গাজীপুর নির্বাচনে বিশৃংঙ্খলা তৈরির নির্দেশ তারেক রহমানের

নিউজ ডেস্ক: গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর সম্ভাব্য পরাজয় বিবেচনা করে নির্বাচনের ফলাফল যেকোনভাবে নিজেদের পক্ষে আনার জন্য সব ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির নির্দেশনা দিয়েছেন লন্ডনে পলাতক বিএনপি নেতা তারেক রহমান। প্রয়োজনে রক্ত ঝরানোরও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। তবে তারেক রহমানের এমন কড়া নির্দেশ দু-পায়ে ঠেলে দিয়েছেন তৃণমূল থেকে সিনিয়র নেতৃবৃন্দ। সরকারের সুষ্ঠু নির্বাচন ব্যবস্থায় আস্থা রেখে নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে নিজেদের স্পষ্ট অবস্থান সম্পর্কে বার্তা দিয়েছে গাজীপুর বিএনপি নেতৃবৃন্দ। প্রয়োজনে পরাজয় মেনে নিবে তবুও বিশৃঙ্খলা করবে না স্থানীয় বিএনপি নেতৃবৃন্দ। জনগণের সাথে প্রতারণা বন্ধ করে সুষ্ঠু নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেই নিজেদের ভুল শুধরাতে চায় বিএনপি। কারণ তাদের মাঠে-ময়দানে রাজনীতি করতে হয়। এসি রুমে বসে রাজনীতি করার ভাগ্য তাদের নেই।

বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরের বিএনপির সাবেক মেয়র এম এ মান্নান জনপ্রিয়তা হারালে চমক সৃষ্টির জন্য টঙ্গীর পৌর মেয়র হাসান সরকারকে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি। সূত্র বলছে, লন্ডনে তারেক রহমানের কাছে টাকা পাঠানোর দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন হাসান। চুরি, দুর্নীতি, অনিয়ম, শৃঙ্খলাভঙ্গ ইত্যাদি কাজের জন্য জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিলেন মান্নান। এছাড়া মান্নান নিয়মিত চাঁদা পাঠাতেন না লন্ডনে। সব মিলিয়ে তাই হাসান সরকারকে বেছে নেন তারেক।

এই বিষয়ে বিএনপির এক জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, ধ্রুব সত্য হল, গাজীপুরে বিএনপির অবস্থান ভাল না। কারণ মেয়র মান্নান নিজ হাতে গাজীপুরে বিএনপির অবস্থান নষ্ট করেছেন। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিএনপির প্রার্থী হেরে যাবে। তাই নির্বাচনকে বানচাল করতে এবং যেকোন মূল্যে জয় ছিনিয়ে আনতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির নির্দেশনা দিয়েছেন তারেক রহমান। নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগ কর্মীদের টার্গেট করে হামলা, সাধারণ ভোটারদের মাঝে ত্রাস সৃষ্টি করে ভোট আদায় ও প্রয়োজনে রক্তপাত করে হলেও নির্বাচনে জয়ী হওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন তারেক রহমান।

এছাড়া প্রশাসনের কর্তাদের সাথে হাত মিলিয়ে ভোটকেন্দ্র দখল করার নির্দেশও দিয়েছেন তারেক রহমান। কিন্তু তারেক রহমানের অনৈতিক সব প্রস্তাবে সরাসরি না বলে দিয়েছে কেন্দ্রীয় বিএনপিসহ গাজীপুর নেতৃবৃন্দ। নির্বাচনে রক্তপাত বা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির কোনো অর্থ খুঁজে পাচ্ছে না বিএনপি নেতারা। বিএনপির ভরসা জনগণ। জনগণকে ভয় দেখিয়ে ভোট আদায় করতে পারবে না বিএনপি। কারণ জনগণ অলরেডি বিএনপিকে খুলনার নির্বাচনে প্রত্যাখ্যান করেছে।

সুতরাং বিশৃঙ্খলা করে নির্বাচন করা মানে ভবিষ্যৎ নষ্ট করা। লন্ডনে বসে ভার্চুয়াল যুদ্ধ করা যায়। মাঠে নামলেই নিদেজের শক্তি ও সমর্থন বোঝা যাবে। আপনি তারেক লন্ডনে এসি রুমে বসে অর্ডার দিবেন মারামারির আর নেতারা বোকার মতো মারামারি করে জেল খাটবে, নির্যাতন সহ্য করবে, তা হয় না। এসব বাদ দিয়ে সৎ রাজনীতি করতে হবে। তাহলেই জনগণ আগামীতে বিএনপিকে মাফ করে দিয়ে ভোট দিবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত দুই শতাধিক

» ‘জনপ্রশাসন পদক’ পেলেন সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো: সাবিরুল ইসলাম

» মৃত্যুের ৩২ বছর পরও লাশ অজ্ঞত!

» চিকিৎসকদের নৈতিকতা নিয়ে প্রশ্ন হাইকোর্টের

» জগন্নাথপুরে প্রভুপাদ শ্রীশ্রীকৃষ্ণ চরণ গোস্বামীর আর্বিভাব তিথি পালিত

» মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন ৩৮ বীরাঙ্গনা

» সংস্কারের অভাবে জৌলুস হারাচ্ছে জগন্নাথপুরের পাইলগাঁও জমিদারবাড়ী

» নিহত সন্তানদের দাফনের অধিকার দাবীতে ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভ

» ছাতকের সেই ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

» মৌলভীবাজারে মানবতাবিরোধী অপরাধে চারজনের মৃত্যুদন্ড

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

গাজীপুর নির্বাচনে বিশৃংঙ্খলা তৈরির নির্দেশ তারেক রহমানের

নিউজ ডেস্ক: গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর সম্ভাব্য পরাজয় বিবেচনা করে নির্বাচনের ফলাফল যেকোনভাবে নিজেদের পক্ষে আনার জন্য সব ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির নির্দেশনা দিয়েছেন লন্ডনে পলাতক বিএনপি নেতা তারেক রহমান। প্রয়োজনে রক্ত ঝরানোরও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। তবে তারেক রহমানের এমন কড়া নির্দেশ দু-পায়ে ঠেলে দিয়েছেন তৃণমূল থেকে সিনিয়র নেতৃবৃন্দ। সরকারের সুষ্ঠু নির্বাচন ব্যবস্থায় আস্থা রেখে নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে নিজেদের স্পষ্ট অবস্থান সম্পর্কে বার্তা দিয়েছে গাজীপুর বিএনপি নেতৃবৃন্দ। প্রয়োজনে পরাজয় মেনে নিবে তবুও বিশৃঙ্খলা করবে না স্থানীয় বিএনপি নেতৃবৃন্দ। জনগণের সাথে প্রতারণা বন্ধ করে সুষ্ঠু নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেই নিজেদের ভুল শুধরাতে চায় বিএনপি। কারণ তাদের মাঠে-ময়দানে রাজনীতি করতে হয়। এসি রুমে বসে রাজনীতি করার ভাগ্য তাদের নেই।

বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরের বিএনপির সাবেক মেয়র এম এ মান্নান জনপ্রিয়তা হারালে চমক সৃষ্টির জন্য টঙ্গীর পৌর মেয়র হাসান সরকারকে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি। সূত্র বলছে, লন্ডনে তারেক রহমানের কাছে টাকা পাঠানোর দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন হাসান। চুরি, দুর্নীতি, অনিয়ম, শৃঙ্খলাভঙ্গ ইত্যাদি কাজের জন্য জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিলেন মান্নান। এছাড়া মান্নান নিয়মিত চাঁদা পাঠাতেন না লন্ডনে। সব মিলিয়ে তাই হাসান সরকারকে বেছে নেন তারেক।

এই বিষয়ে বিএনপির এক জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, ধ্রুব সত্য হল, গাজীপুরে বিএনপির অবস্থান ভাল না। কারণ মেয়র মান্নান নিজ হাতে গাজীপুরে বিএনপির অবস্থান নষ্ট করেছেন। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিএনপির প্রার্থী হেরে যাবে। তাই নির্বাচনকে বানচাল করতে এবং যেকোন মূল্যে জয় ছিনিয়ে আনতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির নির্দেশনা দিয়েছেন তারেক রহমান। নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগ কর্মীদের টার্গেট করে হামলা, সাধারণ ভোটারদের মাঝে ত্রাস সৃষ্টি করে ভোট আদায় ও প্রয়োজনে রক্তপাত করে হলেও নির্বাচনে জয়ী হওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন তারেক রহমান।

এছাড়া প্রশাসনের কর্তাদের সাথে হাত মিলিয়ে ভোটকেন্দ্র দখল করার নির্দেশও দিয়েছেন তারেক রহমান। কিন্তু তারেক রহমানের অনৈতিক সব প্রস্তাবে সরাসরি না বলে দিয়েছে কেন্দ্রীয় বিএনপিসহ গাজীপুর নেতৃবৃন্দ। নির্বাচনে রক্তপাত বা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির কোনো অর্থ খুঁজে পাচ্ছে না বিএনপি নেতারা। বিএনপির ভরসা জনগণ। জনগণকে ভয় দেখিয়ে ভোট আদায় করতে পারবে না বিএনপি। কারণ জনগণ অলরেডি বিএনপিকে খুলনার নির্বাচনে প্রত্যাখ্যান করেছে।

সুতরাং বিশৃঙ্খলা করে নির্বাচন করা মানে ভবিষ্যৎ নষ্ট করা। লন্ডনে বসে ভার্চুয়াল যুদ্ধ করা যায়। মাঠে নামলেই নিদেজের শক্তি ও সমর্থন বোঝা যাবে। আপনি তারেক লন্ডনে এসি রুমে বসে অর্ডার দিবেন মারামারির আর নেতারা বোকার মতো মারামারি করে জেল খাটবে, নির্যাতন সহ্য করবে, তা হয় না। এসব বাদ দিয়ে সৎ রাজনীতি করতে হবে। তাহলেই জনগণ আগামীতে বিএনপিকে মাফ করে দিয়ে ভোট দিবে।

© 2018 জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

error: ভাই, কপি করা বন্ধ আছে।