বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:১৯ পূর্বাহ্ন

ফিরে দেখা ,জগন্নাথপুরে বছরজুড়ে হত্যা, সংর্ঘষ, হামলায় নিহত ৪, আহত ৩১৩

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৭
  • ৬২ Time View

স্টাফ রির্পোটার :: জগন্নাথপুরে গত বছরে হত্যা, সংর্ঘষ, হামলার ঘটনায় নিহত ৪ জন ৩১৩ আহত হয়েছেন জন। নিম্ম প্রতিটি ঘটনার চিত্র তুলে ধরা হলো।
মাদ্রাসা ছাত্র খুন ১২-০২-১৭ইং :
উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের জয়দা গ্রামের টিটু মিয়ার ছেলে স্থানীয় জয়দা মাদ্রাসার ৮ম শ্রেনীর ছাত্র মাহবুবুর রহমান সোহাগকে রাতে বাড়িতে ডেকে নিয়ে দূর্বৃক্তরা হত্যা করে লাশ গ্রামের হাওরে ফেলে দেয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।
নির্বাচনী সহিংতকায় যুবক নিহত ২৬-০২-১৭ইং :
জগন্নাথপুর উপজেলার পার্শ¦বর্তী ওসমানিনগর উপজেলার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জগলু চৌধুরী ও আতাউর রহমানের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই সময় পথচারি জগন্নাথপুর উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের উত্তর কালনিচর গ্রামের শফর উদ্দিনের ছেলে সাইফুল ইসলাম নিহত হয়। এ ঘটনায় আহত হন ২০ জন।
৩র্থ শ্রেনী ছাত্র খুন ২৭-০২-১৭ইং
উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের কান্দারগাঁও গ্রামে পূর্ব বিরোধের জের ধরে মজর উদ্দিনের ছেলে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র শুকুর আলীকে ধারারো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় এক হত্যা মামলা থানায় দায়ের করা হয়েছে।
পাইলগাঁও গ্রামে সংঘর্ষ ২৮-০১-১৭ইং
উপজেলার পাইলগাও ইউনিয়নের পাইলগাও গ্রামের রমিজ আলী ও একই গ্রামের মকদ্দুস আলীর লোকজনের মধ্যে স্থানীয় গ্রামের হাওরে ক্ষেতের জায়গা নিয়ে পূর্ব বিরোধের জের ধরে সংর্ঘষের সৃষ্টি হয়। এতে উভয় পক্ষের ১০জন আহন হন।
শ্রীধরপাশা গ্রামে সংর্ঘষ ১৫-০২-২০১৭ইং
উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়ন শ্রীধরপাশা গ্রামের ফয়সল আহমদ একই জাবেদ কৌরশের মধ্যে পূর্ব বিরোধের জের ধরে ১৫ ফ্রেরুয়ারী বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এতে ১২ জনগুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন ২০জন।
ইকড়ছই গ্রামে সংর্ঘষ ২৬-০২-১৭ইং ::
জগন্নাথপুর বাজার তদারক কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান যুগ্ন সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে পূর্ব বিরোধের জের ধরে ইকড়ছই গ্রামে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে পুলিশসহ ১৫ জন আহত হন।
হাসপাতাল পয়েন্টে হামলা- ১২-০৩-১৭ইং
জগন্নাথপুর পৌরশহরের হবিবপুর আশিঘর এলাকার বাসিন্দা আফু মিয়ার পুত্র মিলাদ হোসেন কে ১২ মার্চ রাতে একদল দুর্বৃত্তরা অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে ধারালো অস্ত্র নিয়ে কুপিয়ে তাকে আহত পরে পালিয়ে যায়।

দাওরাই গ্রামে হামলা ১৯-০৩-১৭ইং
জগন্নাথপুর উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের দাওরাই গ্রামে ১৯ মার্চ রাতে প্রতিপক্ষের হামলায়
সুন্দর মিয়া (৫০) গুরুত্বর আহন হন। এ ঘটনায় হামলাকারী রাহেল চৌধুরীকে স্থানীয় জনতা আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন
ইছগাঁও গ্রামে সংর্ঘষ ২০-০৪-১৭ইং
উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের ইছগাও গ্রামের মাসুক মিয়া ও একই গ্রামের আবু মিয়ার পক্ষের লোকজনের মধ্যে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় ঘটে। এতে উভয় পক্ষের নারীসহ ১৫ জন হন।
কাদিরপুর গ্রামে সংর্ঘষ ০৬-০৪-১৭ইং
উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের কাদিপুর গ্রামে উমা বিশ্বাস ও অধির বিশ্বাসের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে পূর্ব বিরোধের জের ধরে উভয় পক্ষের ৮ জন আহত হয়েছেন।
বালিশ্রী গ্রামে হামলায় ০৭-০৪-১৭ইং
উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের বালিশ্রী গ্রামের আকুল মিয়ার ও একই গ্রামের মচ্ছতর আলীর মধ্যে ভূমি সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজনের হামলায় আকুল মিয়ার গুরুত্বর আহত হন।

বিদ্যালয়ে হামলা ১১-০৪-১৭ইং
পৌরশহরের আবদুল খালিক উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রবেশ করে একদল বখাটে হামলা চালিয়ে ৫ শিক্ষার্থীদের আহত করেছে।
দোস্তপুর গ্রামে সংর্ঘষ ২৭-০৪-১৭ইং
উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের দোস্তপুর গ্রামের আসলাম উদ্দিন ও একই গ্রামের মাধব মিয়ার পক্ষের লোকজনের মধ্যে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের ১৫ জন আহত হন।
কাদিরপুর গ্রামে সংর্ঘষ ২৭-০৫-১৭ইং
উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের কাদিরপুর গ্রামে আবদুর নূর ও শামিম আহমদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে ভূমি সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে সংর্ঘষের ঘটনায় উভয় পক্ষের ১৫ জন আহত হয়েছেন।
আধুয়া গ্রামে হামলা ৩০-০৬-১৭ইং
উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের আধুয়া গ্রামের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান জাহির আলীগংদের সঙ্গে আব্দুর নুর ও আপ্তাব আলীর পক্ষের লোকজনের মধ্যে পূর্ব বিরোধেরে জের ধরে রাতে আব্দুর নুর ও আপ্তাব আলী পক্ষের লোকজন হামলা চালায় এতে তিন জন আহত হন।
কান্দারগাও গ্রামে হামলা ২১-০৬-১৭ইং
উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের কান্দারগাও (নোয়াগাও) গ্রামের আবদুর রহিমের ছেলে সফরুল ইসলামের বিরুদ্ধে থানা একটি মামলার ওয়ারেন্ট ছিল। যার প্রেক্ষিতে জগন্নাথপুর থানার এসআই আবদুস সালামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ আসামী ধরতে ওই গ্রামে অভিযান চালিয়ে সফরুল ইসলাম কে গ্রেফতার করে। এ সময় পুলিশ ও আসামী পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে পুলিশসহ ৬ জন আহত হন।
রানীগঞ্জ বাজারে সংর্ঘষ ০১-০৭-১৭ইং

উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের গর্ন্ধবপুর গ্রামের আকিকুল ইসলাম ওরফে ভূট্রোর ছেলে বদরুল ইসলাম ও একই গ্রামের হারুন মিয়া পুত্র হাসিন মিয়ার মধ্যে ত্চ্ছু বিষয় নিয়ে কথাকাটাকাটির জের ধরে স্থানীয় রানীগঞ্জ বাজারে সংর্ঘষ ঘটে। এতে উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হন।

হবিবনগরে সংর্ঘষ ০৪-০৮-১৭ইং

জগন্নাথপুর পৌরশহরের হবিবনগর এলাকার আলী হোসেন ও জুনেদ মিয়ার মধ্যে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ১০জন আহত হয়েছেন।
নাদামপুর গ্রামে সংঘর্ষ ০৬-০৮-১৭ইং
উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের নাদামপুর গ্রামের বাসিন্দা বর্তমান মেম্বার সাজ্জাদ হোসেন ও সাইদুর রহমান রূপা মিয়ার পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংর্ঘষে উভয়পক্ষের আহত হয়েছেন ১৫ জন।

গর্ন্ধবপুর গ্রামে সংর্ঘষ ০৯-০৮-১৭ইং
রাত দুইটার দিকে উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের গর্ন্ধবপুর গ্রামের কৃষক লাল মিয়ার বাড়ির গোয়াল ঘর থেকে একদল অস্ত্রধারী ১০টি গরু চুরি করে নৌকায় তুলে নিয়ে যাওয়ার সময় গ্রামবাসীর সঙ্গে সংঘর্ষে বাধে। এতে তিনজন গুলিবিদ্ধসহ ১২ জন আহত হন।

পূর্ব বুধরাইল গ্রামে সংর্ঘষ ২৫-০৮-১৭ইং
জগন্নাথপুর উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের পূর্ব বুধরাইল গ্রামে হারুন মিয়া ও একই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের পক্ষের লোকজনের মধ্যে মসজিদের গেইট নির্ণাণকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষে কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়েছেন।

১৬-০৯-১৭ইং

উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের শ্রীধরপাশা গ্রামের ফয়ছল হোসেন, আব্দুল মালিকগংদের সঙ্গে একই গ্রামের জাবেদ আলম কোরেশীর গোষ্টির সঙ্গে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। যার জের ধরে ঘটনার দিন মাদ্রাসার জমি নিলামকে কেন্দ্র করে দু’ সংর্ঘষে অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হন। এর মধ্যে গুলিবিদ্ধ হন ৩৭ জন। এ সংর্ঘষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ নুর আলী চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

এরালিয়া মোহাম্মদপুর গ্রামে সংর্ঘষ ১০-১০-১৭ইং
উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের এরালিয়া মোহাম্মদপুর গ্রামের ইউনুস মিয়ার ও একই গ্রামের প্রতিবেশী আজিম উদ্দিনের মধ্যে বাড়ির রাস্তায়কে কেন্দ্র করে সন্ধ্যায় দু’পক্ষের লোকজন সংর্ঘষে লিপ্ত হন। এতে উভয় পক্ষের ৮জন আহত হন।
জগন্নাথপুরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত-৭

ঘীপুরা গ্রামে সংর্ঘষ ০২-১১-১৭ইং
উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের ঘীপুরা গ্রামের বাসিন্দা সাবেক ইউপি সদস্য আজিজুস ইসলাম ও একই গ্রামের আরশ আলীর মধ্যে পূর্ব বিরোধের জের ধরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে স্থানীয় কলকলিয়া বাজারে দু’পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংর্ঘষ সৃষ্টি হয়। এতে উভয় পক্ষের ৭ জন আহত হয়েছেন।

বালিকান্দি গ্রামে সংর্ঘষ ১৮-১১-১৭ইং
জানা যায়, উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের বালিকান্দি গ্রামের বাসিন্দা ইউপি সদস্য আব্দুল হাসিম ও একই গ্রামের ফারুক মিয়ার মধ্যে ভূমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হন।
বালিকান্দি গ্রামে সংর্ঘষ ০৪-১২-১৭ইং
জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের বালিকান্দি গ্রামের শুকুর আলী ও কারিবুল হক এর মধ্যে বাড়ির রাস্তার সীমানা নিয়ে দীর্ঘ দিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছে। যার জের ধরে উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে ৪ জন আহত হয়।
পূর্ব বুধরাইল গ্রামে হামলা ২১-১২-১৭ইং
উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের বুধরাইল গ্রামের হারুন মিয়া ও একই গ্রামের তারিফ উল্লার পক্ষের লোকজনের মধ্যে গ্রামের মসজিদের গেইট নির্মানকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে র্প্বূ বিরোধ চলছিল।
বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে তারিক উল্লার ছেলে আকবুল হোসেনের নেতৃত্বে ভাড়াঠিয়া একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা মসজিদের গেইট ভাঙ্গতে শুরু করলে এ সময় প্রতিপক্ষের লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে তারা সংঘবদ্ধ হয়ে বাঁধা প্রদান করতে এগিয়ে এলে এ সময় সন্ত্রাসীরা ৬/৭ রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে পালিয়ে যায়।
চিলাউড়া পন্ডিতা গ্রামে হামলা ১৪-১২-১৭ইং
জগন্নাথপুর উপজেলার চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়নের চিলাউড়া পন্ডিতা গ্রামে পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় স্কুল ছাত্র রাজেল আহমদ আহত হন।
ঘীপুরা গ্রামে সংঘর্ষ ১৮-১২-১৭ইং
উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের ঘীপুরা গ্রামের বাসিন্দা সাবেক ইউপি সদস্য আজিজুল ইসলাম ও একই গ্রামের আরজ আলীর মধ্যে পূর্ব বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে বিকেলে দু’পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় ঘন্টাব্যাপি সংঘর্ষে উভয় পক্ষের নারীসহ ১৫ জন আহত হন।
আধুয়া গ্রামে সংর্ঘষ ৩০-১২-১৭ইং
উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের আধুরা গ্রামের ফয়জুল মিয়া ও একই গ্রামের সাজ্জাদ মিয়ার পক্ষের লোকজনের মধ্যে মাঠে গরু চরানোকে কেন্দ্র করে ঘন্টাব্যাপী সংর্ঘষে উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24