শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বোরকা পরে সমাবর্তনে যাওয়ায় প্রথম হয়েও স্বর্ণপদক পেলেন না নিশাত জগন্নাথপুরে কাল শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ থাকবে না মিরপুরে প্রতীক বরাদ্দের আগেই প্রচারণায় প্রার্থীরা! জগন্নাথপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে টমটম চালকের আত্মহত্যা জগন্নাথপুরে শিল্পকলা একাডেমির সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুর বাজারকে সিসি ক্যমেরার আওতায় আনতে মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে বিদ্যালয় সমূহে পরিছন্নতা সামগ্রী ও প্রচারপত্র বিতরণ কার্যক্রম শুরু রাতভর ৪ ক্যাসিনোতে অভিযান নারায়ণগঞ্জে মা ও দুই মেয়েকে গলা কেটে হত্যা যুক্তরাজ‌্যে বসবাসতরত জগন্নাথপুরের আ.লীগ পরিবারের মিলনমেলা

আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে ডিজিটাল পাঠ্যবই

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ৪ মে, ২০১৫
  • ৩৬ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক:: শিক্ষায় প্রযুক্তির ছোঁয়া আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই ষষ্ঠ শ্রেণিতে প্রচলিত পাঠ্যবইয়ের পাশাপাশি পরীক্ষামূলকভাবে ‘ইন্টারঅ্যাকটিভ ডিজিটাল টেক্সটবুক’ চালু করবে সরকার। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ রোববার রাজধানীর জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমিতে এক অনুষ্ঠানে এই তথ্য জানিয়ে বলেন, পর্যায়ক্রমে তা অন্য শ্রেণির জন্যও করা হবে।
মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিভিন্ন পাঠ্যকে সহজে বোঝাতে এবং আকর্ষণীয় ও সহজলভ্য করে তুলতে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের উপর গুরুত্বারোপ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী।
১৭ বছর পর শিক্ষাক্রমকে যুগোপযোগী করার বিষয়টি তুলে ধরে নাহিদ বলেন, এভাবেও চলবে না, নিত্যনতুন পরিবর্তনের বিষয়াদিও শিক্ষার্থীদের জানাতে হবে।
“বইকে আরও রঙিন ও আকর্ষণীয় করতে হবে। আমরা প্রচলিত পাঠ্যপুস্তকের পাশাপাশি সকল ক্লাসে ইন্টারঅ্যাকটিভ ডিজিটাল বই চালু করার উদ্যোগ নিয়েছি।”
টিকিউআই প্রকল্প আয়োজিত দুই দিনব্যাপী কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী জানান, বাংলাদেশের অভিজ্ঞ তথ্যপ্রযুক্তিবিদদের সহায়তায় শিক্ষক প্রশিক্ষণ কলেজের শিক্ষকদের দিয়ে ডিজিটাল বই করা হবে।
“প্রতিটি বইয়ের কঠিন শব্দ, বাক্য, বিষয় ইত্যাদি সহজে বোঝানোর জন্য শব্দার্থ, ব্যাখ্যা, অ্যানিমেশন, রঙিন ছবি ছাড়াও প্রয়োজনীয় ভিডিও যোগ করা হবে।”
এই অনুষ্ঠানে শিক্ষা সচিব নজরুল ইসলাম খান জানান, আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে ষষ্ঠ শ্রেণিতে সব বই ইন্টারঅ্যাকটিভ ডিজিটাল হবে।
“শিক্ষার্থীরা বিষয়গুলো নিজেরা আরও সহজভাবে বুঝতে পারবে, আগ্রহী শিক্ষার্থীরা অধিকতর জ্ঞান অর্জন করতে পারবে।”
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ফাহিমা খাতুনের সভাপতিত্বে টিকিউআই প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক বনমালী ভৌমিক, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র পাল, জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক হামিদুল হক বক্তব্য দেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24