1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
যারা মানুষের হক মেরে খায় তারা প্রকৃত মানুষ নয়- এম এ মান্নান - জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর
বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৩২ পূর্বাহ্ন

যারা মানুষের হক মেরে খায় তারা প্রকৃত মানুষ নয়- এম এ মান্নান

  • Update Time : রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ৭১ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক-

সাবেক পরিকল্পনামন্ত্রী, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এম এ মান্নান এমপি বলেছেন, আইন আছে, কিন্তু সেগুলো গরিব মানুষের জন্য, বড়লোকেরা বিভিন্নভাবে আইনের হাত থেকে রক্ষা পায়। গ্রামের গরিব অসহায় মানুষগুলো সেই আইনের ফাঁকে পড়ে কষ্ট ভোগ করেন। আমাদের সবার আগে মানুষ হতে হবে, মানবিক মানুষ হতে হবে। কোমল হৃদয়ের মানুষ হতে হবে। পশু—পাখি সবার প্রতি মানুষ হিসেবে সদয় থাকতে হবে। তাহলেই সমাজ থেকে অন্যায় অবিচার দূর হবে।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় শান্তিগঞ্জ উপজেলার ডুংরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে মাছরাঙা অডিটোরিয়ামে উত্তরণ ক্লাবের আয়োজনে এম এ মান্নান প্রাথমিক মেধাবৃত্তির পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ধনী ব্যক্তিরা গরিব অসহায় মানুষকে ঠকিয়ে আরও বড়লোক হতে চায় উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ধনীরা সম্পদের পাহাড় বানিয়ে এই পৃথিবীতে চলাফেরা করেন। একটি বারও ভাবেন না, এই সম্পদ দিয়ে কি হবে? মরার পরে কেউ সম্পদ নিয়ে ঐ পাড়ে যেতে পারেন না। আমাদের আরও ভাবতে হবে। যারা মানুষের হক মেরে খায় তারা প্রকৃত মানুষ নয়।

আমার পৈতৃক ভিটা সরকারের নামে দান করেছি উল্লেখ করে এমএ মান্নান বলেন, সেখানে একটি ভোকেশনাল টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট নির্মাণ করা হয়েছে। এখন আমার অবশিষ্ট যে ৩৫—৪০ কেদার জমি আছে সেগুলোও আজ আমি দান করে যাচ্ছি এমএ মান্নান প্রাথমিক মেধাবৃত্তির নামে। যেন আমি মারা যাওয়ার পরে এই মেধাবৃত্তির কার্যক্রম থেমে না থাকে। এখন আমার আর কিছুই রইল না। আমি মুক্ত, নিজেকে এখন খুব হালকা লাগছে। শান্তিগঞ্জে এখন একটি টিনশেড বাড়ি আছে, সেটিতে আমার একমাত্র ছেলে থাকবে। আপনারা যদি তাকে সেই সুযোগ দেন, তাহলে সে আপনাদের পাশে থাকবে। চলে গেলে, পিতা হিসেবে তার কাছে আমার অনুরোধ সেই বাড়িটিও যেন কোন ভালো কাজে সে দান করে দেয়। আমার আর কিছু নাই। চাওয়া পাওয়াও নাই। আমার মৃত্যুর পরে যেন, আমার কবরটিও আমার গ্রামের বাড়িতে হয় সেই অনুরোধটুকুও রইল সবার প্রতি।
ডুংরিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মদন মোহন রায়’র সভাপতিত্বে এবং শিক্ষার্থী সাইমা ইসলাম ও তাহসিন আহমদের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডুংরিয়া উত্তরণ ক্লাব সভাপতি মনিরুজ্জামান সুজন বারী।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সমর চন্দ্র পাল, শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুকান্ত সাহা, জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বশিরুল ইসলাম, সুনামগঞ্জ জেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মাহবুব জামান, এম এ মান্নানের পুত্র সাদাত মান্নান অভি, শান্তিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী মোক্তাদির হোসেন।

অনুষ্ঠান শেষে শান্তিগঞ্জ, জগন্নাথপুর ও সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার বৃত্তিপ্রাপ্ত ৭৫ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে সার্টিফিকেট ও পুরস্কারসামগ্রী তুলে দেন এম এ মান্নান এমপি।

শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩
Design & Developed By ThemesBazar.Com