1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন

জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জ সড়কে ভেঙে পড়লো নির্মাণাধীন একটি সেতুর গার্ডার

  • Update Time : সোমবার, ১ মার্চ, ২০২১
  • ৮৫৩ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি::
পাগলা জগন্নাথপুর আউশকান্দি আঞ্চলিক মহাসড়কের জগন্নাথপু- সুনামগঞ্জ সড়ক অংশে একটি সেতু নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার আগেই ধসে পড়েছে। গতকাল রোববার রাতে সেতুটির ৫ টি গ্রার্ডার ধসে পড়ার ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসী নিম্মমানের কাজ হওয়ায় সেতু ধসে পড়ার অভিযোগ করছেন। অপরদিকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ও সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর দূর্ঘটনা জনিত কারনে সেতু ধসে পড়ার কথা বলছে। আজ সোমবার সকাল থেকে ধসে যাওয়া সেতু দেখতে লোকজন ভীড় করছেন।

সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, সড়কের পাগলা পয়েন্ট থেকে জগন্নাথপুর উপজেলা অংশে একশত কোটি ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে সাতটি পিসি গার্ডার সেতু নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করছে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর।এমএম বিল্ডার্স নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সেতুগুলোর কাজ করছে। সড়কের কোন্দানালা নামক স্হানে নির্মিত সেতুর দৈর্ঘ্য ৫০.১২মিটার ও প্রস্ত ১০.২৫ মিটার। গত এক বছর ধরে সেতুর নির্মাণ কাজ চলছিল। আগামী ডিসেম্বরে সেতুর কাজ শেষ হওয়ার কথা। সরেজমিনে দেখা যায়, সেতুটির ৫ টি গার্ডার ধসে মাটির সাথে মিশে গেছে। কৌতুহলী লোকজন ধসে পড়া সেতু দেখে নানা মন্তব্য করছেন।
ঘটনাস্হলে কথা হয় দরগাপাশা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রওশন খান সাগরের সঙ্গে। তিনি  জানান, নিম্নমানের কাজের কারণে সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার আগেই ধসে পড়েছে। তিনি বলেন, এ সড়কটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক। সুনামগঞ্জ-ঢাকা আঞ্চলিক মহাসড়ক। একটি সেতু এভাবে ধসে যাওয়ায় একই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের আরো সাতটি সেতুর কাজ নিয়ে আমরা চিন্তিত।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এমএমবিল্ডার্সের প্রকল্প ব্যবস্থাপক হারুনুর রশীদ বলেন, হাইডোলিক জেকের মাধ্যমে গার্ডার বসানোর সময় হাইড্রোলিক জ্যাকের পাইপ ফেটে যাওয়ায় জ্যাকটি ফেল করে, যার ফলে গার্ডার পড়ে যায়। তিনি বলেন, একটি গার্ডার থেকে আরেকটি গার্ডারের দূরত্ব ২ মিটার।যে কারণে একটির ধাক্কায় আরেকটি এভাবে ৫ টি গার্ডার পড়ে যায়। তিনি কাজে কোন অনিয়ম হয়নি বলে দাবি করেন। এতে তাদের ৬০ থেকে ৭০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হবে বলে তিনি দাবি করেন। কাজ তদারকির দায়িত্বে থাকা সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের উপ সহকারী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সেতুটির প্রায় ৭০ ভাগ কাজ শেষ হয়ে
গিয়েছিল। হঠাৎ করে একটি দূর্ঘটনা সেতুটি ধসে পড়ে। তিনি বলেন, কাজে কোন অনিয়ম হয়নি। এটি নিছক দূর্ঘটনা। তার মতে একটি গার্ডারের ওজন ১৬০ টন ফলে
গার্ডারটি বসানোর সময় হাইডোলিক জেকের পাইপ ফেটে যাওয়ায় ৫ টি গার্ডার ধসে পড়ে।
সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম বলেন, এটি আসলে দূর্ঘটনা। অনিয়মের কোন সুযোগ নেই। এছাড়াও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কে এ কাজের জন্য কোন বিল পরিশোধ করা হয়নি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১
Design & Developed By ThemesBazar.Com
%d bloggers like this: