1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:১৩ পূর্বাহ্ন

জগন্নাথপুরে সংবাদ সম্মেলন অভিযোগ, সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় মিথ্যা মামলা ও প্রাণনাশের হুমকি

  • Update Time : শনিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ১০৬৬ Time View

স্টাফ রিপোর্টার::

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় প্রতিবাদকারীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠেছে।

আজ শনিবার (১৬ অক্টোবর) দুপুরে পৌরসভার ইসহাকপুর এলাকার বাসিন্দা বদরুল ইসলাম জগন্নাথপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেছেন।

তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, ইসহাকপুরের বাসিন্দা যুক্তরাজ্য প্রবাসী উস্তার গণি’র সন্ত্রাসী বাহিনীর অস্ত্রের ঝলঝনানিতে কম্পিত হয়ে ওঠেছে এলাকা। প্রকাশ্য দিনদুপুরে তাদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে শান্ত গ্রাম এখন অশান্ত হয়ে ওঠেছে। এই বাহিনীর অন্যায় অত্যাচারে এলাকার নীরিহ জনসাধারণ আতংকিত হয়ে পড়েছেন।  তাদের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করতে পারছেন না। আর কেউ যদি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হন তাহলে তাদের রোষানলে পড়তে হয়। তাদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করায় আমি সহ নীরিহ গ্রামবাসীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে।

বদরুল ইসলাম বলেন, ইসহাকপুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির তিনবারের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি আামি। সভাপতি থাকাকালীন এলাকার শিক্ষা উন্নয়নের পাশাপাশি বিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়নে প্রাণপণ চেষ্টা করেছি। দায়িত্ব পালনকালে স্কুল পর্যায়ে বির্তক প্রতিযোগিতায় ইসহাকপুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় সারাদেশের মধ্যে রানার্স আপ হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। উপজেলার মধ্যে তিনবার শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় হিসেবে নির্বাচিত হয় বিদ্যালয়টি। এছাড়া বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ভালো ফলাফল  করে আসছে। সাম্প্রতিককালে স্বনামধন্য ঐতিহ্যবাহী এ বিদ্যালয়ের দিকে নজর পড়েছে এলাকার ওই সন্ত্রাসী বাহিনীর।

গত ৮ সেপ্টেম্বর  ইসহাকপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে গ্রামবাসীর উন্নয়ন সভা চলাকালে উস্তার গণি, শাহ নুরুল করিম, জিল্লুল করিম, খলিলুর রহমান গংদের নেতৃত্বে ওই সভায় হামলা চালিয়ে মিটিং বানচাল করে দেয়া হয়। এতে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হলেও সন্ত্রাসীদের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না। গ্রামবাসীর পক্ষে প্রতিবাদ করায় আমার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসীরা অপ্রচার চালাচ্ছে এবং  আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়। এমনকি আমাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন. গত ৫ অক্টোবর আমার বাড়ীতে একটি সামাজিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠান থেকে অতিথিরা ফেরার পথে ওই সন্ত্রাসী বাহিনী অবৈধ অস্ত্রে-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলার চালায়। ওই হামলার অংশ নেওয়া অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের একটি ভিডিও ফুটেজ একই গ্রামের  নিজামুল করিমের বাড়ীর সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে। ওই ভিডিও ফুটেজ ইতিমধ্যে থানা পুলিশে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ বিষয়ে জগন্নাথপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। এদিকে ওইদিনের সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের মহড়ার  ভিডিও দৃশ্যের খবর জানাজানি হয়ে গেলে সন্ত্রাসীরা ঘটনাটি ভিন্ন খাতে আড়াল করতে উল্টো প্রতিবাদী মানুষেদের ফাঁসাতে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের এই ষড়যন্ত্রের শিকার আমিসহ গ্রামের সাধারণ মানুষ। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ভিত্তিহীন অভিযোগ আনা হয়েছে। আমি একটি গণসংগঠনের রাজনীতির সঙ্গে সক্রিয়ভাবে জড়িত আছি। রাজনীতির পাশাপাশি আর্থ সামাজিক উন্নয়নে আমার প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।

তিনি অভিযোগ করেন, ১৯৯৩  সালে সন্ত্রাসী কার্যকলাপের জন্য উস্তার গনি কে তিন মাসের ডিটেনশনে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছিল। কারাভোগের পর সে যুক্তরাজ্যে চলে গেলেও তাঁর সন্ত্রাসী বাহিনীর তৎপরতা থামেনি। উস্তার গনি দেশে ফিরলেই আবার ওই সন্ত্রাসী বাহিনী মাথা ছাড়া দিয়ে ওঠে। উস্তার গণির অন্যতম সহযোগি ভূমিখেকো ইসহাকপুর গ্রামের নুরুল করিম, জিল্লুল করিম, খলিলুর রহমান গংরা সরকারী ভূমি দখল করে ভোগদখল করে আসছে। ইতিমধ্যে ভবের বাজারের ফুটবল খেলার মাঠ নুরুল করিম দখল করলে স্থানীয় গ্রামবাসীর বাঁধার মুখে দখল ছাড়তে বাধ্য হয়। তবে এখনও দখলের চেষ্ঠা চালাচ্ছেন তিনি । সম্প্রতি সরকারী ভূমি থেকে ৬টি গাছ কেটে বেআইনি ভাবে বিক্রি করেছেন নুরুল করিম গংরা। এ ব্যাপারে জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিকট লিখিতভাবে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

এই সন্ত্রাস বাহিনীর আরেক সহযোগী  খলিলুর রহমানের ছেলে শাহিনুর রহমান একজন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী। পুলিশ অস্ত্রসহ তাকে গ্রেপ্তার করেছিল। এছাড়া এ বাহিনীর আব্দুল মুতলিবের ছেলে রশিদ আহমদও অস্ত্রসহ পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়। গত ৫ অক্টোবর রশিদ আহমদ অবৈধ বন্দুক দিয়ে এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। যা সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে। এই সন্ত্রাসী গ্রুপের কাছে এলাকার মানুষ জিম্মি হয়ে পড়েছেন। এ বাহিনীর সদস্য  খলিলুর রহমান পৌর কাউন্সিলর থাকাকালে গ্রামের বেড়িবাঁধের ৩০ হাজার টাকা এখনও পরিশোধ করেননি। এ টাকা মসজিদ উন্নয়ন তহবিলে জমা দেওয়ার কথা থাকলেও আজ অবধি তিনি টাকা দেন নি। সন্ত্রাসীদের চক্রের কুখ্যাত সন্ত্রাসী আজাদ মিয়া, হারুন মিয়া ও ইমরান মিয়ার বিরুদ্ধে তাঁর চাচাতো ভাই সুহেল বাদী হয়ে জগন্নাথপুর থানায় চাঁদাবাজির মামলা করেন। এ মামলায় আজাদ ও হারুন দীর্ঘদিন কারাগারে ছিলেন। এ ঘটনায় আজাদ গংরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাই চাচাতো ভাই সাজ্জাদ মিয়ার ওপর হামলা চালিয়ে তাঁর পা ভেঙে দেয়।

ওই চক্রের জমসেদ মিয়ার ছেলে সুহেল মিয়া, সমছু মিয়ার ছেলে আজাদ, আলতাব আলীর ছেলে  মতছির আলী, সিকন্দর মিয়ার ছেলে হুসেন আলী, আক্তার হোসেনের ছেলে দিলু মিয়া, দলীল মিয়ার ছেলে লিটন মিয়া, আলতাব উল্লার ছেলে মনোয়ার হোসেন, আনোয়ার হোসেন,আকবর আলীর ছেলে আবুল, ফিরোজ মিয়ার ছেলে মাহমুদ আলী, বসির মিয়ার ছেলে আব্দুল মানিক, ছমির মিয়ার ছেলে লেবু মিয়া, শাহিন, জসিম, গনি মিয়ার ছেলে মতিন, হরমুজ আলীর ছেলে মজিদ, মতিন মিয়ার ছেলে আকলাকুর, গনি মিয়ার ছেলে আব্দুল মজিদের কাজের সহযোগিরা এলাকার সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করতে চায়। তাদের অন্যায় অত্যাচারের বিরুদ্ধে কথা বলায় উল্টে নিরপরাধ মানুষ কে হয়রানীর শিকার হতে হয়। ওই চক্রের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডসহ বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় আমিসহ গ্রামের সাধারণ জনগণের বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে।

এই সন্ত্রাসী গ্রুপের আরেক হোতা যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আব্দুল কাহারের বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ অবৈধ অস্ত্রসহ ১০ থেকে ১৫ জন সন্ত্রাসী কে গত দুই বছর আগে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠায়। আমরা শান্তিপ্রিয় এলাকাবাসী সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় এনে গ্রামে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

সংবাদ সম্মেলনে  উপস্থিত ছিলেন, ইসহাকপুর গ্রামের আব্দাল হোসেন লেচু, দিলতাজ মিয়া, রফিকুল করিম, প্রবাসী জিয়াউর রহমান,আব্দুল হাফিজ, ছায়াদ আলী, সমসর উদ্দিন, রায়হান উদ্দিন, নোমান মিয়া, আব্দুল মোমিন, রুবেল মিয়া প্রমুখ।

এ বিষয়ে জানতে যুক্তরাজ্যপ্রবাসী উস্তার গণির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি তাঁর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রনীত বলে দাবী করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১
Design & Developed By ThemesBazar.Com
%d bloggers like this: