সদরঘাটে নৌকাডুবি: উদ্ধার ৫ লাশ, নিখোঁজ ১

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::

রাজধানীর সদরঘাটে বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চের ধাক্কায় নৌকাডুবির ঘটনায় শনিবার মোট চারজনের লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরিরা। গত বৃহস্পতিবার রাতের এ ঘটনায় এর আগে শুক্রবার এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়। বাকি একজনের খোঁজে শনিবার তৃতীয় দিনের মতো নদীতে তল্লাশি চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস, বিআইডব্লিউটিএ ও নৌ পুলিশ।

সদরঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, এই নৌ দুর্ঘটনায় আহত পোশাক শ্রমিক শাহজালাল মিয়ার বোন জামশেদার (২১) লাশ শুক্রবার উদ্ধার করা হয়। এরপর শনিবার সকালে শাহজালালের মেয়ে মাহিরের (৬) এবং দুপুরে জামশেদার স্বামী দেলোয়ার (৩০), তাদের ছয় মাসের ছেলে জুনায়েদ ও মাহিরের বোন মিমের (৮) লাশ উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, মিম ও মাহিরের মা সাহিদা বেগম (৩০) এখনও নিখোঁজ রয়েছে। তাকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

এদিকে এ ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখতে শুক্রবার তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিআইডব্লিউটিএ। কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, বৃহস্পতিবার রাতে কেরানীগঞ্জের কালীগঞ্জ থেকে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নৌকায় করে সদরঘাটের দিকে আসছিলেন গার্মেন্ট কর্মী শাহজালাল মিয়া (৩৮)। একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শরীয়তপুরে যাওয়ার কথা ছিল তাদের। রাত ১০টার দিকে সদরঘাটের ১৩ নম্বর পন্টুনের কাছে সুরভি-৭ লঞ্চের ধাক্কায় তাদের নৌকাটি ডুবে যায়। এ সময় লঞ্চের প্রপেলারের আঘাতে শাহজালালের দুই পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। নৌ পুলিশের টহলদল তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। বর্তমানে তিনি জাতীয় অর্থোপেডিকস ও পুর্নবাসন (পঙ্গু হাসপাতাল) কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন। তার পরিবারের চারজন সদস্য এখনও নিখোঁজ।

বিআইডব্লিউটিএর ঢাকা নৌবন্দরের যুগ্ম পরিচালক এ কে এম আরিফ উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, ওই নৌকার যাত্রীরা ঝুঁকি নিয়ে চলন্ত লঞ্চের পেছন দিক দিয়ে ওঠার চেষ্টা করেছিলেন। এ সময় লঞ্চ পেছন দিকে যেতে থাকায় প্রপেলারের ঢেউয়ের ধাক্কায় নৌকাটি ডুবে যায়। নৌকাটিতে আট আরোহী ছিলেন। তাদের মধ্যে কেবল মাঝি সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হন।
সুত্র-সমকাল

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» জগন্নাথপুরের বীর মুক্তিযাদ্ধা আব্দুল কাদির শিকদার আর নেই, পরিকল্পনামন্ত্রীর শোক

» সুনামগঞ্জে তিন দিনে তিন খুন, ভাবাচ্ছে সকলকে

» হানিফ পরিবহনের ২ বাসের সংঘর্ষে নিহত-৩

» নিউজিল্যান্ডের রেডিও-টিভিতে জুমার আজান সম্প্রচারের ঘোষণা দিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী

» ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম হত্যা: ১৫ আসামির মৃত্যুদণ্ড

» ইউসুফ (আ.)-এর কবরের পাশে তিন ফিলিস্তিনি যুবককে গুলি করে হত্যা

» জগন্নাথপুরে চার জুয়াড়ি আটক

» নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলন ২৮ মার্চ পর্যন্ত স্থগিত

» তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পরীক্ষা না রাখার নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী

» বাসচাপায় নিহত আবরারের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

সদরঘাটে নৌকাডুবি: উদ্ধার ৫ লাশ, নিখোঁজ ১

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::

রাজধানীর সদরঘাটে বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চের ধাক্কায় নৌকাডুবির ঘটনায় শনিবার মোট চারজনের লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরিরা। গত বৃহস্পতিবার রাতের এ ঘটনায় এর আগে শুক্রবার এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়। বাকি একজনের খোঁজে শনিবার তৃতীয় দিনের মতো নদীতে তল্লাশি চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস, বিআইডব্লিউটিএ ও নৌ পুলিশ।

সদরঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, এই নৌ দুর্ঘটনায় আহত পোশাক শ্রমিক শাহজালাল মিয়ার বোন জামশেদার (২১) লাশ শুক্রবার উদ্ধার করা হয়। এরপর শনিবার সকালে শাহজালালের মেয়ে মাহিরের (৬) এবং দুপুরে জামশেদার স্বামী দেলোয়ার (৩০), তাদের ছয় মাসের ছেলে জুনায়েদ ও মাহিরের বোন মিমের (৮) লাশ উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, মিম ও মাহিরের মা সাহিদা বেগম (৩০) এখনও নিখোঁজ রয়েছে। তাকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

এদিকে এ ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখতে শুক্রবার তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিআইডব্লিউটিএ। কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, বৃহস্পতিবার রাতে কেরানীগঞ্জের কালীগঞ্জ থেকে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নৌকায় করে সদরঘাটের দিকে আসছিলেন গার্মেন্ট কর্মী শাহজালাল মিয়া (৩৮)। একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শরীয়তপুরে যাওয়ার কথা ছিল তাদের। রাত ১০টার দিকে সদরঘাটের ১৩ নম্বর পন্টুনের কাছে সুরভি-৭ লঞ্চের ধাক্কায় তাদের নৌকাটি ডুবে যায়। এ সময় লঞ্চের প্রপেলারের আঘাতে শাহজালালের দুই পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। নৌ পুলিশের টহলদল তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। বর্তমানে তিনি জাতীয় অর্থোপেডিকস ও পুর্নবাসন (পঙ্গু হাসপাতাল) কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন। তার পরিবারের চারজন সদস্য এখনও নিখোঁজ।

বিআইডব্লিউটিএর ঢাকা নৌবন্দরের যুগ্ম পরিচালক এ কে এম আরিফ উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, ওই নৌকার যাত্রীরা ঝুঁকি নিয়ে চলন্ত লঞ্চের পেছন দিক দিয়ে ওঠার চেষ্টা করেছিলেন। এ সময় লঞ্চ পেছন দিকে যেতে থাকায় প্রপেলারের ঢেউয়ের ধাক্কায় নৌকাটি ডুবে যায়। নৌকাটিতে আট আরোহী ছিলেন। তাদের মধ্যে কেবল মাঝি সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হন।
সুত্র-সমকাল

© 2018 জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

error: ভাই, কপি করা বন্ধ আছে।