শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ০৭:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু জগন্নাথপুরে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামুলক সভা অনুষ্ঠিত ২১ আগস্টের মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে আপিল করা হবে: ওবায়দুল কাদের ধর্মীয় শিক্ষার প্রয়োজন চিরদিন ৭১’র বয়স ৫ মাস,তবুও মানবতাবিরোধী অপরাধে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা,প্রত্যাহারের দাবী ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ জগন্নাথপুরের টমটম চালকের হত্যাকাণ্ড উন্মোচিত,ঘাতকের স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান জগন্নাথপুরে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় জন্মাষ্টমী উদযাপন জগন্নাথপুরে সরকারি গাছ কাটায় সেই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ভারত-পাকিস্তান গুলি বিনিময়

জগন্নাথপুরে ডাকাত আতঙ্কে পুলিশকে ডাকাত মনে করে গ্রামবাসীর হামলা

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬
  • ২০ Time View

বিশেষ প্রতিবেদক:: জগন্নাথপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ডাকাত-আতঙ্কে ভুগছে মানুষ। স্থানীয় লোকজন রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন। আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে সম্প্রতি স্থানীয় লোকজন ডাকাত মনে করে পুলিশের ওপর হামলা চালায়।
পুলিশ, জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ, কলকলিয়া ও চিলউড়া হলদিপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ডাকাত-আতঙ্ক বেশি। চলতি মাসে রানীগঞ্জ ইউনিয়নে দুই প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। চুরির ঘটনাও বেড়েছে।
গত ৬ জানুয়ারি রাতে রানীগঞ্জ ইউনিয়নের বাঘময়না গ্রামে প্রবাসী মনর উদ্দিনের বাড়িতে ডাকাতি হয়। ডাকাতেরা পরিবারের লোকজনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ ২ লাখ টাকা ও ২৫ ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়। এর দুই দিন আগে এই ইউনিয়নের গন্ধর্বপুর গ্রামের আরেক প্রবাসী কানু মিয়ার বাড়িতে একইভাবে ডাকাতি হয়। এই দুই ঘটনার পর পুলিশ ওই ইউনিয়নের লোকজনকে নিয়ে এলাকায় বৈঠক করে গ্রামে গ্রামে পাহারা দেওয়ার ব্যবস্থা নিতে পরামর্শ দিয়েছে।
পুলিশ গত বুধবার রাতে কলকলি ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামে একটি মামলার আসামি ধরতে গেলে পাহারারত গ্রামবাসী তাদের ডাকাত মনে করে। মসজিদে মাইকিংয় হলে লোকজন জড়ো হয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফাঁকা গুলি ছোড়ে। পরে এ ঘটনায় থানায় মামলা করে পুলিশ।
৮ জানুয়ারি উপজেলা আইনশৃঙ্খলা-বিষয়ক কমিটির সভায় ডাকাতির বিষয়টি তুলে ধরেন রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মজলুল হক। তিনি বলেন, জগন্নাথপুর প্রবাসী-অধ্যুষিত এলাকা। প্রবাসীদের বাড়িতেই চুরি-ডাকাতির ঘটনা বেশি ঘটে। মানুষ ডাকাত-আতঙ্কে আছে। পুলিশের তৎপরতা আরও বাড়ানো দরকার।
রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মুক্তার মিয়া বলেন, চুরি-ডাকাতির ঘটনায় উদ্বিগ্ন এলাকাবাসীকে নিয়ে তাঁর ওয়ার্ডে একাধিক বৈঠক করেছেন। এখন নিজ উদ্যোগেই বাঘময়না ও গন্ধর্বপুর গ্রামে রাত জেগে বাড়িঘর পাহারা দিচ্ছেন। পঞ্চায়েতের মাধ্যমে দল গঠন করে পাহারার জন্য শিগগিরই পুরো ইউনিয়নের মানুষকে নিয়ে বৈঠক করবেন তাঁরা। তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘চুরি-ডাকাতির সঙ্গে এলাকার কিছু লোক জড়িত। কিন্তু মানুষ ভয়ে তাঁদের নাম বলে না। এদের ধরলেই এসব কমে আসবে।’
জগন্নাথপুর থানার ওসি মোহাম্মদ মুরসালিন বলেন, উপজেলায় চুরি-ডাকাতি বন্ধে পুলিশের বিশেষ অভিযান চলছে। গত ১মাসে ডাকাতির মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত জগন্নাথপুর থানায় ৪২জন আসামীর মধ্যে ১৬ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশ প্রতিদিনই অভিযান চালাচ্ছে। এখন পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে।
তবে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তাদীর আহমদ বলেছেন, উপজেলা আইনশৃঙ্খলা উন্নয়ন কমিটির সভায় অনেকেই চুরি-ডাকাতি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। পুলিশের তৎপরতা বাড়লেও পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে না।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24