1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নুর সভ্যতা-সংকট ও বিশ্বরাজনীতি গ্রন্থের পর্যালোচনা- মিহিরকান্তি চৌধুরী - জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৫৫ পূর্বাহ্ন

অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নুর সভ্যতা-সংকট ও বিশ্বরাজনীতি গ্রন্থের পর্যালোচনা- মিহিরকান্তি চৌধুরী

  • Update Time : শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ৬৯ Time View

সমাজবিজ্ঞানের কৃতী ছাত্র ও মনস্বী অধ্যাপক, বিশিষ্ট লেখক, সমাজচিন্তক অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নুর গ্রন্থ, সভ্যতা- সংকট ও বিশ্বরাজনীতি আমাদের সমসাময়িক বিশ্বকে গঠনকারী বিভিন্ন বিষয়ের একটি সময়োপযোগী এবং অন্তর্দৃষ্টিপূর্ণ এক অনুসন্ধান। গ্রন্থটি তিনভাগে বিভক্ত, প্রতিটি বৈশ্বিক বিষয়ের সমালোচনামূলক দিকগুলোকে তুলে ধরে। সাম্প্রতিক বৈশ্বিক রাজনৈতিক প্রবণতা, ভূ-রাজনীতি এবং ভূ-অর্থনীতির মধ্যে আন্তঃক্রিয়া এবং মানব সভ্যতার মুখোমুখি হওয়া প্রধান সংকটগুলোর সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করার সময় এ পর্যালোচনার প্রতিটি অংশের অধ্যায়গুলোতে গভীরভাবে আলোকপাত করে এবং গ্রন্থটির গুণাবলি ও উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্যসমূহ পাঠকদের মধ্যে নতুন ভাবনার খোরাক জোগায়।

 

প্রথম ভাগে রয়েছে বিশ্বরাজনীতি। ‘বিশ্বকে পুনর্বিবেচনা করতে হবে’ উচ্চারণের মধ্য দিয়ে অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নু বিশ্ব সম্পর্কে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানিয়ে আলোচনা শুরু করেন। এ অধ্যায়টি সমগ্র গ্রন্থটির জন্য একটা টোন বা সুর সেট করে দেয়। পাঠকদের সমসাময়িক চ্যালেঞ্জের আলোকে বিদ্যমান দৃষ্টান্তগুলোকে সমালোচনামূলকভাবে পরীক্ষা করার আহ্বান জানান। এটি ঐতিহ্যগত বৈশ্বিক কাঠামো ও শক্তি গতিবিদ্যার পুনর্মূল্যায়নের বর্তমান প্রবণতার সঙ্গে সংগতিপূর্ণ।

 

‘কালো সংগ্রাম : মানব সভ্যতার একটি নৃশংস বাস্তবতা’ শীর্ষক প্রবন্ধে জাতিগত বৈষম্য এবং অবিচারের বৈশ্বিক সমস্যাকে তুলে ধরেছেন লেখক। এ অধ্যায়টি মানব সভ্যতার বৃহত্তর প্রেক্ষাপটে কালো মানুষদের সংগ্রামকে বিশিষ্ট স্থান দেয়। এটি মানবাধিকারের ওপর চলমান সংলাপে অবদান রেখে জাতিগত ন্যায়বিচার এবং সমতার পক্ষে সাম্প্রতিক আন্দোলনগুলোর সঙ্গে অনুরণিত।

 

আমেরিকান স্বাধীনতার ইতিহাস নিয়ে চুন্নু একটি তাত্ত্বিক বিশ্লেষণ করেছেন। তিনি আমেরিকান স্বাধীনতার ওপর একটি অনন্য দৃষ্টিভঙ্গি প্রদান করে এর ঐতিহাসিক শিকড় বোঝার জন্য একটি তাত্ত্বিক লেন্স প্রদান করেছেন। এ অধ্যায়টি বিশ্বমঞ্চে চলমান বিতর্কের পরিপূরক জাতীয় ইতিহাস নিয়ে আলোচনার গভীরতা যোগ করে। আমেরিকান স্বাধীনতার ইতিহাস সারা বিশ্বের স্বাধীনতাকামী মানুষের জন্য একটি আবশ্যিক প্রাথমিক পাঠ মনে করা যেতে পারে।

 

রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা আছে। সমাধানের তাগিদ দিয়ে প্রশ্ন রেখেছেন, ‘সমাধান থেকে কত দূর’। একটি সমসাময়িক মানবিক সংকট পরীক্ষানিরীক্ষা করে চুন্নু রোহিঙ্গা সমস্যা এবং এর জটিলতার ওপর আলোকপাত করেছেন। এ অধ্যায়টি উদ্বাস্তু, বাস্তুচ্যুতি এবং এই ধরনের সংকট সমাধানে আন্তর্জাতিক সহযোগিতার প্রয়োজনীয়তার বিষয়ে চলমান বিশ্বব্যাপী সংলাপে অবদান রাখবে। ফিলিস্তিনের ওপর বর্বর ইসরায়েলি আক্রমণ নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে তিনি মধ্যপ্রাচ্যে সাম্প্রতিক ভূ-রাজনৈতিক উত্তেজনার মধ্যে ইসরায়েলি-ফিলিস্তিনি সংঘাতের অন্বেষণ করেছেন, ঐক্য ও প্রতিরোধের জন্য প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছেন। এ অধ্যায়টি বর্তমান ঘটনার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ এবং আঞ্চলিক দ্বন্দ্বের কূটনৈতিক সমাধানের জন্য বহুমাত্রিক আন্তর্জাতিক চাপের গুরুত্ব তুলে ধরে।

 

ডাক বিভাগ বিশ্বে যে জনপ্রিয় সে বিষয়টিও অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নুর আলোচনায় এসেছে। তাঁর পর্যবেক্ষণ হল, এ বিষয়ে বাংলাদেশ ইতিহাস গড়ার অপেক্ষায় রয়েছে। বাংলাদেশের দিকে মনোনিবেশ করা, ডাক বিভাগের জনপ্রিয়তা এবং দেশের ইতিহাসে এর সম্ভাব্য প্রভাব পরীক্ষা করেছেন। এ অধ্যায়টি অনন্যভাবে স্থানীয় অন্তর্দৃষ্টিগুলোকে একটি বৈশ্বিক দৃষ্টিভঙ্গির সঙ্গে একত্রিত করে। এ ধরনের বিষয়ের অবতারণা ও তার ওপর বিশেষ আলোকপাত আপাতদৃষ্টিতে পাঠক হৃদয়ের সঙ্গে ভিন্ন ভিন্ন উপাদানের সংযোগ সাধন করা লেখকের ক্ষমতা প্রদর্শন করে।

 

সাম্প্রতিক রাজনৈতিক উন্নয়ন এবং অর্থনৈতিক স্বার্থ বিষয়ে অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নু একটি নির্মোহ আলোচনা করেছেন তাঁর গ্রন্থে’। চুন্নুর গ্রন্থটি এ বৈশ্বিক রাজনৈতিক সমস্যাগুলোকে বিবেচনা করার সময় পাঠকদের সমসাময়িক বোধ- ভাবনার খেয়াল রেখেছেন, হিসেবনিকেশ করেছেন পাঠকমন কতটুকু ধারণ করতে পারবে। বৃহৎ বিষয়কে সংক্ষিপ্তভাবে বোঝার জন্য আদর্শগতভাবে সাম্প্রতিক রাজনৈতিক উন্নয়ন এবং অর্থনৈতিক স্বার্থগুলো অন্তর্ভুক্ত করেই চুন্নু তাঁর আলোচনা এগিয়েছেন। ভূ-রাজনৈতিক পরিবর্তন, অর্থনৈতিক প্রভাব এবং বিকশিত বৈশ্বিক পরিপ্রেক্ষিত পরীক্ষা করা গ্রন্থটির প্রাসঙ্গিকতা এবং প্রভাবকে বাড়িয়ে তুলবে বলে আশা করা যায়।

 

“সভ্যতা-সংকট ও বিশ্বরাজনীতি” গ্রন্থের প্রথম পর্যায়ে বিভিন্ন ধরনের বিষয় উপস্থাপন করা হয়েছে যা অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নুর সমালোচনামূলক বিষয় অন্বেষণের প্রতিশ্রুতির প্রতিফলন ঘটায়। বিশ্লেষণের গভীরতা এবং আলোচিত বিষয়বস্তুর ব্যাপকতা বিশ্বরাজনীতির একটি ব্যাপক ধারণার জন্য লেখকের নিবেদন পাঠকমনে আশার সঞ্চার করে। গ্রন্থটির পরবর্তী বিভাগগুলোর মাধ্যমে পাঠকরা অগ্রসর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাঁরা অভিবাসন এবং বিবিধ বিষয়গুলোর অনুরূপ অন্তর্দৃষ্টিপূর্ণ অনুসন্ধানের প্রত্যাশা করতে পারে। প্রতিটি বিষয় আমাদের বিশ্বের মুখোমুখি আন্তঃসংযুক্ত চ্যালেঞ্জগুলোর একটি সামগ্রিক ধারণালাভে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

 

দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রবাসীদের স্বপ্ন এবং ধারণা কতদূর বাস্তবায়িত হয় তা লেখক বোঝার চেষ্টা করেছেন। এই পর্যায়ের অধ্যায়গুলোতে অভিবাসনের বৈশ্বিক প্রবণতা এবং এর আর্থসামাজিক প্রভাবের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করে প্রবাসীদের মুখোমুখি হওয়া বাস্তবতাগুলো পর্যালোচনা করেছেন লেখক নিপুণতার সঙ্গে। অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নু একটি তাত্ত্বিক বিশ্লেষণ প্রদান করেন যা প্রবাসীদের অভিজ্ঞতা এবং আকাঙ্ক্ষা নিয়ে আলোচনায় অবদান রাখে, নতুন আলোচনার দিক উন্মোচন করে। প্রবাস যাত্রার উৎপত্তি থেকে শুরু করে বহুবিধ বিষয়ের ওপর আলোকপাত করে সেটাকে তাত্ত্বিক এক বিশ্লেষণ প্রদান করেছেন। এই পর্যায়ভুক্ত অধ্যায়ের আলোচনায় অ্যাকাডেমিক বাধ্যবাধকতার সঙ্গে অভিবাসন নমুনা ও প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করে এমন কারণগুলো সম্পর্কে আমাদের বোধশক্তির উন্নতি ঘটায়।

 

বিবিধ পর্যায়ে অনেক বিষয়, নাম যেভাবে বিবিধ। তবে সবকটাতেই বিশ্বভাবনা আছে। বিবিধ বিভাগের অধীনে প্রথম প্রবন্ধ “জলবায়ু পরিবর্তন এবং সংকটে বিশ্ব”তে চুন্নু জলবায়ু পরিবর্তনের গুরুত্বপূর্ণ সমস্যাটি তুলে করেছেন। তিনি পরিবেশগত সংকটের মুখে বিশ্বের বর্তমান অবস্থার একটি বিস্তৃত রূপরেখা প্রদান করেছেন। লেখক জলবায়ু পরিবর্তনের পরিণতিগুলো নিয়ে আলোচনা করেছেন এবং মানব অস্তিত্বের জন্য হুমকি বিশেষ এই সমস্যা মোকাবিলায় বিশ্বব্যাপী সহযোগিতার জরুরি প্রয়োজনের ওপর জোর দিয়েছেন। লেখকের কাছে নানা কারণে বিশ্বকে অনিরাপদ এবং ঝুঁকিপূর্ণ মনে হয়েছে। এই বিষয়ের ওপর তিনি একটি সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষণ করেছেন। অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নুর দ্বিতীয় এ নিবন্ধটি বিশ্বব্যাপী নিরাপত্তাহীনতা এবং ঝুঁকির সামাজিক দিকগুলোকে অন্বেষণ করে। একটি সমাজতাত্ত্বিক দৃষ্টির মাধ্যমে তিনি নিরাপত্তাহীনতার মূল কারণসমূহ এবং বিভিন্ন সংস্কৃতিতে এগুলো কীভাবে প্রকাশ পায় তা বিশ্লেষণ করেন। নিবন্ধটি পাঠকদের সামাজিক কাঠামোর ওপর নিজেদের মনোযোগ প্রতিফলিত করতে উৎসাহিত করে, পাঠকমনে যা সংবেদনশীলতার অনুভূতিতে অবদান রাখে এবং আরও নিরাপদ বিশ্বের জন্য সম্ভাব্য সমাধানের প্রস্তাব উপস্থাপন করে। জনসংখ্যা সমস্যা সমাধানে যুব সমাজের দায়িত্ব নিয়ে নিবন্ধ উপস্থাপনের মাধ্যমে বিশ্ব জনসংখ্যা সমস্যা সমাধানে যুব সমাজের ভূমিকা তুলে ধরেছেন লেখক। জনসংখ্যা-সম্পর্কিত চ্যালেঞ্জের টেকসই সমাধান খোঁজার ক্ষেত্রে তরুণ প্রজন্মের দায়িত্ব নিয়ে আলোচনা করেছেন। নিবন্ধটি তরুণদের ক্ষমতায়ন এবং আমাদের গ্রহের ভবিষ্যৎ গঠনে সক্রিয় অংশগ্রহণের আহ্বান হিসেবে কাজ করে। বাংলাদেশে বেকারত্ব নিয়ে একটি নমুনা সমীক্ষা-ভিত্তিক পর্যালোচনা আছে গ্রন্থে। স্থানীয় দৃষ্টিভঙ্গিতে চলে গিয়ে লেখক দেশে বেকারত্বের মূল কারণগুলোর ওপর আলোকপাত করেছেন, অন্তর্দৃষ্টি প্রদান করেছেন যা এই জটিল চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় নীতি এবং সামাজিক পরিবর্তনগুলোকে সম্পৃক্ত করতে পারে।

 

ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব নিয়ে আলোচনা করেছেন, জনসচেতনতার প্রয়োজনের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। ডেঙ্গু প্রাদুর্ভাবের এ বিষয়টি জনস্বাস্থ্য সংকটকে প্রকট করে তোলে, স্থানীয়ভাবেই হোক আর বৈশ্বিকভাবেই হোক। নিবন্ধটি জনসচেতনতা, শিক্ষা এবং সম্প্রদায়ের ওপর ডেঙ্গুর প্রভাব নিয়ন্ত্রণ ও প্রশমিত করার জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতামূলক প্রচেষ্টা বাড়ানোর কৌশল নিয়ে আলোকপাত করে। “নারীর সঞ্চয় ও সচেতনতা : দেশের উন্নয়নে সহায়ক” নিবন্ধে লেখক অর্থনৈতিক উন্নয়নে নারীর ভূমিকার ওপর আলোকপাত করেছেন। তিনি নারীর সঞ্চয় এবং একটি দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের মধ্যে যোগসূত্র অন্বেষণ করেন, টেকসই প্রবৃদ্ধির জন্য আর্থিকভাবে নারীর ক্ষমতায়নের গুরুত্বের ওপর জোর দেন। শিশুর ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যসেবা প্রত্যেকের দায়িত্ব বলে মত দিয়ে লেখক শিশুদের স্বাস্থ্য ও মঙ্গল নিশ্চিত করার জন্য সম্মিলিত দায়িত্বের পক্ষে কথা বলেছেন। তিনি শিশুদের জন্য যথাযথ স্বাস্থ্যসেবা প্রদানে সামাজিক ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করেছেন, জোর দিয়েছেন যে এটি একটি ভাগ করা দায়িত্ব যা পৃথক পরিবারের বাইরের সীমানায় প্রসারিত। বিবাহ সম্পর্কে সাম্প্রতিক চিন্তা-ভাবনা নিয়ে নিবন্ধটি বিবাহ সম্পর্কে বিকশিত দৃষ্টিভঙ্গির প্রতিফলন ঘটায়। অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নু বিবাহের আশেপাশে পরিবর্তনশীল সামাজিক নিয়ম এবং প্রত্যাশাগুলোর একটি সমসাময়িক বিশ্লেষণ প্রদান করে পাঠকদের ঐতিহ্যগত ধারণাগুলোকে সমালোচনামূলকভাবে পরীক্ষা করতে এবং পুনরায় সংজ্ঞায়িত করতে উৎসাহিত করে। “বিশ্বে বাঁশের উৎপত্তি, ব্যবস্থাপনা, এবং রোগ প্রতিরোধ : নিয়ে একটি সমসাময়িক জরিপ” শীর্ষক নিবন্ধটি বাঁশের বহুমুখী দিক, তার উৎপত্তি থেকে শুরু করে এর ব্যবস্থাপনা এবং রোগ প্রতিরোধ পর্যন্ত অনুসন্ধান করে। চুন্নু একটি সমসাময়িক জরিপ উপস্থাপন করে, বিভিন্ন শিল্পে বাঁশের সম্ভাবনা এবং টেকসই উন্নয়নে এর তাৎপর্য তুলে ধরেন।

 

সভ্যতা-সংকট ও বিশ্বরাজনীতি গ্রন্থের প্রতিটি বিভাগে বৈশ্বিক সমস্যাগুলোর একটি আকর্ষক অনুসন্ধান উপস্থাপনের চেষ্টা করেছেন লেখক অধ্যাপক ম. আমিনুল হক চুন্নু। বিভিন্ন প্রবন্ধের মাধ্যমে, চুন্নু পাঠকদের সমালোচনামূলক চ্যালেঞ্জের মূল্যবান অন্তর্দৃষ্টি প্রদান করে, গভীরতর বোঝাপড়া ও ইতিবাচক পরিবর্তনের দিকে সম্মিলিত প্রচেষ্টাকে উৎসাহিত করার চেষ্টা করেছেন। আমি গ্রন্থটির বহুল প্রচার কামনা করি।

 

লেখক পরিচিতিঃ

মিহিরকান্তি চৌধুরী : লেখক, অনুবাদক ও ডেপুটি রেজিস্ট্রার, মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি, সিলেট, বাংলাদেশ এবং নির্বাহী প্রধান, টেগোর সেন্টার, সিলেট, বাংলাদেশ।

শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩
Design & Developed By ThemesBazar.Com