বুধবার, ২২ জানুয়ারী ২০২০, ০৬:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
নেওয়ার খানের পিতার মৃত্যুতে জগন্নাথপুর বিএনপির শোক প্রকাশ জগন্নাথপুরের রানীগঞ্জ ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলন সম্পন্ন জগন্নাথপুরে ব্রিটিশ চিকিৎসক দ্বারা দুইদিন ব্যাপি ফ্রি ডেন্টাল মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে আটঘর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সম্পন্ন জগন্নাথপুরে সিদ্দিক আহমদ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বই উৎসব অনুষ্ঠিত বিশ্বনাথে শিশুদের প্রতিবন্ধী হয়ে জন্ম নেওয়া এক গ্রামের গল্প জগন্নাথপুরে দুইবছরের দণ্ডপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার জগন্নাথপুরে জুয়ার আসর থেকে ১০ জুয়াড়ি আটক জগন্নাথপুরে অস্ত্র মামলার পলাতক আসামী ডাকাত জসিম গ্রেফতার চীনের প্রাণঘাতী ভাইরাস: শাহজালালে সতর্কতা

তাহিরপুরে নারী নির্যাতনের অভিযোগ-বক্তব্য দিলেন ইউএনও ও নির্যাতিতা নারী

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২ জুলাই, ২০১৯
  • ৩০৭ Time View

তাহিরপুরের উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা মো. আসিফ ইমতিয়াজের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের শুনানী নিয়েছেন সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. হারুনুর রশিদ। সোমবার দুপুরে নিজ কক্ষে অভিযোগকারী ও অভিযুক্ত দুজনেরই শুনানী গ্রহণ করেন তিনি।
শুনানীতে নির্যাতিতা নারীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট শামছুন্নাহার বেগম শাহানা, এডিশনাল পিপি অ্যাডভোকেট সামসুল অবেদীন ও অ্যাডভোকেট হিমেল।
অভিযোগকারী নারী সাংবাদিকদের জানান, আসিফ ইমতিয়াজ’এর সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তাকে চাকুরী দেবার কথা বলে আসিফ ইমতিয়াজ ১১ লাখ ৭০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। সম্পর্কের এক পর্যায়ে কাবিননামা করে দীর্ঘদিন তারা স্বামী-স্ত্রীর মতো ঢাকা শহরের মিরপুরের একটি বাড়িতে বসবাস করেন। হঠাৎ করে তার গর্ভে সন্তান আসায় ইউএনও আসিফ তাকে সন্তান নষ্ট করার কথা বলেন। এমন প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় আসিফ বিয়ে এবং পুরো সম্পর্কের বিষয়টিই অস্বীকার করে।
পরে ওই নারী জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়ে ইউএনও’র বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। এ কারণে ইউএনও তার লোক দিয়ে তার উপর হামলা চালালে প্রচ- রক্তক্ষরণ হয়ে গর্ভের সন্তান নষ্ট হয় তার।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক প্রথমে ওই নারীর অভিযোগের তদন্তের দায়িত্ব দেন সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. এমরান হোসেনকে।
নির্যাতিতা নারী অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এমরান হোসেনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ এনে তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন করার জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়ে লিখিত আবেদন করেন।
এরপর সোমবার সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. হারুনুর রশিদ দুজনেরই শুনানী গ্রহণ করেন।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত তাহিরপুর উপজেলার ইউএনও আসিফ ইমতিয়াজ কোন কথা বলতে রাজি হননি।
অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হারুনুর রশিদ বলেন, তদন্তাধীন বিষয়ে মন্তব্য করবেন না তিনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24