রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৮:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে প্রবাসি সংগঠনের উদ্যেগে দরিদ্র মানুষের মধ‌্যে ত্রাণ বিতরণ দিরাইয়ে সংঘর্ষ, গুলিতে নিহত ১, গুলিবিদ্ধসহ আহত ২০ ফ্রান্স আওয়ামী লীগের উদ্যাগে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস পালিত ভারতীয় মুসলিমদের পাশে থাকার আহবান ভারত থেকে ৯ পণ্য আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার বাংলাদেশের সমাজ মেরামতের দায়িত্ব আলেমদের জগন্নাথপুরে ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাস্টের রিসোর্স সেন্টারের কাজ পরিদর্শনে ট্রাস্টের প্রতিনিধিদল জগন্নাথপুরে একদিনে ১১ জন ডাক্তারের যোগদান জগন্নাথপুরে বেড়িবাঁধের ৩০ প্রকল্প অনুমোদন কাল কাজ শুরু হতে পারে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসে জগন্নাথপুরে প্রশাসনের উদ্যোগে শ্রদ্ধা নিবেদন ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত

৪৮ হাওরের মধ্যে ১ টিতে বাঁধের কাজ শুরু

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ৭ জানুয়ারী, ২০১৮
  • ৯১ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি
নানা জটিলতায় ‘ফাইল ওয়ার্ক’ বিলম্বিত হওয়ায় জগন্নাথপুর উপজেলা ছাড়া সুনামগঞ্জের কোথাও হাওররক্ষা বাঁধের কাজ শুরু হয় নি। শনিবার জগন্নাথপুরের নলুয়ার হাওররক্ষা বাঁধের কাজ শুরু’র মধ্য দিয়ে ঐ উপজেলায় বাঁধের কাজের উদ্বোধন করেছেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি। অন্য উপেজলার হাওররক্ষা বাঁধের স্কীম প্রস্তুত ও বাস্তবায়নের লক্ষ্যে গঠিত উপজেলা কমিটির আহ্বায়কদের কেউ বলেছেন,‘ছাড়ের অর্থ কমিটির হিসাবে জমা হয় নি, কাজের মূল্য নির্ধারণ হয়নি, আবার কেউ বলেছেন, সার্ভে সম্পন্ন না হওয়ায় কাজ শুরু করা যাচ্ছে না।’ ঘোষণা ও নীতিমালা অনুযায়ী ১৫ ডিসেম্বর থেকে সুনামগঞ্জের হাওররক্ষা বাঁধ শুরু হবার কথা থাকলেও একেক সময়, একেক জটিলতায় বাঁধের কাজ শুরু করতে বিলম্ব হচ্ছে।
সুনামগঞ্জের ৪৮ টি বৃহৎ হাওর, কুশিয়ারা নদীর বাম ও ডান তীর, চলতি নদীর বাম ও ডান তীর এবং খাসিয়ামারা নদীর ডান ও বাম তীরে বাঁধের কাজের জন্য এবার উন্নয়ন ও অনুন্নয়ন খাত মিলিয়ে সর্বমোট বরাদ্দ পাওয়া গেছে ১০০ কোটি ৬ লাখ টাকা। বরাদ্দের অর্থ ছাড়ের সর্বশেষ চিঠি এসেছে শুক্রবার সন্ধ্যায়। শনিবার দুপুরে জগন্নাথপুর উপজেলার নলুয়ার হাওরে বাঁধের কাজের উদ্বোধন করেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার আঙ্গুরালি, পুটিয়া ও শনির হাওরে, তাহিরপুরের শনির হাওরের উত্তরাংশ, মাটিয়ানের বর্ধিতাংশ এবং যাদুকাটা নদীর ডান পাড়ে, ধর্মপাশার সোনামড়লের পূর্বদিকে, ঘোড়াডোবার দক্ষিণাংশে, কাইলানির উত্তর-পূর্বাংশে, টঙ্গীর বাঁধে, জামালগঞ্জের হালির হাওর ও পাগনার হাওরে, দিরাই উপজেলার চাপতির হাওর, বরাম হাওরের তুফানখালি বাঁধ, টাংনি ও হুরামন্দির হাওরে, দক্ষিণ সুনামগঞ্জের জামখলা,
সাংহাইর ও খাই হাওরের দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে, দোয়ারাবাজারের নাইন্দার হাওর ও দেখার হাওর, সদর উপজেলার দেখার হাওর, করচার হাওর, কাংলার হাওর, জোয়ালভাঙা, ডাকুয়া, ও শিইল্লার হাওরের পানি ইতোমধ্যে নেমে গেছে। ওইসব হাওরে এখনই হাওররক্ষা বাঁধের কাজ শুরু করা সম্ভব।
পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা ছিল ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে হাওররক্ষা বাঁধের কাজ শুরু এবং ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে শেষ করা।
কিন্তু শনিবার পর্যন্ত কেবল জগন্নাথপুরের নলুয়ার হাওরক্ষা বাঁধ ছাড়া আর কোথাও কাজ শুরু হয়নি। ১৫ ডিসেম্বর থেকে একেক সময় একেক ধরণের জটিলতায় হাওররক্ষা বাঁধের ‘ফাইল ওয়ার্ক’ বিলম্বিত হয়েছে। প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি (পিআইস) গঠন, প্রকল্পের অনুমোদন, হাওরের পানি নিষ্কাশন না হওয়া, বাঁধের অর্থ ছাড়ে বিলম্বসহ নানা সমস্যায় কাজ বিলম্বিত হয়েছে।
বাঁধ নির্মাণের স্কীম প্রস্তুত ও বাস্তবায়ন কমিটি জামালগঞ্জ উপজেলার আহ্বায়ক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামিম আল ইমরান বলেন,‘বাঁধের কাজের মূল্য নির্ধারণ এখনো হয় নি, মূল্য নির্ধারণ করতে হবে, কাজের শুরুতেই পিআইসিকে ২৫ শতাংশ টাকা দিতে হবে, এজন্য বরাদ্দের টাকা উপজেলা কমিটির হিসাবে আসতে হবে, শুক্রবার কেবল অর্থ ছাড়ের চিঠি এসেছে, আমরা আশা করছি সকল কাজ শেষে সোমবারের মধ্যে কাজ শুরু করতে পারবো।’
ধর্মপাশা উপজেলা বাঁধ নির্মাণের স্কীম প্রস্তুত ও বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মামুন খন্দকার বলেন, ‘উপজেলার সকল হাওরের সার্ভে এখনো সম্পন্ন হয়নি। জয়ধুনা, ধানকুনিয়া ও খাইলানি হাওরের সার্ভে শেষ হয়েছে। মঙ্গলবার হাওররক্ষা বাঁধের কাজ শুরু করার চিন্তা করছি আমরা।’
সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বকর সিদ্দিক ভুইয়া বলেন,‘আমরা দ্রুত কাজ শুরু করার জন্য তাগাদা দিচ্ছি, মূল্য নির্ধারণ না হলেও কাজ শুরু করা সম্ভব, সার্ভে সম্পন্ন হবার পর কাজ শুরু করলেও সমস্যা নেই। কাজ শেষে চূড়ান্ত প্রাক্কলন প্রস্তুত করা যাবে। জগন্নাথপুরেও সেভাবে করা হয়েছে। এছাড়া অর্থ ছাড় যেহেতু মন্ত্রণালয় করেছে, সেহেতু ১-২ দিন বিলম্ব হলেও উপজেলা কমিটির হিসাবে অর্থ যাবে, এ কারণেও কাজ বিলম্বিত করার কিছু নাই।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24