বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:৪১ পূর্বাহ্ন

শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সুনামগঞ্জের সবকটি আসনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে-এম এনামূল কবির ইমন

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৭
  • ৪৪ Time View

আজিজুর রহমান::সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ব্যারিষ্টার এম এনামূল কবির ইমন বলেন, উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে শেখ হাসিনাকে আবার ক্ষমতায় আনতে হবে। বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আছে বলেই আমরা বিশ্বের বুকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করছি। দেশকে এগিয়ে নিতে জননেত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প নেই-এটা ইতিমধ্যে প্রমাণিত।তাই জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আবারও ক্ষমতায় আনতে হবে।আর আমাদের সুনামগঞ্জের সবকটি আসনে নেত্রী যাদের মনোনয়ন দিবেন তাদের জন্য সবাইকে কাজ করতে হবে।আমি আশা করি নেত্রী আওয়ামীগের জন্য যারা নিবেদিত প্রাণ তাদেরই মনোনয়ন দেবেন। ৭১ রাজাকার আলবদরের আওয়ামীলীগে স্থান নেই।ছাতক দোয়ারাবাসি কাছে সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যক্তি এই আসনের সংসদ সদস্য মহিবুর রহমান মানিক। তিনি বতর্মান বাংলাদেশের আওয়ামী রাজনীতির উজ্জ্বল নক্ষত্র,তিন তিন বার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি।সাধারণ মানুষের তার খুব ভাল সম্পর্ক রয়েছে।তাই আমার বিশ্বাস আমার নেত্রী জনগণের নেত্রী, সাধারণ মানুষ কি চায় দলীয় নেতা কর্মী কি চায়, তা তিনি বুঝেন।এ জন্যই তিনি বিশ্ব মানবতার নেত্রী ত্যগী নেতা কর্মীর নেত্রী। তাই এই আসনে নৌকাকে বিজয়ী করেতে মহিবুর রহমান মানিককের বিকল্প নেই।তিনি গতকাল দোয়ারা বাজার উপজেলার দোহালিয়ায় আয়োজিত জনসভায় উপরোক্ত ককথা গুলো বলেন।
কে সেই ইমন?
যার কথায় বেশে আসে বঙ্গবন্ধু কথা,বঙ্গকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার কথা।
যার জন্ম সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার বনগাঁও গ্রামে। পিতার নাম মরহুম এডভোকেট আব্দুর রইছ এম.পি, এবং মাতার নাম মরহুমা রফিকা রইছ চৌধুরী। পিতা এডভোকেট আব্দুর রইছ সাহেব সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলিগের আমৃত্যু সভাপতি ও সুনামগঞ্জ ৩ আসনের দু’দুবারের নির্বাচিত এম.পি ছিলেন। এবং মাতা মরহুমা রফিকা রইছ চৌধুরী সুনামগঞ্জ জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী ছিলেন।
সর্ব কালের সর্ব শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য উত্তরসুরী জননেত্রী শেখ হাসিনার আশীর্বাদপুষ্ট ব্যারিস্টার এম.এনামুল কবির ইমন ১৯৮৯ সালে সুনামগঞ্জ সরকারী জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস. এস.সি এবং সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ থেকে ১৯৯১ সালে আই. এস. সি পাশ করেন। সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে সর্বোচ্ছ ভোট পেয়ে ছাত্রলীগের বার্ষিকী নির্বাচিত হন। তিনি ঢাকার ভূইয়া একাডেমী থেকে এ লেভেল সম্পন্ন করার পর পরবর্তীতে উচ্চ শিক্ষার জন্য ইংল্যান্ডে পাড়ি জমান। লন্ডনের ইউনিভার্সিটি অব অলভারহ্যাম্পটন থেকে এল এল বি অনার্স এবং লিংকন্স ইন থেকে বার এট ল’ ডিগ্রি অজর্ন করেন। ২০০২ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীযুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সদস্য নির্বচিত হন।
ব্যারিস্টার এম.এনামুল কবির ইমন পরবর্তীতে ইংল্যান্ড যুবলীগের কো অর্ডিনেটর হিসেবে দায়ীত্ব প্রাপ্ত হন এবং উনার স্ত্রী ব্যারিস্টার ফারজানা শিলা বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের একজন সনামধন্য আইনজীবী হিসেবে কাজ করছেন। বিলাতে অবস্থানকালে দুজনেই আইন পেশায় নিযুক্ত ছিলেন। অবশেষে সুনামগঞ্জের মানুষের কল্যাণের কথা চিন্তা করে ২০০৪ সালে মা মাঠি ও মানুষের ঠানে দেশে ফিরে আসেন ব্যারিস্টার দম্পত্যি। সেদিন বিলেতের বাংলা পত্রিকায় ছাপা হয়েছিল বিলেতের ঝকঝকে হাজার হাজার পাউন্ডের মায়া ছেড়ে দেশে ফিরছেন ব্যারিস্টার দম্পত্যি। তখন বন্ধু-বান্ধব আত্নীয়স্বজন সহ অনেকেই বলেছিলেন জেনে শুনে নিজেকে কেন অনিশ্চয়তার মধ্যে ফেলে দিচ্ছ,,??
২০০৯ সালে বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার সহকারী এটর্নি জেনারেল হিসাবে আপীলেট ডিভিশনে সর্ব কনিষ্ঠ কৌশলীর দায়ীত্ব পালন করেন। তিনি পাওয়ারগ্রীড কোম্পানীর বোর্ড অব ডাইরেক্ট এবং পাওয়ারগ্রীডের লিগ্যাল এফেয়ার্স এর চেয়ারম্যানের দায়ীত্ব পালন করছেন এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ এ টু ওয়ান এর আইন উপদেষ্টা হিসেবে যুক্ত রয়েছেন। ২০১০ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীযুবলীগ সুনামগঞ্জ জেলার আহবায়ক নির্বাচিত হন।
২০১১ সালের ডিসেম্বর মাসে বাংলাদেশের সবর্কনিষ্ট জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসেবে সুনামগঞ্জের জেলায় দায়ীত্ব প্রাপ্ত হন। ২০১২ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীযুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৩ সালে জাতীয় নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৪
(সুনামগঞ্জ সদর-বিশ্বম্ভর পুর) আসন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামীলিগের পক্ষে জননেত্রী শেখ হাসিনা তাকে সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসাবে মনোনীত করেন। ২০১৪ সালে আবারো দ্বিতীয় বারের মতো সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের দায়ীত্বভার গ্রহন করেন।
রাজনৈতিক কমর্দক্ষতায় জননেত্রী শেখ হাসিনা তাকে সুনামগঞ্জের মানুষের বিদ্যুৎ সমস্যা দুর করার জন্য ১৩২- ১৩৩ কেবি মেঘাওয়াট বিদ্যুৎ সাবষ্টেশন স্থাপন করার অনুমতি প্রদান করেন।
ব্যারিস্টার এম.এনামুল কবির ইমনের স্বচ্ছ রাজনীতিতে মুগ্ধ হয়ে ২০১৬ সালে ২৫শে ফেব্রুয়ারি সম্মেলনের মাধ্যমে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করেন।
ব্যারিষ্টার ইমন স্বচ্ছ ও পরিচ্ছন্ন রাজনীতিতে যে আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন তা বৃহত্তর সুনামগঞ্জের আওয়ামী রাজনীতির আগামীদিনের কান্ডারী হিসেবে সুনামগঞ্জ-৪ আসনে জনগন মূল্যায়ীত করবেন, এটাই সুনামগঞ্জবাসীর বিশ্বাস এবং প্রত্যাশা

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24