বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরের কৃতি সন্তান অতিরিক্ত সচিব শিশির রায় আর নেই জগন্নাথপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের টের পেয়ে পেঁয়াজ ১৭০ থেকে নেমে এলে ১২০ টাকা কেজি জগন্নাথপুর উপজেলাকে মাদকমুক্ত করতে মতবিনিময়সভা অধ্যক্ষকে পানিতে নিক্ষেপ: ছাত্রলীগের আরো পাঁচজন গ্রেফতার নবীজীর কাছে যে সকল বেশে হাজির হতেন জিবরাইল (আ.) অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে পণ্য পরিবহন মালিক শ্রমিক লবনের গুজব জগন্নাথপুরের সর্বত্রজুড়ে,ক্রেতা সামলাতে না পেরে দোকান বন্ধ, চলছে মাইকিং জগন্নাথপুর বাজারে লবন নিয়ে গুজব জগন্নাথপুরে আমনের ফলনে কৃষক খুশি জগন্নাথপুরে দুই মেধাবী শিক্ষার্থীর সহায়তায় এগিয়ে এলেন লন্ডন প্রবাসী মোবারক আলী

পুনর্বাসনের সাথে দুর্নীতির বিষয়েও সোচ্চার হলেন মন্ত্রী-এমপিগণ

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৮ এপ্রিল, ২০১৭
  • ৩৫ Time View

স্টাফ রিপোর্টার
অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি বলেন,‘সুনামগঞ্জসহ হাওরাঞ্চলের দুর্যোগের বিষয়ে সরকার প্রধান অবগত রয়েছেন। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ ব্যক্তি দু’দিন ধরে ঘুরে ঘুরে মানুষের দুর্দশা দেখছেন। ১৯ তারিখে ত্রাণ ও দুর্যোগমন্ত্রী আসবেন। তিনি বলেন,‘সরকারের সক্ষমতা অতিথের সকল রেকর্ড ভঙ্গ করেছে। আমরা ভীত নই। সরকার সকল ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে থাকবে।’
এমএ মান্নান বলেন,‘কিছু দুর্নীতিবাজ দরিদ্র মানুষের মুখের গ্রাসও কেড়ে নেয়, দুর্যোগ নিয়ে ব্যবসা করে। এসব ঠেকাতে সরকার পদক্ষেপ নিয়েছে, নিচ্ছে। ১০ টাকার চালের ব্যবস্থা আগামী ফসল তোলার মৌসুম পর্যন্ত চালিয়ে যেতে হবে। ওএমএস’র চাল বিক্রয় ইউনিয়ন পর্যন্ত নিয়ে যেতে হবে।’
তিনি বলেন,‘বঙ্গবন্ধু’র সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা যে পরিশ্রম করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে এসেছি।
সেভাবেই সুস্থ্য, বিজ্ঞানমনস্ক জাতি গঠনে আপনারা আমাদের সহায়তা করুন, ধৈর্য্যরে সঙ্গে আমরা সবকিছুই মোকাবিলা করবো। এবারের দুর্যোগ একটি অঞ্চলের, অন্য অঞ্চলে বাম্পার ফলন হয়েছে। সুতরাং এই দুর্যোগ কাটানো কঠিন কোন বিষয় নয়।’
সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক বলেন,‘দায়ী সকলের বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নিতে হবে। সেটি ঠিকাদার বা পিআইসি যেই হোক না কেন।’ তিনি বলেন,‘আমরা ভুতের মুখে রাম নাম শুনতে চাই না। চোর যখন পালায় তখন সে নিজেও বলে চোর যায়, চোর যায়।’ তিনি বলেন,‘জননেত্রী শেখ হাসিনা গোপালগঞ্জ এবং সুনামগঞ্জকে অভিন্নভাবে দেখেন। হাওরের এই দুর্যোগ মোকাবেলায় হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণার দাবি জানান তিনি। হাওরের জলমহাল এবার উন্মুক্ত রাখার দাবি জানান তিনি।
ড. জয়া সেন গুপ্তা এমপি বলেন,‘সুনামগঞ্জের মানুষ যখন হতাশায়-অন্ধকারে ডুবে যাচ্ছিল, তখন মহামান্য রাষ্ট্রপতি আপনার আগমন নতুন করে আশা জাগিয়েছে। দুর্ভোগের আশু সমাধান হচ্ছে, খাবার সরবরাহ করতে হবে। খাদ্য সরবরাহের বণ্টনও সুষম হওয়া চাই। প্রতি ওয়ার্ডে ওএমএস’র ডিলার দিতে হবে। কৃষি ঋণের সুদ কেবল নয় কৃষি ঋণ মওকুফ করতে হবে। একই ধরনের সংকটের মুখোমুখী যাতে আগামীতে না হই আমরা, সেজন্য এবারের দুর্নীতির উপযুক্ত তদন্ত করতে হবে। তিনি বলেন,‘প্রাণশক্তিতে ভরপুর জনগণকে নিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।’
ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপি বলেন,‘ঠিকাদার ও পিআইসি যারাই দুর্র্র্নীতি করেছে, তাদের মাথা থেকে আমাদের হাত সরিয়ে নিতে হবে। দুর্নীতিবাজকে দুর্নীতিবাজ হিসাবেই দেখতে হবে। এই ব্যাপারে সকলের ঐক্যবদ্ধ হওয়া প্রয়োজন।’
অ্যাড. পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ্ এমপি বলেন,‘সকল স্কুল শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তির আওতায় আনতে হবে। এনজিও ঋণের কিস্তি আদায় বন্ধ করতে হবে। ভাসান পানিতে মাছ ধরার ব্যবস্থা করতে হবে। গৃহ নির্মাণের ব্যবস্থা করতে হবে। দুর্নীতিবাজ পাউবো কর্মকর্তা ঠিকাদার-পিআইসি’র শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।’
অ্যাড. শামছুন নাহার বেগম শাহানা বলেন,‘পাউবো কর্মকর্তা, ঠিকাদার-পিআইসি যারাই দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত শাস্তি পেতে হবে। ফসল রক্ষা বাঁধে হরিলুট বন্ধ করতে হবে।’ তিনি সুনামগঞ্জ শহরকে নদী ভাঙন থেকে রক্ষার দাবি জানান।
রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক এমপি বলেন,‘পাউবো, হাওর উন্নয়ন বোর্ড, বিএডিসি কারো প্রতি মানুষের আস্থা নেই। নদী খনন কাজে সেনাবাহিনীকে যুক্ত করতে হবে।’ সূত্র- সুনামগঞ্জের খবর

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24