রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাস্টের রিসোর্স সেন্টারের কাজ পরিদর্শনে ট্রাস্টের প্রতিনিধিদল জগন্নাথপুরে একদিনে ১১ জন ডাক্তারের যোগদান জগন্নাথপুরে বেড়িবাঁধের ৩০ প্রকল্প অনুমোদন কাল কাজ শুরু হতে পারে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসে জগন্নাথপুরে প্রশাসনের উদ্যোগে শ্রদ্ধা নিবেদন ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে আ.লীগের উদ‌্যোগে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসে আলোচনাসভা ও শ্রদ্ধা নিবেদন দিরাইয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন মুসলিমবিদ্বেষী আইনের বিরুদ্ধে ভারতজুড়ে বিক্ষোভ আমি স্বাধীনতা বিরুধী পরিবারের সন্তান নই- চেয়ারম্যান আব্দুল হাশিম জগন্নাথপুরে বাংলা মিরর সম্পাদক আব্দুল করিম গনি সংবর্ধিত জগন্নাথপুরে তিনদিন ব্যাপি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন

সুনামগঞ্জের হালুয়ার ঘাট থেকে মঙ্গঁলকাঠা রাস্তার বেহাল অবস্থায় জনজীবন বিপর্যস্ত

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ৮ মার্চ, ২০১৬
  • ১৩৯ Time View

মাছুম আহমদ ঃ সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের হালুয়ার ঘাঠ হতে মঙ্গলকাটা রাস্তার বেহাল অবস্থায় দিন দিন বেড়ে চলেছে জনদূর্ভোগ। এই রাস্তার উপর দিয়ে এলাকার লোকজন আসা যাওয়া এবং যে কোন যানবাহন চলাচল করতে মারাত্মক সংকটময় হয়ে পড়েছে। এলাকার সাধারন জনগণ রাস্তার উপর দিয়ে চলাফেরা করতে ভয় পান। জরুরী কোন প্রয়োজনে গর্ভবতী মহিলাদেরকে জেলা সদর হাসপাতালে নেয়ার প্রয়োজন হলে যানবাহনের পরিবর্তে কাঁধে ভর করে বিকল্প ব্যাবস্থায় রাস্তায় চলাচল করতে হয়। গর্ভবতী মহিলাদেরকে বিশেষ প্রয়োজনে যানবাহনে করে স্থানান্তর করার প্রয়োজন হলে মা সহ পেটের সন্তান মারা যাওযার সম্ভাবনা থাকে ৯৯%। সদর উপজেলার রঙ্গারচর জাহাঙ্গীর নগর ও সুরমা ইউনিয়নের বিশাল জনগোষ্ঠীর একমাত্র চলাচলের রাস্তা এটি। এ ছাড়া বিকল্প কোন রাস্তা নেই তাদের। আরও বড় কথা হল যে কোন রোগী নিয়ে এই রাস্তায় দিয়েই চলাচল করতে হয় বাধ্য হয়ে। তখন সামান্য রোগীও রাস্তার বেহাল অবস্থার জন্য অসামান্য রোগী হয়ে যায়। মটর সাইকেল ড্রাইভার মোঃ কামাল হোসেন চৌধুরী ও মোঃ রহমত আলী কে এ সর্ম্পকে জিজ্ঞাসাবাদে তারা বলেন, এই ভাঙ্গা রাস্তার উপর দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে গত কয়েক দিন আগে আশাউড়া গ্রামের এক যক্ষা রোগী বাড়ী থেকে জেলা সদর হাসপাতালে আসার পথে ভাঙ্গা রাস্তার ঝাকুনিতে তার নাক এবং মুখ দিয়ে রক্তক্ষরন হয়। মুর্মূষ অবস্থায় সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা সেখান থেকে তাকে সিলেটস্থ এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। আরেকজন মটর সাইকেল চালক বলেন,আমরা এমন সংকটময় অবস্থায় ভাঙ্গা রাস্তায় মটর সাইকেল চালাই যে আমাদের মনের মধ্যে সব সময় ভয় থাকে যে কখন কি হয়। একের পর এক দূর্ঘটনায় এলাকার জনজীবন দূর্বিসহ হয়ে উঠেছে। বেরী গাও এর এক লোক কে এই রাস্তা সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদে তিনি বলেন, আমার সামনে একজন লোক রাস্তা ভাঙ্গার কারনে মটর সাইকেল ঝাকুনিতে,যাওয়ার পথে র্হাট স্ট্রোক করে মারা যায়। যদি এমন হয় তাহলে আমরা এলাকাবাসী কোথায় গিয়ে বসবাস করবো। জানা যায়,২০০১ সালে বিএনপির শাসনামলে জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ এডভোকেট ফজলুল হক আছপিয়া এই রাস্তাটি পাকা রাস্তায় উন্নীত করেন। মহাজোট সরকারের আমলে সাবেক এমপি মতিউর রহমানের তত্বাবধানে রাস্তাটি একবার আংশিক মেরামত করা হলেও গত ৪ বছর ধরে ভাঙ্গা অবস্থায় মুখ থুবড়ে পড়ে রয়েছে রাস্তাটি। সুরমা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়্যাম্যান মোঃ আঃ সাত্তার রাস্তার কাজ হবে হবে বলে জনগনকে আশ্বাস দিলেও এ পর্যন্ত কাজের কাজ বলতে কিছুই হয়নি। এলাকাবাসী রাস্তাটি দ্রুত সংস্কারের জন্য সরকারের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24