সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:৪৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে নৌপথে বেপরোয়া ‘চাঁদাবাজি’,চাঁদা না দিলে শ্রমিকদের মারধর করে লুটে নেয় মালামাল মিরপুরের সেই প্রার্থী আপিলে ফিরলেন নির্বাচনী লড়াইয়ে মিরপুর ইউপি নির্বাচনে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলেন দুইজন, কাল প্রতিক বরাদ্দ পড়াশোনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের নামাজ শেখানো হয় যে বিদ্যালয়ে পানির নিচে প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়ে মৃত্যু! সিলেটে চারদিনের রিমান্ডে পিযুষ যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ২ জগন্নাথপুরে ৩৯টি মন্ডপে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি,চলছে প্রতিমা তৈরীর কাজ জগন্নাথপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কমিটির বিরুদ্ধে অপপ্রচারে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে ৬ মাসেও বকেয়া টাকা মিলেনি, ঋণের চাপে দিশেহারা পিআইসিরা

ফতুল্লা টেস্টে ড্র

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১৪ জুন, ২০১৫
  • ৪৭ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক:: ফতুল্লা টেস্টের শেষ দিনে ব্যাটিং ব্যর্থতায় ফলোঅনে পড়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ভারতের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট ড্র করতে কোনো সমস্যা হয়নি স্বাগতিকদের।

দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশকে অলআউট করতে ৩০ ওভার পেয়েছিল ভারত। ১৫ ওভার বল করে কোনো উইকেট না পেয়ে হাল ছেড়ে দেয় অতিথিরা। ফতুল্লা টেস্টে দুই দল ড্র মেনে নেওয়ার সময় বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল ২৩ রান।

এর আগে বৃষ্টির বাধায় রোববার পৌনে একটায় শুরু হয় শেষ দিনের খেলা। ৩ উইকেটে ১১১ রান নিয়ে দিন শুরু করে বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসানকে ফিরিয়ে শুরুতেই স্বাগতিকদের বড় একটা ধাক্কা দেন অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

সৌম্য সরকারের সঙ্গে ৫১ রানের জুটিতে প্রতিরোধ গড়েছিলেন ইমরুল কায়েস। হরভজন সিংয়ের বলে তিনি স্টাম্পিং হলে ভাঙে শেষ দিনের বাংলাদেশের একমাত্র অর্ধশত রানের জুটি। পরের ওভারে সৌম্য সরকারের বিদায়ে অস্বস্তিতে পড়ে স্বাগতিকরা।

সর্বোচ্চ ৭২ রান করা ইমরুলের ১৩৯ বলের ইনিংসটি ১২টি চার সমৃদ্ধ। তিনি ছাড়া দলের আর কোনো ব্যাটসম্যান অর্ধশতক করতে পারেননি।

চা-বিরতির আগের শেষ ওভারে শুভাগত হোম চৌধুরীর বিদায়ে ফলোঅনের শঙ্কায় পড়ে বাংলাদেশ। শুভাগতর সঙ্গে ৪৩ রানের জুটি উপহার দেওয়া লিটন দাস তখনও উইকেটে ছিল বলে তা এড়ানোর আশা বেঁচে ছিল স্বাগতিকদের।

অভিষিক্ত লিটন খেলছিলেন চমৎকার। কিন্তু উইকেটে থিতু হয়ে তিনিও ফিরে যান। অশ্বিনের পঞ্চম শিকারে পরিণত হওয়া এই তরুণ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান লেগস্লিপে রোহিত শর্মার হাতে ধরা পড়েন।

২৩২ রানে অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে লিটনের বিদায়ে ফলোঅনের শঙ্কা আরও বাড়ে অতিথিদের। শহীদকে ফিরিয়ে ভারতের সম্ভাবনা আরেকটু উজ্জ্বল করেন হরভজন।

তাইজুল ইসলাম ফলোঅন এড়ানোর চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু ১১ নম্বর ব্যাটসম্যান জুবায়ের হোসেন রান আউট হয়ে গেলে স্বাগতিকদের শেষ রক্ষা হয়নি। ২৫৬ রানে অলআউট হওয়া বাংলাদেশের ফলোঅন এড়াতে প্রয়োজন ছিল আরও ৭ রান।

পঞ্চম দিন ৩৫.৪ বলে ১৪৫ রান যোগ করতেই শেষ ৭ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ৮৭ রানে ৫ উইকেট নিয়ে ভারতের সেরা বোলার অশ্বিন। অন্য অফস্পিনার হরভজন ৩ উইকেট নেন ৬৪ রানে। এর আগে ৬ উইকেটে ৪৬২ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে ভারত।

২০০৭ সালে ভারতের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্ট ড্র করেছিল বাংলাদেশ। সেই ড্রয়েও ছিল বৃষ্টির বড় অবদান। সব মিলিয়ে ৯১ টেস্টে এ নিয়ে ১৩টি টেস্টে ড্র করেছে বাংলাদেশ, হেরেছে ৭১টিতে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
ভারত: ৪৬২/৬ ইনিংস ঘোষণা (বিজয় ১৫০, ধাওয়ান ১৭৩, রোহিত ৬, কোহলি ১৪, রাহানে ৯৮, ঋদ্ধিমান ৬, অশ্বিন ২*, হরভজন ৭*; সাকিব ৪/১০৫, জুবায়ের ২/১১৩) – See more at: http://www.sylhetview24.com/news/details/Sports/32183#sthash.idNKTRSg.dpuf

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24