বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২০, ০৯:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
পাইলগাঁও বিএন উচ্চ বিদ্যালয়ের  শতবর্ষ উৎসব পালনে স্থগিতাদেশ হাইকোর্টে স্থগিত  জগন্নাথপুরে অগ্নিকাণ্ডে পুড়ল দুইটি দোকানঘর জগন্নাথপুর স্বরূপ চন্দ্র সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া সম্পন্ন শীর্তাতদের পাশে যুক্তরাজ্য আ.লীগের সেক্রেটারির সৈয়দ ফারুক রোহিঙ্গা গণহত্যার বিচারের এখতিয়ার রয়েছে জাতিসংঘের আদালতের নওগাঁ সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত জগন্নাথপুরে সাবেক মেম্বার সমাজসেবী ছুরত মিয়ার দাফন সম্পন্ন বাসুদেব মন্দিরে তারকব্রহ্ম মহানামযজ্ঞ উপলক্ষে সন্মাননা প্রদান জগন্নাথপুরে সরকারি ভূমি থেকে ২৭টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ নেওয়ার খানের পিতার মৃত্যুতে জগন্নাথপুর বিএনপির শোক প্রকাশ

সিলেটে অবৈধ মোটরসাইকেলে ছিনতাই করেন মোহাম্মদআলী!

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ৭ অক্টোবর, ২০১৭
  • ২৮ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: সিলেটে একাধিক ছিনতাই মামলার আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই ছিনতাইকারী সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে নাম্বার প্লেইটবিহীন অবৈধ মোটরসাইকেল ক্রয় করেন তিনি। পরে সেই মোটরসাইকেলে ভুয়া নাম্বার প্লেইট লাগিয়ে সেটিকে ব্যবহার করেন মানুষের সর্বস্ব লুটে নেওয়ার কাজে। এই ‘তিনি’ হচ্ছেন মোহাম্মদ আলী। পুলিশের খাতায় তিনি সিলেট নগরীর শীর্ষ ছিনতাইকারীদের একজন।

মোহাম্মদ আলীর গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুর জেলার জাজিরা থানায়। ইউনুস মাতব্বরের ছেলে আলী দীর্ঘদিন ধরে সিলেটের মোগলাবাজার থানার গোটাটিকর এলাকায় খান বাড়িতে বসবাস করছিলেন।

চারটি ছিনতাই মামলার আসামি মোহাম্মদ আলীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত একটি কালো রঙের পালসার মোটরসাইকেল এবং ছিনতাইকৃত ২০ হাজার টাকাসহ তাকে গ্রেফতার করে মোগলাবাজার থানা পুলিশ। থানার সিনিয়র সহকারি কমিশনার জ্যোতির্ময় সরকারের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতারের পর সিলেট মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে প্রেরণ করা হয়। সেখানে ছিনতাইয়ে জড়িত থাকার স্বীকারোক্তি দেন তিনি।

পুলিশ সূত্র জানায়, মোহাম্মদ আলী দীর্ঘদিন ধরে সিলেট মহানগরীতে ছিনতাইয়ে জড়িত। তার বেশ কয়েকজন সহযোগীও রয়েছে। ছিনতাইয়ের অভিযোগে একাধিবার জেলও খেটেছেন তিনি। কিন্তু জেল থেকে বেরিয়েই ফের ওই অপকর্মে লিপ্ত হতেন তিনি। অবৈধ ও ভুয়া নাম্বার প্লেইটধারী মোটরসাইকেলের মাধ্যমে ছিনতাই করায় অনেক সময়ই পুলিশ তাকে ট্রেস (চিহ্নিত) করতে পারতো না।

জানা যায়, মোহাম্মদ আলীর বিরুদ্ধে সিলেট নগরীর দক্ষিণ সুরমা, মোগলাবাজার ও শাহপরান থানায় চারটি ছিনতাই মামলা চলমান রয়েছে।

সূত্র জানায়, গ্রেফতারের পর পুলিশের কাছে নিজের সহযোগীদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করেছেন মোহাম্মদ আলী। পুলিশ ওই সহযোগীদের চিহ্নিত করে বর্তমানে গ্রেফতার অভিযান চালাচ্ছে। তবে গোপনীয়তার স্বার্থে ওই সহযোগীদের নাম প্রকাশ করতে নারাজ পুলিশ।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা জানান, ‘মোহাম্মদ আলী শীর্ষ ছিনতাইকারীদের একজন। পুলিশের কাছে তিনি তার সহযোগীদের পরিচয় প্রকাশ করেছেন। পুলিশ তাদের গ্রেফতারে অভিযান চালাচ্ছে।’

পুলিশ জানায়, সর্বশেষ গত ২১ সেপ্টেম্বর প্রায় চার লাখ টাকা ছিনতাই করেন মোহাম্মদ আলী। মোগলাবাজার থানার ছত্তিঘর গ্রামের আব্দুল্লাহ নামের এক ব্যক্তি পূবালী ব্যাংক থেকে ৩ লাখ ৮৫ হাজার টাকা উত্তোলন করে সিএনজি অটোরিকশাযোগে বাড়িতে ফিরছিলেন। মোগলাবাজারের সিরাজপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে যাওয়ামাত্র মোটরসাইকেল দিয়ে অটোরিকশার গতিরোধ করেন মোহাম্মদ আলী, ভয় দেখিয়ে ছিনিয়ে নেন ওই টাকা। ওই সময় তার সাথে আরো দুই সহযোগী ছিল।

এ ঘটনার পর পুলিশ মোহাম্মদ আলীকে গ্রেফতারে জোরেশোরে মাঠে নামে। প্রযুক্তিগত সহায়তায় চিহ্নিত করা হয় তাকে। পরে অভিযান চালিয়ে করা হয় গ্রেফতার।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24