শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ০৬:২৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ জগন্নাথপুরের টমটম চালকের হত্যাকাণ্ড উন্মোচিত,ঘাতকের স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান জগন্নাথপুরে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় জন্মাষ্টমী উদযাপন জগন্নাথপুরে সরকারি গাছ কাটায় সেই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ভারত-পাকিস্তান গুলি বিনিময় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা ১৭ নভেম্বর টমটম গাড়ীর জন্য জগন্নাথপুরের এক চালককে রশিদপুরে নিয়ে খুন,গ্রেফতার-১ জেলা আ.লীগের গণমিছিল ৫ বছরেও শেষ হয়নি জগন্নাথপুরের ভবেরবাজার-গোয়ালাবাজার সড়কের কাজ,দুর্ভোগ লাখো মানুষের “জুম্মু কাশ্মীরে,গণতহ্যা শুরু করেছে মোদী সরকার”

নবীগঞ্জে গৃহবধূকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন, সিসি ক্যামেরার দৃশ্য নিয়ে তোলপাড়

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১ আগস্ট, ২০১৭
  • ১৮ Time View

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি:
হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে যৌতুকের দাবীতে এক গৃহবধূকে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানবিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গৃহবধূ রোকিয়া বেগম বাদী হয়ে স্বামী কাছন মিয়াকে একক আসামী করে গত রবিবার সকালে হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালতে মামলা করায় ক্ষিপ্ত হয়ে গতকাল মঙ্গলবার সকালে রোকিয়া বেগমের পিতার বাড়িতে গিয়ে প্রকাশ্যে হামলা চালায় কাছন মিয়া। যা বাড়িতে লাগানো সিসি ক্যামেরার ফুটেজে ধরা পড়ে।
গৃহবধূ রোকিয়া বেগম উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের কান্দিগাঁও গ্রামের ধন মিয়ার মেয়ে। মামলার আসামী রোকিয়ার স্বামী কাছন মিয়াও একই গ্রামের মৃত আতিক উল্লার ছেলে।
মামলা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১৬/১৭ বছর পূর্বে রোকিয়ার সাথে কাছন মিয়ার বিয়ে হয়। বর্তমানে তাদের ঔরষজাত ৪ সন্তান রয়েছে। বিয়ের কয়েক বছর পর থেকেই কাছন মিয়া মাদকের নেশায় ঝুকে পড়ে। প্রতিনিয়তই নেশা করে রাতে বাড়িতে গিয়ে কারণে অকারণে স্ত্রীকে মারধর করে। যৌতুকের দাবীতে রোকিয়া বেগমকে একাধীকবার মারপিটের ঘটনা সামাজিকভাবে সমাধান হয়। যা এলাকাবাসী ও সালিশ বিচারকগন জানান।
গৃহবধূ রোকিয়া জানান, একাধীকবার নির্যাতনের শিকার হয়েও ৪ সন্তানের সুখের কথা চিন্তা করে তিনি আমেরিকা প্রবাসী ভাইয়ের নিকট থেকে দুই কিস্তিতে প্রায় ১০ লক্ষ টাকা এনে দেন। এর কিছু দিন পর থেকে আবারো মধ্যযুগীয় কায়দায় হাত পা বেধে বেধড়ক মারপিট করে। শরীরের এমন স্থানে আঘাত করে যার চিহ্ন কাউতে দেখানোর মতোও নয়। বেশ কিছুদিন পূর্বেও তাকে মারপিট করে পিত্রালয়ে পাঠিয়ে দেয়। পরে বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যানসহ এলাকার মুরুব্বিয়ান আপোষে মিমাংসা সমাধান করে দেন। এসময়ও আসামী কাছন মিয়া তার স্ত্রীকে যৌতুকের জন্য মারপিট করবেননা মর্মে মৌখিক ভাবে অঙ্গীকার করেন। এদিকে গত কয়েক দিন ধরে আবারোও রোকিয়ার আমেরিকা প্রবাসী ভাইয়ের কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা এনে দেয়ার জন্য লোহার পাইপ দিয়ে মারপিট করলে দু হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জকমপ্রাপ্ত হয়। এ ঘটনায় রোকিয়া বেগম বাদী হয়ে স্বামী কাছন মিয়াকে একক আসামী করে গত রবিবার হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেন। মোবাইল ফোনে ধারণ করা চিত্র গুলোই প্রমান করে স্ত্রীকে কতটা অমানুষিক নির্যাতন করে কাছন। এদিকে আদালতে মামলা করেও যেন বিপাকে পড়েছে অসহায় পরিবারটি। রোকিয়ার পিতা ধন মিয়া মহুরী এলাকার একজন বিশিষ্ট মুরুব্বি, তিনি অসুস্থ অবস্থায় ঘর থেকে বের হতে পারেননা। এ অবস্থায় এলাকার ত্রাস হিসেবে পরিচিত কাছন মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে মামলাটি তুলে নেয়ার জন্য বাদী পক্ষকে বিভিন্নভাবে হুমকি ধামকি প্রদান করছে। এমনকি গতকাল মঙ্গলবার সকালে রোকিয়া বেগমের পিতার বাড়িতে গিয়ে প্রকাশ্যে হামলা চালায় কাছন মিয়া। রোকিয়াকে লক্ষ করে ইট নিক্ষেপ করার দৃশ্য ধরা পড়ে সিসি ক্যামেরায়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ‘‘আমরা রাস্তা দিয়ে হেটে যাচ্ছিলাম, হঠাৎ দেখি কাছন মিয়া হাতে একটি ইট নিয়ে দৌড়ে গিয়ে ধন মিয়ার বাড়িতে নিক্ষেপ করেন।” এ সময় ধন মিয়ার পরিবারের লোকজনসহ আশপাশের মানুষের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। ভয়ে মুখ খুলে কথা বলার সাহস পায়নি কেউ। এঘটনায় এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। ৪ সন্তানও কাছন মিয়ার কাছে রয়েছে বর্তমানে। এ ব্যাপারে আসামী কাছন মিয়ার সাথে অনেক চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24