1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
জগন্নাথপুরে কয়েকটি বেড়িবাঁধের অধিংকাশ স্থানে মাটি পড়েনি - জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৪৪ অপরাহ্ন

জগন্নাথপুরে কয়েকটি বেড়িবাঁধের অধিংকাশ স্থানে মাটি পড়েনি

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ৬৮ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি::

জগন্নাথপুর উপজেলার নলুয়ার হাওরে এখনও কয়েকটি প্রকল্পের অধিংকাশ স্থানে মাটি পড়েনি। এরমধ্যে কিছু প্রকল্পে কাজ চলছে ধীরগতিতে আবার কেউ কেউ কাজ শুরু করে বন্ধ রেখেছেন। বুধবার হাওর ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। পাউবোর নীতিমালা অনুযায়ী ১৫ ডিসেম্বর থেকে কাজ শুরুর করার কথা। কাজ শুরুর দেড়মাস পরও সব প্রকল্পের কাজ শুরু না হওয়ায় কৃষকরা দুশ্চিন্তায় পড়েছেন।

সরেজমিনে নলুয়া হাওর পরিদর্শনকালে দেখা যায়, হাওরের ৯ নম্বর বাঁধ প্রকল্পের ডুমাইখালী থেকে টংগর পর্যন্ত  কোন মাটি পড়েনি। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ৮৩৫ কিলোমিটার এই বাঁধের জন্য ২০ লাখ ২১ হাজার ৬১৫ টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হয়। প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য রুবেল মিয়া। তিনি মুঠোফোনে জানান, মাটির সুবিধা না থাকায় কাজ শুরু করতে বিলম্ব হয়েছে। মাটি কাটার যন্ত্র প্রকল্প এলাকায় এনেছি নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ হবে। এছাড়াও নলুয়ার হাওরের ৮ নম্বর প্রকল্প হালেয়ার মুখ থেকে ডুমাখালী পর্যন্ত কাজ শুরু হয়েছে দুই দিন আগে। ১০, ১১, ১২, ১৩ নম্বর প্রকল্পে কাজ কয়েক দিন ধরে চললেও প্রকল্প এলাকার অধিকাংশ জায়গায় মাটি পড়েনি। ৫, ৬ ও ৭ নম্বর প্রকল্পে মাটি পড়লেও কাজ ধীরগতিতে হচ্ছে।

৬ নম্বর প্রকল্পর সভাপতি আহমেদ আলী বলেন, আমার প্রকল্পের মাটির কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। আশা করছি নির্ধারিত সময়ের আগে শতভাগ শেষ করতে পারব। ১১ নম্বর প্রকল্পের কাজ বন্ধ পাওয়া যায়। প্রকল্পের সভাপতি মফিজ আলী জানান, মাটি পেতে সমস্যা হওয়ায় কাজ বন্ধ রয়েছে। ৫০০ ফুটের মধ্যে ২৫০ ফুটের কাজ করা  হয়েছে।

কৃষক ও পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র জানায়, জগন্নাথপুর উপজেলায় এবার ৩৩টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির মাধ্যমে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণ সংস্কার কাজ করা হচ্ছে। তাঁর মধ্যে নলুয়ার হাওরে ২৪ টি প্রকল্প রয়েছে। বরাদ্দ পাওয়া গেছে চার কোটি আট লাখ টাকা। নিয়ম অনুযায়ী ১৫ ডিসেম্বর কাজ শুরু করে ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে কাজ শেষ করার কথা।

হাওর বাঁচাও আন্দোলন জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা নির্মল কান্তি দাস বলেন, হাওরের কাজ শুরু সময় থেকে দেড়মাস অতিবাহিত হলেও কাজের অগ্রগতি সন্তোষজনক নয়। তিনি বলেন, হাওরে অকাল বন্যার শঙ্কা রয়েছে। অনেক প্রকল্পে কাজ শুরু না হওয়ায় আমরা এবার চিন্তিত।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ সহকারী প্রকৌশলী সবুজ কান্তি শীল জানান, হাওরে কাজের অগ্রগতি সন্তোষজনক। সব প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। সার্বক্ষণিক নজরদারি রাখছি। জগন্নাথপুরের ইউএনও আল বশিরুল ইসলাম বলেন, ২৯ জানুয়ারি পর্যন্ত কাজের অগ্রগতি ৪০ শতাংশ ছিল। আমরা কাজের গতি বাড়াতে পিআইসির দায়িত্বশীলদের তাগিদ দিয়ে যাচ্ছি

শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩
Design & Developed By ThemesBazar.Com
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com