মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৭:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে দু’পক্ষের বিরোধে বলীর শিকার শিশু সাব্বিরের খুনীরা এখনও ধরা পড়েনি জগন্নাথপুরে ৬০ কৃষক কৃষাণীদের প্রশিক্ষণ প্রদান জগন্নাথপুরে সনাক্তকারী ‘বহিরাগতদের’ বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের আবেদন প্রাণের চেয়েও প্রিয় মহানবী (সা.) সুনামগঞ্জে আ.লীগ নেতার ছেলে পিটালেন ডাক্তারকে সুনামগঞ্জ পৌর শহরে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে আহত ৩ জগন্নাথপুরে মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠানের উদ্যাগে সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান জগন্নাথপুর আ,লীগের সন্মেলন কে স্বাগত জানিয়ে সৈয়দপুর বাজারে মিছিল জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সন্মেলন ১ ডিসেম্বর জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে ফের বুধবার থেকে ধর্মঘট, এলাকায় মাইকিং

জগন্নাথপুরে বহিরাগতদের ভুয়া নাগরিক সনদ বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

বিশেষ প্রতিনিধি::
  • Update Time : বুধবার, ৯ অক্টোবর, ২০১৯
  • ৯৩৬ Time View

সুনামগঞ্জর জগন্নাথপুর উপজেলায় প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক পদে ২০১৮ সালের লিখিত পরীক্ষায় উর্ত্তীণ ভুয়া নাগরিক সার্টিফিকেট সংগ্রহকারী বহিরাগতের নাগরিক সনদপত্র বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করা হয়েছে। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহফুজুল আলম মাসুমের নিকট লিখিত স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
আজ বুধবার দুপুর ১২ টায় জগন্নাথপুরের সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে স্থানীয় পৌর পয়েন্টে মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করা হয়। এতে জগন্নাথপুরের স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, শিক্ষকসমাজ, সাংবাদিক, অভিভাবকবৃন্দ, লিখিত পরীক্ষায় উর্ত্তীণ প্রার্থীগনসহ সর্বস্তরের প্রায় তিনশতাধিক জনসাধারণ অংশ নেন।
শিক্ষক আলমগীর হোসেনের পরিচালনায় মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন জগন্নাথপুর পৌরসভার কাউন্সিলর শফিকুল হক, আবাব মিয়া, উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক হাজী আব্দুল জব্বার, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব,শিক্ষক রমেন্দ্র গোপ, বিজয় কৃষ্ণ ক্ষত্রিয়, রূপক কান্তি দেব, গোপাল চন্দ্র, শাহজাহান সিরাজী, নুরুল হক, অভিভাবকদের পক্ষে সাজ্জাদুর রহমান, কুতুব উদ্দিন, পৌর যুবলীগ নেতা আকমল হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাফরোজ ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল মুকিত, সহকারি শিক্ষক পদে লিখিত পরীক্ষায় উর্ত্তীণ মানববন্ধন বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি জগন্নাথপুরের স্থানীয় বাসিন্দা চাকুরিপ্রত্যাশি এম, শামিম আহমদ, সাইদুল রহমান, শের আলী, স্টুডেন্টস কেয়ার জগন্নাথপুর’র সভাপতি মাসুম আহমদ প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন, এবার জগন্নাথপুর উপজেলা থেকে প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক পদে ৫০১ প্রার্থী লিখিত পরীক্ষায় উর্ত্তীণ হয়েছেন। এরমধ্যে অধিকাংশ প্রার্থী অন্যজেলার লোক (বহিরাগত) রয়েছেন। তাঁরা স্থানীয় নাগরিক সেজে প্রতারণার মাধ্যমে ভুয়া নাগরিক সনদ নিয়ে চাকুরি নিতে তৎপর। এতে করে স্থানীয়রা তাদের নিজের অধিকার থেকে বঞ্চিত হতে হচ্ছেন। তাই এসব ভুয়া সার্টিফিকেট সংগ্রহকারী প্রতারকদের মৌখিক পরীক্ষা থেকে বাতিল করতে হবে। অন্যতায় জগন্নাথপুরের সন্তানদের ন্যায্য অধিকার বাস্তবায়নে আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।
মানববন্ধন বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি জগন্নাথপুর পৌরশহরের ইকড়ছই আবাসিক এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা সহকারি শিক্ষক পদে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ চাকুরীপ্রত্যাশি এম, শামিম আহমদ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে  বলেন, আগামী ২১ অক্টোবর থেকে সহকারি শিক্ষক পদে লিখিত পরীক্ষায় উর্ত্তীণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা শুরু হবে। তিনি বলেন, অনেক বছর ধরে ভুয়া নাগরিক সার্টিফিকেট সংগ্রহ করে স্থানীয় নাগরিক সেজে বহিরাগতরা চাকুরি প্রাপ্ত হচ্ছেন। এতে করে আমরা স্থানীয়রা আমাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছি।
জগন্নাথপুরের সৈয়দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জগন্নাথপুরের স্থানীয় বাসিন্দা আলমগীর হোসেন জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, অন্য জেলার চাকুরীপ্রত্যাশিরা জগন্নাথপুরের নাগরিক সেজে চাকুরিপ্রাপ্তি হওয়ার পর নিজ নিজ এলাকায় তাঁরা চলে যান। যেকারণে জগন্নাথপুরের শিক্ষক সংকট লেগেই থাকে। তাদের কারণে আমাদের স্থানীয়রা তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। অন্যান্যবারের মতো এবারও স্থানীয়া তাদের অধিকার রক্ষায় সোচ্ছার হয়ে উঠেছেন।

মানববন্ধনে অংশ নেয়া জগন্নাথপুর পৌরসভার কাউন্সিলর আবাব মিয়া জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, কিছু  জনপ্রতিনিধিদের নিকট থেকে প্রচারণার মাধ্যমে ভুয়া নাগরিক সার্টিফিকেট সংগ্রহ করে চাকুরিপ্রাপ্ত হয়ে আসছেন বহিরাগতরা। এটি অনেক বছর ধরে চলে আসছে। তবে বহিরাগতের বিষয়ে আমরা সচেতন রয়েছি।
জগন্নাথপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, প্রবাসি অধ্যুষিত জগন্নাথপুরে একসময় প্রবাস প্রবনতার বেশি থাকায় সরকারি চাকুরিতে স্থানীদের অনিহা ছিল। কিন্তু সময় পরিবর্তনের সঙ্গে চিত্র পাল্টি গেছে। এখন জগন্নাথপুরের সন্তানরা সরকারি চাকুরিতে প্রচন্ড আগ্রহী। স্থানীয়রা চাকুরিতে সুযোগ পেলে শিক্ষক সংকট কেটে যাবে।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহফুজুল আলম মাসুম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বহিরাগতের বিষয়ে একটি স্মারণলিপি পেয়েছি।
#

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24