রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
পড়াশোনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের নামাজ শেখানো হয় যে বিদ্যালয়ে পানির নিচে প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়ে মৃত্যু! সিলেটে চারদিনের রিমান্ডে পিযুষ যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ২ জগন্নাথপুরে ৩৯টি মন্ডপে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি,চলছে প্রতিমা তৈরীর কাজ জগন্নাথপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কমিটির বিরুদ্ধে অপপ্রচারে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে ৬ মাসেও বকেয়া টাকা মিলেনি, ঋণের চাপে দিশেহারা পিআইসিরা জগন্নাথপুরে ৬ মাসেও বকেয়া টাকা মিলেনি, ঋণের চাপে দিশেহারা পিআইসিরা বেড়াতে গিয়ে বাড়ি ফেরার পথে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল জগন্নাথপুরের এক যুবকের মাথায় ৪ ইঞ্চি লম্বা শিং এই বৃদ্ধের!

বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃতির দায়ে ইউএনও কারাগারে

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ১৯ জুলাই, ২০১৭
  • ১১০ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের আমন্ত্রণপত্রে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি বিকৃতি ও অবমাননা করার দায়ে বরগুনা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গাজী তারেক সালমানকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বরিশাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্টেট্র আদালতের বিচারক মো. আলী হোসাইন বুধবার সকালে এই আদেশ দেন। এর পরপরই ইউএনও গাজী তারেক সালমানকে কারাগারে নিয়ে যায় পুলিশ।

গত বছর গাজী তারেক সালমান বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকাকালে ২৬ মার্চের অনুষ্ঠানের একটি আমন্ত্রণপত্র প্রকাশ করেন। ওই আমন্ত্রণপত্রের পেছনের পাতায় বঙ্গবন্ধুর ছবি ছাপানো হয়।

স্বাধীনতা দিবসের আমন্ত্রণপত্রের পেছনের পাতায় বঙ্গবন্ধুর ছবি ছাপানোয় জাতির জনকের মানহানী হয়েছে অভিযোগে গত ৭ জুন জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজু বাদী হয়ে আগৈলঝাড়ার ইউএনও গাজী তারেক সালমানের বিরুদ্ধে বরিশাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ৫ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ চেয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

এরপর মামলা আমলে নিয়ে বিচারক ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) গাজী তারিক সালমানকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়ে সমন জারির আদেশ দেন। মামলার পরবর্তী তারিখ ধার্য ছিল বুধবার।

এদিন সকাল ১১টায় ইউএনও গাজী তারিক সালমান বরিশালের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন। বিচারক তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এই মামলা দায়েরের পর সমালোচনার মুখে এক মাস আগে তাকে বরগুনা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে বদলি করা হয়।

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী শেখ আ. কাদের মামলার আরজির বরাত দিয়ে জানান, গত ২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন যে কর্মসূচির আয়োজন করে তার জন্য আমন্ত্রণ পত্র ছাপানো হয়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি সংবলিত ওই আমন্ত্রণপত্রের কার্ডে যে ছবি ব্যবহার করা হয় তা ছিল বিকৃত এবং কার্ডের শেষের পাতায়। ওই আমন্ত্রণপত্র হাতে পাওয়ার পর সর্বত্র নিন্দার ঝড় ওঠে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) গাজী তারিক সালমনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে ৫ কোটি টাকার মানহানির মামলা দায়ের করা হয়।

আইনজীবী শেখ আ. কাদের আরও জানান, বুধবার আদালতে আত্মসমর্পণ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) গাজী তারিক সালমন তার আইনজীবীর মাধ্যমে অনিচ্ছাকৃত ভূল উল্লেখ করে জামিনের আবেদন করেন। এসময় জামিন আবেদনের তীব্র বিরোধিতা করেন তিনিসহ অন্য আইজীবীরা। শুনানি শেষে ইউএনও গাজী তারিক সালমনের ব্যাখ্যা যথাযথ মনে না হওয়ায় আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এ বিষয়ে নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) গাজী তারিক সালমন বলেন, গত ২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে ১৭ই মার্চ উপজেলা প্রশাসন শিশু শিক্ষার্থীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ নামে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করেন। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কৃতদের হাতে আঁকা ছবি ব্যবহার করে ২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ পত্র ছাপানোর ঘোষণা দেয়া হয়েছিল। সে অনুযায়ী পুরস্কৃতদের হাতে আঁকা ছবি ব্যবহার করে ওই আমন্ত্রণপত্র ছাপানো হয়। সূত্র পূর্পশ্চিম বিডি

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24