শনিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২০, ০৯:২৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরের সৈয়দপুরে প্রবাসির অর্থায়নে শহীদ মিনার নির্মাণ জগন্নাথপুরের বিএন হাইস্কুলের শতবর্ষ উৎসবে-পরিকল্পনামন্ত্রী, বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা কেউ থামাতে পারবে না দেশের সকল প্রতিষ্ঠানে বিশ্বমানের শিক্ষা দেওয়া হচ্ছে:পানিসম্পদ উপমন্ত্রী জগন্নাথপুরে বিএন উচ্চ বিদ্যালয়ে শতবর্ষ উৎসব আজ ক্ষোভের পর আনন্দে ভাসছে ইউনিয়নবাসি জগন্নাথপুরে শতবর্ষ অনুষ্ঠানে যারা থাকছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান জগন্নাথপুরে শনিবার আসছেন জগন্নাথপুরে বেপরোয়া অটোরিকশার চাপায় প্রাণ গেল শিশুর সিলেটে প্রভূপাদ বিশ্বরূপ গোস্বামীর দীক্ষা প্রদান ও ভাগবতীয় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ইরাকের বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্র বিরোধী বিক্ষোভে জনসমুদ্র জগন্নাথপুরের সেই সেতুর সংযোগ সড়কের কাজে অনিয়মের অভিযোগ

ওসির বিরুদ্ধে ৫ লাখ টাকা ঘুষ দাবী’র অভিয়োগ আ.লীগ প্রার্থীর

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ, ২০১৯
  • ১৩০ Time View

স্টাফ রিপোর্টার
জামালগঞ্জ থানার ওসি’র বিরুদ্ধে ৫ লাখ টাকা ঘুষ দাবি’র অভিযোগ করেছেন স্থগিত হওয়া জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা ইউসুফ আল আজাদ। গত ১২ মার্চ নির্বাচন কমিশনে তিনি এই অভিযোগ দায়ের করেন। সোমবার বিকালে কমিশনের নির্দেশে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শরিফুল ইসলাম এই অভিযোগের তদন্ত করতে দুই পক্ষের বক্তব্য শুনেন।
জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণের তারিখ ছিল ১০ মার্চ। কিন্তু ৮ মার্চ নির্বাচন কমিশন থেকে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তাকে চিঠি দিয়ে জানানো হয়, ‘এই উপজেলায় সুষ্ঠু ও আইনানুগ প্রক্রিয়ায় ভোট গ্রহণ সম্ভব নয়। একারণে এই উপজেলার নির্বাচন অনুষ্ঠান স্থগিত করা হলো।’
এরপর ১২ মার্চ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী ইউসুফ আল আজাদ নির্বাচন কমিশনে আবেদন করেন, জামালগঞ্জ থানার ওসি আবুল হাসেম তাঁর কাছে ৫ লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেছেন।‘
আবেদনে ইউসুফ আল আজাদ উল্লেখ করেন গত ৮ মার্চ দিনে জামালগঞ্জ থানার ওসি আবুল হাসেম স্থানীয় এক ব্যক্তির মাধ্যমে তাঁকে থানায় দেখা করতে বলেন। ৮ মার্চ রাতে কমিশন নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করলেও ৯ মার্চ সকালে তিনি থানার ওসি আবুল হাসেম’র সঙ্গে দেখা করেন। আবুল হাসেম তাকে বলেন, ‘নির্বাচন আজ বা কাল হবেই, আপনি আমাদেরকে ৫ লাখ টাকা দেন। আপনার উপকার হবে।’
জামালগঞ্জ থানার ওসি আবুল হাসেম অভিযোগের ব্যাপারে বললেন,‘ইউসুফ আল আজাদ আবেদনে উল্লেখ করেছেন, তিনি একজন অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা। এই দাবি সঠিক। তিনি আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী। তফসিল ঘোষণার পর থেকে সোমবার (১৮ মার্চ পর্যন্ত) পর্যন্ত তাঁর (ইউসুফ আল আজাদ) সঙ্গে আমার দেখা হয়নি। তাঁর কাছে আমি টাকা চেয়েছি এটি বিশ্বাসযোগ্য নয়। তিনি যেভাবে নির্বাচন চাচ্ছেন, আমি সেভাবে রাজি হইনি বলেই এই মিথ্যা অভিযোগ।’
রিটার্নিং কর্মকর্তা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. শরিফুল ইসলাম বলেন,‘কমিশনের নির্দেশে ইউসুফ আল আজাদ ও জামালগঞ্জ থানার ওসিকে অভিযোগের বিষয়ে জানার জন্য সোমবার বিকাল সাড়ে ৩ টায় ডাকা হয়েছিল। ইউসুফ আল আজাদ দুপুর দেড় টায় এসে তাঁর লিখিত বক্তব্য দিয়ে চলে গেছেন। তবে কোন স্বাক্ষ্য প্রমাণাদি হাজির করতে পারেন নি তিনি। আগামী কাল আবার অভিযোগকারীকে তথ্য প্রমাণ বা স্বাক্ষী থাকলে নিয়ে আসার জন্য বলবো। এরপর বিকালেই তদন্ত রিপোর্ট নির্বাচন কমিশনে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24