রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
পড়াশোনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের নামাজ শেখানো হয় যে বিদ্যালয়ে পানির নিচে প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়ে মৃত্যু! সিলেটে চারদিনের রিমান্ডে পিযুষ যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ২ জগন্নাথপুরে ৩৯টি মন্ডপে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি,চলছে প্রতিমা তৈরীর কাজ জগন্নাথপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কমিটির বিরুদ্ধে অপপ্রচারে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে ৬ মাসেও বকেয়া টাকা মিলেনি, ঋণের চাপে দিশেহারা পিআইসিরা জগন্নাথপুরে ৬ মাসেও বকেয়া টাকা মিলেনি, ঋণের চাপে দিশেহারা পিআইসিরা বেড়াতে গিয়ে বাড়ি ফেরার পথে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল জগন্নাথপুরের এক যুবকের মাথায় ৪ ইঞ্চি লম্বা শিং এই বৃদ্ধের!

আ.লীগের অনৈক্যে জেলায় ছাত্রলীগ কমিটিবিহীন

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১১ জুলাই, ২০১৭
  • ১৪৯ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি
জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্তের চার মাস হলো আজ (মঙ্গলবার)। পূর্ণাঙ্গ বা আহ্বায়ক কমিটি কোনটিই হয়নি গত চার মাসে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের এক নেতা বলেছেন,‘আওয়ামী লীগের অনৈক্যের কারণে সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্র লীগের কমিটি হচ্ছে না। এই নেতা বললেন, যারা কমিটি’র নেতৃত্ব পেতে আগ্রহী তাদের বেশিরভাগেই সাধারণের কাছে অগ্রহণযোগ্য। এই জন্য কমিটি দেওয়া যাচ্ছে না। আমরা একটি ভাল কমিটি দিতে চাই, যেটি অনেক দিন চলবে’।
গত ১১ মার্চ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগ এবং সাধারণ সম্পাদক এস.এম জাকির হোসাইন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বাতিল করা হয়।
ঐ বিজ্ঞপ্তিতে সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে আগ্রহী প্রার্থীদেরকে ৪ দিনের মধ্যে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে জীবনবৃত্তান্ত জমা দেওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল।
জীবনবৃত্তান্ত সংগ্রহ করতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দারুস সালাম শাকিল, ক্রীড়া সম্পাদক চিন্ময় রায় এবং সহসম্পাদক মো মাসুদ পারভেজ তারেক সুনামগঞ্জে আসেন। এসময় এবং এর কয়েক দিনের মধ্যে ঢাকায় গিয়ে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ পেতে আগ্রহী ৭৫ জন ছাত্রলীগ নেতা বায়োডাটা জমা দেন।
সোমবার বিকালে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের একজন দায়িত্বশীল নেতা বলেন,‘সুনামগঞ্জের নেতৃত্ব পেতে আগ্রহীদের মধ্যে যারা বায়োডাটা জমা দিয়েছেন, তাদের বেশিরভাগেই উন্মুক্তের ছাত্র, মাদ্রাসার ছাত্র কিংবা ঢাকার কোন বেরসকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের
ছাত্র, এমনও আছে হয় নেশা করে, না হয় নেশা বিক্রি করে, মামলা মোকদ্দমায়ও জড়িত আছে।’ তিনি জানান, কিছু ভাল ছাত্র নেতারাও বায়োডাটা জমা দিয়েছে। কিন্তু জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব এক হতে না পারায়, আমরা কমিটি দিতে পারছি না’।
ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দারুস সালাম শাকিল বলেন, ‘দেশের ৬৪ জেলার কোথাও কমিটি করতে এতো বেশি সমস্যায় আমরা পড়িনি। এখানে জেলায় যারা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আছেন, তারা সকলেই নিজের লোককে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক দেখতে চান। পদ হচ্ছে দুটি। অথচ. সকলেই তাদের ব্যক্তিগত সমর্থককে চান। আমরা অপেক্ষা করছি, অন্তত. দুই বলয় থেকে দুই জনের নাম পেলে এবং তারা যদি ছাত্র সমাজের কাছে গ্রহণযোগ্য স্থানীয় কোন অনার্স বা ডিগ্রি কলেজের ছাত্র হয়, তাদেরকে গুরুত্ব দিয়ে ৪-৫ বছরের জন্য একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি করে দিতে।’
উল্লেখ্য, ২০১০ সালের অক্টোবরে সভাপতি ও সম্পাদকসহ ১০ জনের পদবি উল্লেখ করে ছাত্রলীগের সর্বশেষ কমিটি দেওয়া হয়েছিল। কমিটি ঘোষণার পর ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা মিছিল-সমাবেশ বিক্ষোভ করলেও শেষ পর্যন্ত ঐ কমিটির নেতৃত্বেই ছাত্রলীগের কার্যক্রম চলতে থাকে। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মতানৈক্য ছিল দীর্ঘদিন। অবশ্য, ২০১৩ সালের ১৪ এপ্রিল জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফজলে রাব্বি স্মরণ ও সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদ চৌধুরী ঐক্যবদ্ধভাবে জেলা ছাত্রলীগের ১৭১ সদস্যের কমিটি গঠন করেন। এই কমিটি নিয়েও বিভ্রান্তি ছিল।
গত ১১ মার্চ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের নির্দেশে সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ হলেও শেষ পর্যন্ত সম্মেলন হয়নি এবং ঐ দিনই কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ পত্রিকায় প্রেস বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বাতিল করে দেয়।
সুত্র-সুনামগঞ্জের খবর

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24