন এবং আমাকে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেছেন। আমাকে আপনারা যেভাবে সহযোগিতা করেছেন নতুন জেলা প্রশাসক মহোদয়কে একইভাবে সহযোগিতা করার জন্য আমি আপনাদের প্রতি বিনীত অনুরোধ জানাই।
আমি আপনাদের সুস্বাস্থ্য কামনা করি। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন। মনের গভীরে আছেন সবাই। সুনামগঞ্জের উন্নয়নের সোনালী সকালে সবাই একসাথে হাঁটব। সবাই ভালো থাকুন। সুস্থ্য থাকুন। সকলের প্রতি আবারো বিনম্র শ্রদ্ধা। সূত্- সুনামগ্জর খবর

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24