বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:১২ পূর্বাহ্ন

জগন্নাথপুরে মসজিদের গেইট ভাঙতে গিয়ে সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষন-আটক ৪

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০১৭
  • ৮২ Time View

স্টাফ রিপোর্টার :: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা মসজিদের গেইট ভাঙতে গিয়ে কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শুক্রবার ভোর রাতে ৪ জনকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছেন স্থানীয়রা। এনিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।
স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের বুধরাইল গ্রামের হারুন মিয়া ও একই গ্রামের তারিফ উল্লার পক্ষের লোকজনের মধ্যে গ্রামের মসজিদের গেইট নির্মানকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে র্প্বূব বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি মামলা মোকদ্দমা চলছে। তাদের মধ্যে সংর্ঘষের ঘটনাও ঘটেছে।
এরই জের ধরে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে তারিক উল্লার ছেলে আকবুল হোসেনের নেতৃত্বে ভাড়াঠিয়া একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা মসজিদের গেইট ভাঙ্গতে শুরু করলে এ সময় প্রতিপক্ষের লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে তারা সংঘবদ্ধ হয়ে বাঁধা প্রদান করতে এগিয়ে এলে এ সময় সন্ত্রাসীরা ৬/৭ রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে পালিয়ে যায়। ওই সময় গেইট ভাঙার কাজে নিয়োজিত ৪ জন শ্রমিককে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছেন।

আটককৃতরা হলেন চট্রগ্রামের সাতকানিয়া থানার ঘাটিয়া ডাংগা গ্রামের ম,ৃত গোলাম নবীর ছেলে আহাম্মদ মিয়া (৫০), নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া থানার জোরহাইল গ্রামের মৃত ছোবার উদ্দিনের ছেলে আজিম উদ্দিন (২৭), একই থানার বটতলা গ্রামের হাদিস মিয়ার ছেলে রানা আহমদ (২২) ও শিবপাশা গ্রামের হারাধন মিয়ার ছেলে কাজল মিয়া (২৩)।
হারুন মিয়ার ভাতিজা মোস্তাক আহমদ মুজাহিদ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, তারিফ উল্লার ছেলে আকবুলের নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মসজিদের গেইট ভাঙন শুরু করে । আমরা তাদের বাঁধা প্রদান করলে সন্ত্রাসীরা ৮/৯ রাউন্ড গুলিবর্ষন করা পালিয়ে যায়। তারা মসজিদের গেইটের দু’টি পিলার আংশিক ক্ষতিগ্রস্থ করেছে। তাদের হামলায় আনাছ মিয়া (১৮) ও রাজিয়া বেগম (৪০) আহত হয়েছেন। এর মধ্যে আনাছ মিয়াকে সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর আহতকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
এব্যাপারে অভিযুক্ত আকবুল হোসেনের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
জগন্নাথথপুর থানার ওসি (তদন্ত) মঈন আহমদ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ৪ জন আটক রয়েছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুুতি চলছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24