সিলেটে কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন ১৪২ কয়েদি

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক:: সিলেট কারাগার থেকে আরো ৬৯ জন কয়েদি সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মুক্তি পেয়েছেন। কাল ও আজ মিলিয়ে ১৪২ জন মুক্তি পেলেন। এদের ৩৬ জন মামলা থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন। বাকিরা জামিনে মুক্ত। এরা লঘু অপরাধে কারাভোগ করছিলেন। রবিবার বিকেলে তাদেরকে আদালত থেকে জামিন দেয়া হয়।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার আব্দুল জলিল জানান, লঘু অপরাধে অভিযুক্ত ১৪২ জন আসামি রবিবার বিকেলে আদালত থেকে জামিন পান। এদের কেউ কেউ মামলা থেকেও অব্যাহতি পান। এরপর তাদেরকে কারাগার থেকে মুক্তি দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়। রবিবার রাতে ৭৩ কয়েদিকে মুক্তি দেয়া হয়েছে। বাকি ৬৯ জনকে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মুক্তি দেয়া হয়।

জানা যায়, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি বিশেষ মানবিক উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। তাঁর উদ্যোগ অনুসারে, যারা ছোটখাটো তথা লঘু অপরাধ করে কারাগারে আছেন, তারা যদি দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চান ও ভালো পথে চলার অঙ্গিকার করেন, তবে মানবিক দিক বিবেচনা করে তাদেরকে যথাযথ আইনি প্রক্রিয়ায় মুক্তি দেয়ার বিষয়টি বিবেচনা করা যেতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্যোগের প্রথম বাস্তবায়ন ঘটলো সিলেটে।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার সূত্রে জানা যায়, লঘু অপরাধে অভিযুক্ত বিভিন্ন মামলার ১৪২ জন আসামিকে রবিবার সিলেট মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত, সিলেট জেলা দায়রা জজ আদালতসহ বিভিন্ন আদালতে হাজির করা হয়। এসব আসামি মেট্রো আইনে, চুরি, ছিনতাই, পতিতাবৃত্তি প্রভৃতি অপরাধে অভিযুক্ত ছিলেন। আদালতে এসব আসামি নিজেদের দোষ স্বীকার করেন। তারা ভবিষ্যতে সঠিক পথে চলার অঙ্গিকার করেন। আদালত মানবিক দিক বিবেচনা করে সকল আসামির জামিন মঞ্জুর করেন। কিছু আসামির সাজার মেয়াদ পেরিয়ে যাওয়ায় তাদেরকে মামলা থেকে অব্যাহতি প্রদান করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগের বাস্তবায়ন হিসেবে এসব কয়েদির মুক্তি পাওয়ার আগে সিলেট কারাগার পরিদর্শন করেন স্বরাষ্ট্রসচিব (সুরক্ষা ও সেবা) ফরিদ উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী ও আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার আব্দুল জলিল  বলেন, ‘এই ১৪২ আসামি আদালতে আত্মপক্ষ সমর্থন করলে আদালত তাদেরকে জামিন প্রদান করেন। অনেকে মামলা থেকেও অব্যাহতি পেয়েছেন। দেশে এই প্রথম কোন কারাগারের এতোজন আসামি একসাথে জামিন লাভ করলেন।’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» জগন্নাথপুরে গেল বছরের তুলনায় এবার পিআইসি কম

» ‘আমি ধর্ষণ মামলার মূলহোতা,গুলিবিদ্ধ লাশের গলায় চিরকুট

» সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশী নিহত

» কলম্বিয়ায় গাড়ীবোমা হামলায় নিহত ১০

» সিলেট জেলা আইনজীবি সমিতির নির্বাচন: সভাপতি জামিল, সম্পাদক হোসেন

» মায়ের লাশ সাইকেলে নিয়ে করব দিতে গেলেন ছেলে

» স্থগিত করা হয়েছে শনিবারের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন

» সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি, আহবান অর্থমন্ত্রী, সদস্য পরিকল্পনামন্ত্রী

» জগন্নাথপুরে শুক্র ও শনিবার বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ থাকবে

» জগন্নাথপুরে মৎস্যজীবি লীগের সম্পাদেক পরলোক গমন, পরিকল্পমন্ত্রীসহ আ.লীগের শোক প্রকাশ

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

সিলেটে কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন ১৪২ কয়েদি

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক:: সিলেট কারাগার থেকে আরো ৬৯ জন কয়েদি সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মুক্তি পেয়েছেন। কাল ও আজ মিলিয়ে ১৪২ জন মুক্তি পেলেন। এদের ৩৬ জন মামলা থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন। বাকিরা জামিনে মুক্ত। এরা লঘু অপরাধে কারাভোগ করছিলেন। রবিবার বিকেলে তাদেরকে আদালত থেকে জামিন দেয়া হয়।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার আব্দুল জলিল জানান, লঘু অপরাধে অভিযুক্ত ১৪২ জন আসামি রবিবার বিকেলে আদালত থেকে জামিন পান। এদের কেউ কেউ মামলা থেকেও অব্যাহতি পান। এরপর তাদেরকে কারাগার থেকে মুক্তি দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়। রবিবার রাতে ৭৩ কয়েদিকে মুক্তি দেয়া হয়েছে। বাকি ৬৯ জনকে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মুক্তি দেয়া হয়।

জানা যায়, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি বিশেষ মানবিক উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। তাঁর উদ্যোগ অনুসারে, যারা ছোটখাটো তথা লঘু অপরাধ করে কারাগারে আছেন, তারা যদি দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চান ও ভালো পথে চলার অঙ্গিকার করেন, তবে মানবিক দিক বিবেচনা করে তাদেরকে যথাযথ আইনি প্রক্রিয়ায় মুক্তি দেয়ার বিষয়টি বিবেচনা করা যেতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্যোগের প্রথম বাস্তবায়ন ঘটলো সিলেটে।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার সূত্রে জানা যায়, লঘু অপরাধে অভিযুক্ত বিভিন্ন মামলার ১৪২ জন আসামিকে রবিবার সিলেট মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত, সিলেট জেলা দায়রা জজ আদালতসহ বিভিন্ন আদালতে হাজির করা হয়। এসব আসামি মেট্রো আইনে, চুরি, ছিনতাই, পতিতাবৃত্তি প্রভৃতি অপরাধে অভিযুক্ত ছিলেন। আদালতে এসব আসামি নিজেদের দোষ স্বীকার করেন। তারা ভবিষ্যতে সঠিক পথে চলার অঙ্গিকার করেন। আদালত মানবিক দিক বিবেচনা করে সকল আসামির জামিন মঞ্জুর করেন। কিছু আসামির সাজার মেয়াদ পেরিয়ে যাওয়ায় তাদেরকে মামলা থেকে অব্যাহতি প্রদান করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগের বাস্তবায়ন হিসেবে এসব কয়েদির মুক্তি পাওয়ার আগে সিলেট কারাগার পরিদর্শন করেন স্বরাষ্ট্রসচিব (সুরক্ষা ও সেবা) ফরিদ উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী ও আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার আব্দুল জলিল  বলেন, ‘এই ১৪২ আসামি আদালতে আত্মপক্ষ সমর্থন করলে আদালত তাদেরকে জামিন প্রদান করেন। অনেকে মামলা থেকেও অব্যাহতি পেয়েছেন। দেশে এই প্রথম কোন কারাগারের এতোজন আসামি একসাথে জামিন লাভ করলেন।’

© 2018 জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

error: ভাই, কপি করা বন্ধ আছে।