মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:৫১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
অধ্যক্ষকে পানিতে নিক্ষেপ: ছাত্রলীগের আরো পাঁচজন গ্রেফতার নবীজীর কাছে যে সকল বেশে হাজির হতেন জিবরাইল (আ.) অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে পণ্য পরিবহন মালিক শ্রমিক লবনের গুজব জগন্নাথপুরের সর্বত্রজুড়ে,ক্রেতা সামলাতে না পেরে দোকান বন্ধ, চলছে মাইকিং জগন্নাথপুর বাজারে লবন নিয়ে গুজব জগন্নাথপুরে আমনের ফলনে কৃষক খুশি জগন্নাথপুরে দুই মেধাবী শিক্ষার্থীর সহায়তায় এগিয়ে এলেন লন্ডন প্রবাসী মোবারক আলী জগন্নাথপুরে ৬ দিন ধরে মাদ্রাসার নৈশ্য প্রহরী নিখোঁজ জগন্নাথপুরে দ্রব্য মূল্য নিয়ন্ত্রনে বাজার মনিটরিংয়ে দাবি পাঁচ দেশে নারীকর্মী পাঠানো বন্ধ চেয়ে হাইকোর্টে রিট

জগন্নাথপুর পৌর কার্যালয়ের পাশে ময়লার ভাগাড়!

বিশেষ প্রতিনিধি::
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ২৬০ Time View

জগন্নাথপুর পৌরসভার কার্যালয়ের পাশে ময়লা আবর্জনার ভাগাড়! মশা প্রজননে সহায়ক হচ্ছে এই ভাগাড়। এছাড়া পচা দুর্গদ্ধ ছড়িয়ে পড়ছে চারপাশে।
 সরেজমিনে দেখা যায়, পৌরশহরের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া নলজুর নদীর ওপর নির্মিত প্রধান সেতুর পশ্চিমাংশে সেতুর মুখে ময়লা-আবর্জনার স্তুপ পড়ে আছে। এই ময়লার ভাগাড়ের পাশেই জগন্নাথপুর পৌরসভার অস্থায়ী কার্যালয়। এখানে থেকে প্রায় দুইবছর ধরে পৌরসভার কার্যক্রম চলছে।
স্থানীয়রা জানান, শহরের প্রধান নলজুর নদীর সেতু দিয়ে প্রতিনিয়ত শত শত যানবাহন শহরে চলাচল করছে। এই সেতু দিয়েই শহরে প্রবেশ করতে হয়। শহরের পশ্চিম ও পূর্বাংশের লোকজন প্রতিদিন সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, স্কুল, কলেজ প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন দাপ্তরিক কাজের পাশাপাশি প্রয়োজনীয় কাজে প্রতিদিন যাতায়াত করছেন ওই সেতু দিয়ে। সেতুটির দুই মুখেই ময়লা আবর্জনার স্তুপ রয়েছে। এসব আর্বজনা থেকে দুর্গদ্ধ ছড়াচ্ছে শহরে। দূষিত হচ্ছে নদী। ময়লার ভাগাড়ে পড়ে থাকা পলিথিনে পানি জমে মশা প্রজননে সহায়ক হয়ে ওঠছে। নির্মাণাধীন পুরান পৌরসভার কার্যালয়ের সামনে বৃষ্টির পানি ও পচা আবর্জনা জমে আছে অনেকদিন ধরে।
পৌরশহরের স্থায়ী বাসিন্দা মুজিবুর রহমান বলেন, শহরের প্রবেশদ্বারের জনগুরুত্বপূর্ণ এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে পচা ময়লা আবর্জনার ভাগাড় সৃষ্টি হয়েছে। এসব আবর্জনা পরিস্কার করা হয় না। এজন্য পচা দুর্গন্ধে পরিবেশ দূষিতকরণের সঙ্গে জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে পড়েছে। আবর্জনায় পড়ে থাকা পলিথিনের ব্যাগের জমে থাকা পানিতে জন্ম নিচ্ছে মশা।
আরেক নাগরিক জয়দ্বীপ সুত্রধর বীরেন্দ্র জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমে আশানরূপ পদক্ষেপ নেই পৌর কর্তৃপক্ষের। এখনও গুরুত্বপূর্ণ একাধিকস্থানে ময়লার স্তুপ পড়ে আছে। এসব আবর্জনা থেকে মশা প্রজনন হচ্ছে। সেই সঙ্গে জনস্বাস্থ্যের ক্ষতির কারণ হয়ে উঠেছে।
জগন্নাথপুর পৌর সচিব মোবারক হোসেন জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এক দুই দিনের মধ্যে ময়লা আবর্জনা পরিস্কার করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24