সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ১০:৫৩ অপরাহ্ন

দেশব্যাপী ঘৃনার ঝড় বর্ষবরণ উৎসবে যৌন হয়রানিকারীদের এখনও ধরতে পারেনি পুলিশ

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১৯ এপ্রিল, ২০১৫
  • ১৫১ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক::বর্ষবরণ উৎসবে যৌন হয়রানির ঘটনায় দেশব্যাপী ঘৃনার ঝড় বইছে। অপরাধীদের শনাক্ত করতে না পারায় জাতি হিসেবে আমরা লজ্জিত এমন দাবী দেশের সুশীল সমাজের। যদি পুলিশ অপরাধীদের চিহ্নিত করতে কারও কাছে কোনো তথ্য থাকলে তা জানাতে বলেছে পুলিশ। তথ্যদাতার নাম-পরিচয় গোপন রাখা হবে বলেও জানানো হয়েছে।
সেদিনের ঘটনা তদন্তে পুলিশের তিন সদস্যের একটি কমিটি কাজ করছে। ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ ইব্রাহীম ফাতেমী এই কমিটির প্রধান।
সেদিন পুলিশের গাফিলতি ছিল বলে যে অভিযোগ উঠেছে, তার তদন্তেও একটি কমিটি করা হয়েছে বলে গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্মকমিশনার মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।
পহেলা বৈশাখে গত মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি সংলগ্ন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ফটকের ওই যৌন হয়রানির ঘটনার নিন্দা-প্রতিবাদ চলছে দেশজুড়ে।
ওই ঘটনা তদন্তে গঠিত তিন সদস্যের কমিটি কাজ শুরু করেছে বলে পুলিশের উপকমিশনার (মিডিয়া) এস এম জাহাঙ্গীর আলম সরকার শনিবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন।
ঘটনাস্থলে উপস্থিত কোনো ব্যক্তির কাছে কোনো ছবি অথবা ঘটনার সঙ্গে জড়িত কোনো ব্যক্তির পরিচয় বা কোনো ধরনের তথ্য থাকলে কমিটির সদস্য সচিবের ০১৭১১-৬০৫১৪৬ মোবাইল নম্বরে জানাতে অনুরোধ করা হয়েছে।
মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, “কী ঘটেছিল তা তদন্ত করতে এবং ঘটনার সময় পুলিশের কোনো ধরনের গাফিলতি ছিল কি না, তা তদন্তে দুটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে।”
সেদিনের ঘটনার সময় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে সমালোচনা উঠেছে। দায়িত্বহীনতার জন্য পুলিশের সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিও উঠেছে।
তদন্তের গতি নিয়ে জানতে চাইলে মনিরুল বলেন, “কোনো ভিকটিম বা নারী এখনও পুলিশের কাছে এসে কোনো ধরনের অভিযোগ করেনি। কেউ নিগৃহীত হয়েছেন, এমন কারও অভিযোগ পায়নি পুলিশ।
“পুলিশ ঘটনা তদন্তে বাদী হয়ে শাহবাগ থানায় একটি মামলা করেছে। ঘটনা নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচারিত ডিভিও ফুটেজ দেখে জড়িতদের সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। শনাক্ত করা গেলেই তাদের গ্রেপ্তার করা হবে।”
অপরাধী শনাক্ত করা যায়- গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে এমন কোনো ভিডিও ফুটেজ থাকলে তা দিয়ে পুলিশকে সহায়তা করার অনুরোধও জানানতিনি।
সেদিন লাঞ্ছিত নারীদের উদ্ধার করতে গিয়ে আহত ছাত্রনেতা লিটন নন্দীও ‘ভিকটিম’র পরিচয় দিতে পারেননি বলে মনিরুল জানান।

“আমরা তার থেকে আরও তথ্য চেয়েছি। ভিকটিমের সঙ্গে গোপনে হলেও পুলিশের কথা বলা দরকার। লিটন নন্দীর তথ্যও যাচাই- বাছাই করা হবে।”

গোয়েন্দা কর্মকর্তা মনিরুল বলেন, আগের কয়েকটি ঘটনার ছবি বিকৃত করে পহেলা বৈশাখের ছবি বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। এগুলো কারা করছে, তাও গোয়েন্দা পুলিশ তদন্ত করে দেখবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24