1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
যুক্তরাজ্যে জগন্নাথপুরের রেস্তোরাঁয় কাজ করতেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক - জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৪৩ অপরাহ্ন

যুক্তরাজ্যে জগন্নাথপুরের রেস্তোরাঁয় কাজ করতেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক

  • Update Time : শুক্রবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২২
  • ১১০৫ Time View

ছাত্রজীবনে সাউদাম্পটনে বাংলাদেশি মালিকানাধীন একটি রেস্তোরাঁয় কাজ করতেন যুক্তরাজ্যের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। ‘কুটিস ব্রাসারি’ নামের ওই রেস্তোরাঁর মালিক কুটি মিয়া। তার বাড়ি সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে। কলেজে পড়াকালীন কুটিস ব্রাসারিতে ওয়েটার হিসেবে কাজ করতেন ঋষি।

প্রথম হিন্দু ও মিশ্র বর্ণের ব্যক্তি হিসেবে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী হয়ে ইতিহাস গড়েছেন দেশটির সাবেক অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাক।

৪২ বছর বয়সী ঋষি ইংল্যান্ডের সাউদাম্পটনে একটি হিন্দু-পাঞ্জাবি পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ছাত্রজীবনে সাউদাম্পটনে বাংলাদেশি মালিকানাধীন একটি রেস্তোরাঁয় কাজ করতেন তিনি।

‘কুটিস ব্রাসারি’ নামের ওই রেস্তোরাঁর মালিক কুটি মিয়া। তার বাড়ি সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে।

কলেজে পড়াকালীন কুটিস ব্রাসারিতে ওয়েটার হিসেবে কাজ করতেন ঋষি।

এমন তথ্য জানিয়ে কুটি মিয়া বলেন, ‘যুক্তরাজ্যের সব শিক্ষার্থীই পেশাগত অভিজ্ঞতা অর্জন ও ছুটি কাটাতে ছাত্রজীবনেই বিভিন্ন পেশায় যুক্ত হন। ঋষি সুনাকও অভিজ্ঞতা অর্জনে আমার রেস্তোরাঁয় নব্বইয়ের দশকের শেষের দিকে কিছুদিন কাজ করেন।’

কুটি বলেন, ‘তখন ঋষি কলেজে পড়তেন। কলেজ ছুটি চলাকালীন সপ্তাহে দুই দিন তিনি রেস্তোরাঁয় ওয়েটার হিসেবে খণ্ডকালীন কাজ করতেন।’

ঋষি নব্বইয়ের দশকের শেষের দিকে রেস্তোরাঁয় কাজ করতেন জানালেও নির্দিষ্ট করে কোনো সাল মনে করতে পারেননি কুটি মিয়া।

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী গ্র্যাজুয়েশন করেন ২০০৩ সালে। ১৯৯৮-৯৯ সালের দিকে তিনি ওই রেস্তোরাঁয় কাজ করে থাকতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ঋষির দাদা রামদাস সুনাক চাকরিসূত্রে পাকিস্তানের গুজরানওয়ালা ছেড়ে ১৯৩৫ সালে কেনিয়ার নাইরোবিতে চলে যান। রামদাস ও সুহাগ দম্পতির ৬ সন্তান (৩ ছেলে ও ৩ মেয়ে)।

ঋষির বাবা যশবীর সুনাক চিকিৎসাবিজ্ঞানে লেখাপড়ার জন্য ১৯৬৬ সালে লিভারপুলে চলে আসেন। এরপর ১৯৮০ সালে সাউদাম্পটনে ঋষির জন্ম হয়।

চিকিৎসাজনিত কারণেই যশবীর সুনাকের সঙ্গে পরিচয় হয় যুক্তরাজ্যের প্রতিষ্ঠিত রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ী কুটি মিয়ার। এরপর তাদের মধ্যে সখ্য গড়ে ওঠে।

ঋষির বাবা যশবীর সুনাককে বন্ধু হিসেবে উল্লেখ করে কুটি মিয়া জানান, বাবার (যশবীর) সঙ্গে পরিচয়ের সূত্র ধরেই ঋষি তার রেস্তোরাঁয় কাজ করতে আসেন।

কাজের ব্যাপারে ঋষি খুব মনোযোগী ছিলেন জানিয়ে কুটি মিয়া বলেন, ‘অসাধারণ ভালো মানুষ তিনি। খণ্ডকালীন কাজ হলেও তিনি কাজে খুব সিরিয়াস ছিলেন। তরুণ বয়স থেকেই কাজের প্রতি তার একাগ্রতা ছিল।’

কুটি মিয়া বলেন, ‘আমি এসব কথা বলতে চাইনি, কিন্তু এখন এটা বলছি, যাতে এখানকার অভিবাসীরা ঋষির জীবন থেকে শিক্ষা নিতে পারে। যদি অভিবাসীরা তাদের সন্তনদের ভালো শিক্ষা দিতে পারেন, তাহলে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পদেও আরোহণ করা সম্ভব।’

ঋষি সুনাক তার বিভিন্ন সাক্ষাৎকারেও কুটিস ব্রাসারিতে কাজের কথা উল্লেখ করেছেন। যুক্তরাজ্যের একটি সংবাদমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে রেস্তোরাঁয় কাজের কথা উল্লেখ করে ঋষি বলেন, ‘রেস্তোরাঁয় কাজের অভিজ্ঞতা খুব ভালো ছিল। নিজে খাবারের অর্ডার নেয়া থেকে শুরু করে খাবার পরিবেশন, টেবিল পরিষ্কারের মতো সব কাজই করতাম। কাজটি সহজ ছিল না।’

গত ২৫ অক্টোবর বাকিংহাম প্যালেসে যুক্তরাজ্যের রাজা তৃতীয় চার্লসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ঋষি সুনাক। এরপর রাজপ্রাসাদ কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে জানায়, ঋষি সুনাককে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন রাজা তৃতীয় চার্লস।

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ায় ঋষি সুনাককে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দুই দেশের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নিতে নতুন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার ইচ্ছাও পোষণ করেছেন তিনি





শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩
Design & Developed By ThemesBazar.Com
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com