বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:২৩ অপরাহ্ন

জগন্নাথপুরে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনায় মামলা নেয়নি পুলিশ

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ১৫৩ Time View

স্টাফ রিপোর্টার:: জগন্নাথপুর পৌর শহরের হবিবনগরে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনায় পুলিশ ডাকাতির অভিযোগে মামলা নেয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। এ দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন মামলা কিংবা লুন্টিত মালামাল উদ্ধার না হওয়ায় ব্যবসায়ীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে সোমবার উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় হবিবনগরে ব্যবসায়ীর বাসায় ডাকাতির ঘটনা ও সাম্প্রতিককালে পৌর এলাকার মুচিবাড়ির সামনে তিনটি ছিনতাইয়ের ঘটনায় উদ্ধেগ প্রকাশ করে পুলিশকে আরো দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান জানানো হয়। ডাকাতির শিকার জগন্নাথপুর বাজারের একতা অটো রাইস মিলের মালিক ফয়েজ উল্যার ছেলে আমির উদ্দিন জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফাের ডটকমের নিকট অভিযোগ করে জানান, সোমবার ডাকাতির মামলা রের্কডের জন্য থানায় গেলে ওসি মামলা রেকর্ড না করে চুরির মামলা করার পরামর্শ দেন। তাই আমরা আর মামলা না দিয়ে চলে আসি। উল্লেখ্য পৌর এলাকার হবিবনগর এলাকার বাসিন্দা জগন্নাথপুর বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী একতা অটো রাইস মিল এর মালিক ফয়েজ উল্যাহ প্রতিদিনের মতো রাতে খাওয়া ধাওয়া শেষে পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। গভীররাতে অস্ত্রধারী ১০/১২ জনের মুখোশধারী একদল ডাকাত দুইতলা বাসার নীচতলার ঢুকে আমির উদ্দিনের ঘরে তছনছ শুরু করে। এসময় ডাকাতদল অস্ত্রেরমুখে পরিবারের সবাইকে জিন্মি করে দুই তলায় ছমির উদ্দিনের কক্ষে গিয়ে ভাংচুর ও মারধর চালায়। এসময় ছমির উদ্দিন ও তার স্ত্রী মেয়েকে মারধর করে। এবং তাদের হাত পা বেঁধে ষ্টীল আলমারির চাবি চাইলে জীবন বাঁচাতে পরিবারের লোকজন ডাকাতদের হাতে চাবি তুলে দেন। পরে ডাকাতদল দুতলার বিভিন্ন কক্ষ থেকে নগদ ১০ লাখ টাকা, ১৫ ভরি স্বর্নালংকার ৫টি মুঠোফোনসহ প্রায় ১৭ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। ডাকাতদের হামলায় আহত হয়েছেন গৃহকর্তা ফয়েজ উল্যা(৬৫) ও তার ভাই ছমির উদ্দিন(৩৭), তার স্ত্রী বাবলী আক্তার(২৬), শিশু কন্যা সুমাইয়া বেগম(৮) আমির আলী(২৭) । এর মধ্যে গুরুতর আহত ছমির উদ্দিনকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে ডাকাতির মামলা গ্রহণ না করায় পৌর শহরের ব্যবসায়ীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। এবিষয়ে জগন্নাথপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আসাদুজ্জামান জানান, ঘটনাটি ডাকাতির নয় বলে মনে হচ্ছে। তদন্ত চলছে। আমাদের কাছে কেউ কোন মামলা নিয়ে আসেনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24