ভোটের রাতে গণধর্ষণ: ‘মূল পরিকল্পনাকারী’ গ্রেফতার

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে বিতণ্ডার জেরে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার স্বামী-সন্তানদের বেঁধে রেখে এক নারীকে মারধর ও গণধর্ষণের ঘটনায় হাসান আলী বুলু (৬০) নামে ‘মূল পরিকল্পনাকারীকে’ গ্রেপ্তার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
শুক্রবার ভোরে পুলিশের একটি দল তাকে গ্রেপ্তার করে বলে নিশ্চিত করেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) ইলিয়াছ শরীফ। একই দিন জসিম উদ্দিন (৩০) নামে আরেকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ জানান, মামলার এজাহারে বুলু বা জসিমের নাম ছিল না। তবে পুলিশ তদন্তে নেমে ঘটনার সঙ্গে তাদের সম্পৃক্ততা পাওয়ায় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।হাসান আলী বুলু সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক রুহুল আমিনের ‘প্রধান সহযোগী’ হিসেবে এলাকায় পরিচিত।নোয়াখালীর সুবর্ণচরে ভোটের রাতে এ ঘটনায় মূলহোতা আওয়ামী লীগ নেতা রুহুল আমিনসহ এখন পর্যন্ত সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হলো।উল্লেখ্য, রোববার (৩০ ডিসেম্বর) নির্বাচনের দিন সেই নারী ধানের শীষে ভোট দিয়ে ফেরার পথে তাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন আওয়ামী লীগ নেতা রুহুল আমিন। এরপর রাতে রুহুল আমিনের নেতৃত্বে ১০ জন মিলে ওই গৃহবধূর বাড়িতে গিয়ে তার স্বামী ও সন্তানদের বেঁধে রেখে তাকে বাইরে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করেন। এছাড়া ওই দম্পতি এবং তাদের সন্তানদের পিটিয়ে জখম করেন তারা।এরপর সকালে সেই নারীকে উদ্ধার করে ২৫০ শয্যার নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তখন হাসপাতালের চিকিৎসকরা সেই নারীকে গণধর্ষণ ও পিটিয়ে জখম করার আলামত পাওয়ার কথা জানান।এ নিয়ে পরের দিন ৩১ ডিসেম্বর সেই নারীর স্বামী চরজব্বার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ নিয়ে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে দেশজুড়ে। সরকারের পক্ষে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরও জানিয়ে দেন, গণধর্ষণের ঘটনায় কেউ রেহাই পাবে না। এ বিষয়ে সরকার কঠোর অবস্থানে।তার প্রেক্ষিতেই বুধবার (২ জানুয়ারি) রাতে রুহুল আমিনসহ দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে, গ্রেপ্তার তিন আসামি হলেন সুবর্ণচরের মধ্য বাগ্যা গ্রামের মৃত ইসমাইলের ছেলে সোহেল (৩৫), মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে স্বপন (৩৫) ও একই গ্রামের আহমদ উল্লার ছেলে বাসু (৪০)।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» জেলা আইনজীবি সমিতির নির্বাচন, সভাপতি চাঁন মিয়া, সেক্রেটারী সাহারুল

» জগন্নাথপুর ক্রিকেট এসোসিয়েশনের বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করায় সৈয়দপুর ইয়াংম্যান ক্রিকেট ক্লাবকে ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ

» সামাদ আজাদের ৯৭ তম জন্মবার্ষিকী তাঁর জন্মভূমি জগন্নাথপুরে পালিত

» জগন্নাথপুরে ঘোড়দৌড় সম্পন্ন: মায়ের আদেশকে হারিয়ে রাজমুকুট চ্যাম্পিয়ান, উৎসুক মানুষের ঢল

» যে ১০ ক্যাটাগরির আবেদনকারী কানাডার যেতে পারবে সহজে

» কাদেরকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে বললেন ফখরুল

» ১২ বছর দল না করলে উপজেলায় মনোনয়ন দেবে না আ. লীগ

» জগন্নাথপুরে ভারতীয় নিষিদ্ধ বিড়িসহ র‌্যাবের হাতে আটক-১

» সবার সাথে বন্ধুত্বসুলভ সম্পর্ক রেখেই আমরা চলতে চাই: ড.মোমেন

» সংসদ নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ ও বির্তকিত: টিআইবি

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

ভোটের রাতে গণধর্ষণ: ‘মূল পরিকল্পনাকারী’ গ্রেফতার

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে বিতণ্ডার জেরে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার স্বামী-সন্তানদের বেঁধে রেখে এক নারীকে মারধর ও গণধর্ষণের ঘটনায় হাসান আলী বুলু (৬০) নামে ‘মূল পরিকল্পনাকারীকে’ গ্রেপ্তার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
শুক্রবার ভোরে পুলিশের একটি দল তাকে গ্রেপ্তার করে বলে নিশ্চিত করেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) ইলিয়াছ শরীফ। একই দিন জসিম উদ্দিন (৩০) নামে আরেকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ জানান, মামলার এজাহারে বুলু বা জসিমের নাম ছিল না। তবে পুলিশ তদন্তে নেমে ঘটনার সঙ্গে তাদের সম্পৃক্ততা পাওয়ায় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।হাসান আলী বুলু সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক রুহুল আমিনের ‘প্রধান সহযোগী’ হিসেবে এলাকায় পরিচিত।নোয়াখালীর সুবর্ণচরে ভোটের রাতে এ ঘটনায় মূলহোতা আওয়ামী লীগ নেতা রুহুল আমিনসহ এখন পর্যন্ত সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হলো।উল্লেখ্য, রোববার (৩০ ডিসেম্বর) নির্বাচনের দিন সেই নারী ধানের শীষে ভোট দিয়ে ফেরার পথে তাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন আওয়ামী লীগ নেতা রুহুল আমিন। এরপর রাতে রুহুল আমিনের নেতৃত্বে ১০ জন মিলে ওই গৃহবধূর বাড়িতে গিয়ে তার স্বামী ও সন্তানদের বেঁধে রেখে তাকে বাইরে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করেন। এছাড়া ওই দম্পতি এবং তাদের সন্তানদের পিটিয়ে জখম করেন তারা।এরপর সকালে সেই নারীকে উদ্ধার করে ২৫০ শয্যার নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তখন হাসপাতালের চিকিৎসকরা সেই নারীকে গণধর্ষণ ও পিটিয়ে জখম করার আলামত পাওয়ার কথা জানান।এ নিয়ে পরের দিন ৩১ ডিসেম্বর সেই নারীর স্বামী চরজব্বার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ নিয়ে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে দেশজুড়ে। সরকারের পক্ষে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরও জানিয়ে দেন, গণধর্ষণের ঘটনায় কেউ রেহাই পাবে না। এ বিষয়ে সরকার কঠোর অবস্থানে।তার প্রেক্ষিতেই বুধবার (২ জানুয়ারি) রাতে রুহুল আমিনসহ দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে, গ্রেপ্তার তিন আসামি হলেন সুবর্ণচরের মধ্য বাগ্যা গ্রামের মৃত ইসমাইলের ছেলে সোহেল (৩৫), মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে স্বপন (৩৫) ও একই গ্রামের আহমদ উল্লার ছেলে বাসু (৪০)।

© 2018 জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

error: ভাই, কপি করা বন্ধ আছে।