শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:৪৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে আমনের বাম্পার ফলন হলেও, ন্যায্য দাম নিয়ে সংশয়ে কৃষকরা জগন্নাথপুরে আনন্দ হত্যাকাণ্ডের রহস্য অজানা, নেই গ্রেফতার খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কাল সারাদেশে বিএনপির বিক্ষোভ সুস্থতা আল্লাহ পাকের নেয়ামত একটি নৃশংস হত্যাকাণ্ড নাড়িয়ে দিল জগন্নাথপুরবাসীকে, ক্রাইম সিন ইউনিটের ঘটনাস্থল পরিদর্শন অফিসার্স ক্লাব থেকে রানীগঞ্জের তহশীলদারসহ ৪ জুয়াড়ি গ্রেফতার আজানের মর্মবানী জগন্নাথপুরে ২২তম ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন সম্পন্ন জগন্নাথপুরে সেই সড়কে ২৩ কোটি টাকার টেন্ডার সম্পন্ন, নতুন বছরের শুরুতেই কাজ শুরু হতে পারে জগন্নাথপুরে ১৫ দিন পর অবশেষে ধান কেনা শুরু

হাওর দুর্নীতি: ঠিকাদারের স্বাক্ষর জাল করে ৫৩ লাখ টাকা বিল উত্তোলন

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
  • ১২৭ Time View

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জের বোরো ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণের দুর্নীতির চাঞ্চল্যকর নতুন তথ্য বেরিয়ে এসেছে। প্রকৃত ঠিকাদারের স্বাক্ষর ও কাগজপত্র জাল করে সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড কার্যালয় থেকে তিনটি বাঁধের কাজের বিল উত্তোলনের অভিযোগে মামলা হয়েছে। এই ঘটনার প্রতিকার চেয়ে খুলনা শহরের গগনবাবু রোড (২য় গলি) ১৮/ক এর মেসার্স আমিন এন্ড কোম্পানীর স্বত্তাধিকারী মো. রুহুল আমিন ৪ জনের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়ের করেছেন।
মঙ্গলবার সুনামগঞ্জ সদর আমলগ্রহণকারী জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপক খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মিউনিসিপাল ট্যান্ট রোডের ১০ নম্বর বাড়ির বাসিন্দা কাজী মাজহারুল ইসলাম এই মামলা দায়ের করেন।
প্রতারণায় অভিযুক্ত করা হয়েছে, সিলেট শহরের কাজল শাহ ৮৫ এর বাসিন্দা রূপক দাস, সিলেট সোবহানীঘাট ১০৪ এর মেসার্স তানহা এন্ড তাসনীন এন্টারপ্রাইজের স্বত্তাধিকারী, ১৯১৬৭২২১৯৮২৪৮ নম্বর জাতীয় পরিপত্রের অধিকারী মৃত. আনোয়ার হোসেনের ছেলে আবুল হোসেন ও অজ্ঞাত ঠিকাদার আবু বকরকে।
আদালত মামলাটি গ্রহণ করে নিয়মিত মামলা রুজুর জন্য সুনামগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্যকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বাদীর আইনজীবী জুয়েল মিয়া।
আদালত ও পাউবো সূত্রে জানা যায়, গত ৩১ আগস্ট ও ১০ সেপ্টেম্বর তারিখের পৃথক তিনটি স্মারকে মেসার্স আমিন এন্ড কোম্পানী’এর স্বত্তাধিকারী মো. রুহুল আমিন সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যলয় থেকে নোটিশ পান। ঐ নোটিশ মারফত তিনি জানতে পান ‘সুনামগঞ্জ জেলার হাওর এলাকার আগাম বন্যা প্রতিরোধ ও নিষ্কাশন’ প্রকল্পের আওতায় তার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে সুনামহাওর/১৫-১৬/৫১-বরাদ্দ সাড়ে ৩২
লাখ টাকা, সুনামহাওর/১৫-১৬/৫২- বরাদ্দ ৩৯ লাখ ৯৪ হাজার টাকা, সুনাম হাওর/১৫-১৬/৮৬-বরাদ্দ ৪২ লাখ ৩১ হাজার টাকায় তিন প্যাকেজের কার্যাদেশ প্রদান করা হয়েছে। ঐ কার্যাদেশের অধীনে তার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কাজ সমাপ্ত না করার প্রেক্ষিতে তার বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হইবে না, নোটির প্রাপ্তির ২৮ দিনের মধ্যে জবাব চেয়েছে পাউবো।
সুনামগঞ্জ পাউবো সূত্রে জানা গেছে, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স আমিন এন্ড কোম্পানীর অনুকূলে সুনামহাওর/১৫-১৬/৫১ নং প্যাকেজের সাড়ে ৩২ লাখ টাকার মধ্যে ১০ লাখ ২৯ হাজার, সুনামহাওর/১৫-১৬/৫২ নং প্যাকেজের ৩৯ লাখ ৯৪ হাজার টাকার মধ্যে ২১ লাখ ৪২ হাজার ও সুনাম হাওর/১৫-১৬/৮৬-নং প্যাকেজের ৪২ লাখ ৩১ হাজার টাকার মধ্যে ২২ লাখ ৪ হাজার টাকা ছাড় হয়েছে। গত ২ জুলাই ঐ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের প্রোপ্রাইটারকে হাওরের বোরো ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণ অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে দুদকের মামলার আসামী করা হয়েছে (আসামী নম্বর ২৭)।
মামলায় উল্লেখ করা হয়, মেসার্স আমিন এন্ড কোম্পানী’ এর স্বত্তাধিকারী মো. রুহুল আমিন ঐ তিনটি প্যাকেজের কার্যাদেশের জন্য দরপত্রে অংশগ্রহণ করেন নি বা কোন দরখাস্ত করেন নি। পাউবোর অফিসে যাননি এবং কোন ধরনের চুক্তিও করেননি।
ঠিকাদার মো. রুহুল আমিন গত ১২ সেপ্টেম্বর সুনামগঞ্জ পাউবো অফিসে যোগাযোগ করে জানতে পারেন, ঐ চার আসামী পরস্পর যোজসাজশে তার স্বাক্ষর জাল করে এবং অজ্ঞাতনামা একজন নিজেকে রুহুল আমিন দাবি করে ২০১৫ সালের ১৭ ডিসেম্বর পাউবোর সাথে চুক্তিপত্র করে। ১ ও ২ নম্বর আসামী ঐ চুক্তিপত্রে স্বাক্ষী হয়। আর্থিক লেনদেন করার জন্য ঢাকা ব্যাংক লি.এর সিলেট শহরের লালদিঘি শাখায় ১৫১১০০১২৩৬৫ নম্বর একাউন্ট খোলেন।
ঠিকাদার রুহুল আমিন ব্যাংকে যোগাযোগ করে জানতে পারেন, ভুয়া ছবি ব্যবহার করে তার নামে ব্যাংকে একাউন্ট খোলা হয়। ঐ একাউন্টে ৩ নং আসামীকে নমিনী করা হয় এবং ঐ একাউন্টের মাধ্যমে পাউবোর দেয়া চেকে বাঁধের কাজের টাকা উত্তোলন করে নিয়ে যাওয়া হয়।
সুনামগঞ্জ পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বকর সিদ্দিকি বলেন,‘ঐ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কাজ সঠিকভাবে বাস্তবায়ন না করায় চিঠির মাধ্যমে জবাব চাওয়া হয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের অনুকুলে তিনটি প্যাকেজে ৫৩ লাখ সাড়ে ৭৫ হাজার টাকা ছাড় দেয়া হয়েছে। ওই প্রতিষ্ঠানের ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে দুদক মামলা দায়ের করেছে। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24