শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ০৫:২১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
২১ আগস্টের মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে আপিল করা হবে: ওবায়দুল কাদের ধর্মীয় শিক্ষার প্রয়োজন চিরদিন ৭১’র বয়স ৫ মাস,তবুও মানবতাবিরোধী অপরাধে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা,প্রত্যাহারের দাবী ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ জগন্নাথপুরের টমটম চালকের হত্যাকাণ্ড উন্মোচিত,ঘাতকের স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান জগন্নাথপুরে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় জন্মাষ্টমী উদযাপন জগন্নাথপুরে সরকারি গাছ কাটায় সেই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ভারত-পাকিস্তান গুলি বিনিময় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা ১৭ নভেম্বর টমটম গাড়ীর জন্য জগন্নাথপুরের এক চালককে রশিদপুরে নিয়ে খুন,গ্রেফতার-১

জগন্নাথপুরে যাতায়াত ভোগান্তিতে পড়ছে তিনটি বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯
  • ৭৫ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে যাতায়াত দূর্ভোগে পড়ছে তিনটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীরা। একদিকে সময় লাগবে অতিরিক্ত অন্যদিকে যাতায়াত ভাড়াও লাগছে অতিরিক্ত। ফলে অভিভাবকরা দুশ্চিনন্তায় পড়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়.আগামীকাল শনিবার (২ ফেব্রুয়ারি) সারাদেশের ন্যায় জগন্নাথপুরেও এসএসসি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। এবছর জগন্নাথপুরে ৩০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ৪টি পরীক্ষা কেন্দ্র ও ২টি ভেন্যুতে মোট দুই হাজার ১শত ৩৫জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। এরমধ্যে উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের পল্লবী উচ্চ বিদ্যালয়, বিএনপি উচ্চ বিদ্যালয়, ও অরুন্যেদয় বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মোট ২শত ২২ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষা অংশ নিচ্ছে। ওই তিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার্থীরা উপজেলা সদরের জগন্নাথপুর স্বরূপ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় ও জগন্নাথপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরীক্ষা কেন্দ্রে নিজ নিজ বাড়ি থেকে জগন্নাথপুর-শিবগঞ্জ সড়ক হয়ে উপজেলা সদরের সঙ্গে যাতায়াত করে আসলেও এবার ওই সড়কের ঘোষগাঁও নামকস্থানে নলজুর সেতুর অ্যাপ্র্যোচ ধসে যাওয়ায় সরাসরি যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। যে কারণে সদরের সঙ্গে যাতায়াতে চরম দূর্ভোগে পড়তে হচ্ছে পাইলগাঁও ইউনিয়েনর ওই তিন বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের। তাদেরকে পরীক্ষার কেন্দ্রে আসতে হলেও বিকল্প সড়ক হিসেবে পাইলগাঁও-রানীগঞ্জ সড়ক হয়ে জগন্নাথপুর উপজেলা সদরে আসতে হবে। এতে করে অতিরিক্ত সময় ও বেশি ভাড়া নিতে হবে শিক্ষার্থীদের। পাইলগাঁও বিএন উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের এসএসসি পরীক্ষার্থী মরিয়ম আক্তার তহুরা’র অভিভাবক কাতিয়া গ্রামের বাসিন্দা সেলিম খান জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এক হাজার টাকা দিয়ে সিএনজি গাড়ী ভাড়া করে সকাল সাতটার দিকে শিক্ষার্থীকে নিয়ে উপজেলা সদরের পরীক্ষা কেন্দ্রে যেতে হবে। সময় লাগবে দেড়- দুই ঘন্টা। ফলে সকালের পড়াশুনা ব্যাহত হবে পরীক্ষার্থীর। খুবই চিন্তায় আছি যাতায়াত ব্যবস্থা নিয়ে। তিনি বলেন, উপজেলা সদরের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগের সহজ সড়ক হচ্ছে শিবগঞ্জ-জগন্নাথপুর সড়ক। এসড়কের ঘোষগাঁও নামকস্থানে নলজুর নদীর ওপর নির্মিত সেতুর সংযোগ সড়কের অ্যাপ্রোচ ধসে যাওয়ায় অন্যপথে অর্থাৎ পাইলগাঁও-রানীগঞ্জ সড়ক দিয়ে জগন্নাথপুরে যেতে হচ্ছে। শিবগঞ্জ সড়কের দিয়ে সদরের যাতায়াত করতে মাত্র ২৫ থেকে ৩০ মিনিট সময় লাগতো। ভাড়াও কম । ৬শত টাকা থেকে সাড়ে ৬শত টাকা ভাড়া ছিল।
পল্লবী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহরম আলী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এবার তাদের বিদ্যালয় থেকে ৮৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। এর মধ্যে ছাত্র ৩৮ ও ছাত্রী
৪৫ জন। পরীক্ষার্থীদের নিজ নিজ এলাকা থেকে উপজেলা সদরের জগন্নাথপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে পরীক্ষা নিতে হবে। শিবগঞ্জ সড়কের ঘোষগাঁও সেতুর অ্যাপ্রোচে কাজ শুরু হওয়ায় যাতায়াতে চরম দূর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। তিনি বলেন, দরিদ্র শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা একটু বেশি চিন্তিত। আমাদের প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রয়েছে সবাই যাতে পরীক্ষা অংশ নিতে পারে।

পাইলগাঁও বিএন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামান জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এবার পরীক্ষার্থীরা চরম যাতায়াত দুর্ভোগে পড়ছে। এ বিষয়টি আমি আমাদের ইউএনও
মহোদয়কে অবহিত করেছি। এবছর ৯৩ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছি বিএন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে। মধ্যে প্রায় ৩০ জন শিক্ষার্থী সদরে তাদেরআত্মীয় স্বজনদের বাসা বাড়িতে থেকে পরীক্ষা অংশ নেবে। অপর শিক্ষার্থীরা তাদের নিজ নিজ বাসা-বাড়ি থেকে সদরের স্বরূপচন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে সিএনজি গাড়ী দিয়ে যাতায়াত করতে হবে।

অরূন্যেদয় বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজির উদ্দিন জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ৪৭ জন শিক্ষার্থী এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে। শিবগঞ্জ সড়ক দিয়েই সদরের
পরীক্ষা কেন্দ্রে যেতে হয় শিক্ষার্থীদের। যাতায়াতে সময় লাগতো ২০ থেকে ২৫ মিনিট। এবার ওই সড়কের সেতুতে কাজ শুরু হওয়ায় বিকল্প সড়ক হিসেবে রানীগঞ্জ হয়ে ঘুরে সদরে যাতায়াত করতে হচ্চে। ফলে ভোগান্তির শিকার হচ্ছে পরীক্ষার্থীরা। অ্যাপ্রোচের কাজটি কর্তৃপক্ষকে দ্রুত কাজ সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী কর্মকর্তা (এলজিইডি) গোলাম সারোয়ার জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, দ্রুত কাজ শেষ করার জন্য আমরা ঠিকাদারকে বলেছি।

জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, দূর্ভোগ লাঘবে সংশ্লিষ্টকে নির্দেশ নিয়েছে কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার জন্য।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24