1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের পুননির্বাচিত - জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৪৮ অপরাহ্ন

আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের পুননির্বাচিত

  • Update Time : শনিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ১০৩ Time View

দশমবারের মতো আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নতুন কমিটিতে শেখ হাসিনার সঙ্গে দলের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করবেন ওবায়দুল কাদের। তিনিও টানা তৃতীয় মেয়াদে এই দায়িত্বে থাকছেন।

আজ শনিবার আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে এই দুজনের নাম ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের উদ্বোধন হয়। পরে বিকেল তিনটার দিকে রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনে কাউন্সিল অধিবেশন শুরু হয়।

এই অধিবেশনে সারা দেশ থেকে আসা প্রায় ৭ হাজার কাউন্সিলর অংশ নেন। তাঁদের মতামতের ভিত্তিতে দলটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করা হয়।

আওয়ামী লীগের নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করতে দলটির উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ইউসুফ হোসেন হুমায়ুনকে চেয়ারম্যান করে তিন সদস্যের নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়। কমিশনের অপর দুই সদস্য ছিলেন- প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা মশিউর রহমান এবং উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাহাবুদ্দিন চুপ্পু।

এই সম্মেলনের মধ্য দিয়ে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আওয়ামী লীগের আগের কমিটি বিলুপ্ত হয়েছে। অতীতের নিয়ম অনুযায়ী দ্বিতীয় অধিবেশনে নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে দলীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম প্রস্তাব করা হয়। তার ওপর ভিত্তি করে শীর্ষ এই দুই পদে নেতৃত্ব নির্বাচন করেন কাউন্সিলররা। পরে দলের অন্য পদগুলোতে নেতৃত্ব নির্বাচনের সর্বময় ক্ষমতা দলীয় প্রধানের হাতে অর্পণ করা হয়ে থাকে। তিনি দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেন। এই সম্মেলনের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের ৮১ সদস্যের নতুন কেন্দ্রীয় কমিটি হবে।
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
জেলা
মুন্সিগঞ্জে পুলিশের বাধায় বিএনপির গণমিছিল পণ্ড, পথসভায়ও বাধা
প্রতিনিধি
মুন্সিগঞ্জ
প্রকাশ: ২৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭: ৪৩

মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলায় পুলিশের বাধায় বিএনপির গণমিছিল কর্মসূচি পণ্ড হয়েছে। আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার মুক্তারপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে পথসভা করার সময়ও পুলিশ বাধা দিয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির নেতা-কর্মীরা।

নেতা-কর্মীরা জানান, বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের নেতা-কর্মীদের মুক্তির দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মুন্সিগঞ্জে গণমিছিলের আয়োজন করা হয়। মিছিলটি মুক্তাপুর থেকে মুন্সিগঞ্জ শহরে জেলা কার্যালয়ে যাওয়ার কথা ছিল। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পঞ্চসার ইউনিয়নের গোসাইবাগ এলাকা থেকে মিছিল বের করলে পুলিশ বাধা দেয়। পরে মুক্তারপুর পুরোনো ফেরিঘাট এলাকার ইউনিয়ন বিএনপি কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে সংক্ষিপ্ত পথসভা করার সময় সেখানেও বাধা দেয়ে পুলিশ।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম বলেন, দেশ পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। কোথাও কোনো কর্মসূচি পালন করতে দিচ্ছে না। নেতা-কর্মীদের মুক্তি ও ১০ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে তাঁদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি ছিল। গণমিছিল মুক্তারপুর থেকে মাত্র ২০০ গজ শহরের দিকে যায়। তখনই পুলিশ তাঁদের বাধা দেয়। মিছিল বন্ধ হয়ে যায়। তিনি আরও বলেন, পুলিশের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, কেন মিছিল করতে দেওয়া হবে না? তারা শুধু এতটুকুই বলল, ওপরের নির্দেশনা রয়েছে। পরে তারা মুক্তারপুরে সমাবেশ করতে চাইলে সেখানেও বাধা দেয় পুলিশ। শেষ পর্যন্ত কয়েক মিনিটির মধ্যে পথসভা শেষ করতে হয়। সরকার ও পুলিশের এমন আচরণ ধিক্কারজনক।

মুঠোফোনে বিএনপির অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তারিকুজ্জামান ‘ঠিক আছে’ বলে লাইন কেটে দেন।
জেলা বিএনপির সাবেক জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি শাজাহান খানের সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী, মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক মোহাম্মদ মহিউদ্দিন আহমেদ, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক মজিবর দেওয়ান প্রমুখ।
জেলা থেকে আরও পড়ুন

পুলিশঢাকা বিভাগমুন্সিগঞ্জবিএনপিরাজনীতি

মন্তব্য করুন
বিএনপি নিয়ে আরও পড়ুন
আওয়ামী লীগের সম্মেলনে শরিকদের যোগদান, আসেনি বিএনপি
‘লোকসমাগম দেখে সরকারের পায়ের নিচে মাটি সরে গেছে’
এবার ভোটচোরদের হাতেনাতে ধরতে হবে, তারা যেন পালিয়ে যেতে না পারে
বগুড়ায় ৭ বছর পর আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে বিএনপির সমাবেশ
জেলা
নোয়াখালীতে জামায়াতের বিক্ষোভ মিছিল ছত্রভঙ্গ, আটক ১০
নিজস্ব প্রতিবেদক
নোয়াখালী
প্রকাশ: ২৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭: ৪১

নোয়াখালীতে জামায়াতে ইসলামীর বিক্ষোভ মিছিল শটগানের গুলি ও কাঁদানে গ্যাসের শেল ছুড়ে ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে পুলিশ। এ সময় দলটির কমপক্ষে ২০ নেতা-কর্মী শটগানের ছররা গুলিতে আহত হয়েছেন বলে জামায়াতের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল ও আশপাশের এলাকা থেকে জামায়াত ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের ১০ নেতা-কর্মীকে আটক করেছে। তবে দলের পক্ষ থেকে আটক নেতা-কর্মীর সংখ্যা ১৮ বলে দাবি করা হয়েছে। আজ শনিবার সকাল নয়টার দিকে শহরের জামে মসজিদ মোড় ও পৌর বাজার এলাকায় এসব ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আজ সকালে কেন্দ্রঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে জামায়াত-শিবিরের একদল নেতা-কর্মী শহরের জামে মসজিদ মোড় এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল বের করার জন্য সমবেত হন। এ সময় পুলিশ শটগানের গুলি ও কাঁদানের গ্যাসের শেল ছুড়ে তাঁদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পরে জামায়াত–শিবিরের নেতা-কর্মীরা শহরের বারলিংটন এলাকায় জড়ো হয়ে তাদের কর্মসূচি সমাপ্ত করেন।





শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩
Design & Developed By ThemesBazar.Com
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com