মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯, ১২:২৯ পূর্বাহ্ন

মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আর ‘শতাব্দীর শিক্ষা ভাবনা’ শীর্ষক সেমিনারের মাধ্যমে শেষ হলো দিরাই উচ্চ বিদ্যালয়ের শত বছর পূর্তি উৎসব

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ, ২০১৫
  • ১৪৫ Time View

দিরাই প্রতিনিধি- প্রবীণ রাজনীতিক আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত এমপি বলেছেন, নতুন প্রজন্মকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে আমাদের সামাজিক দায়বদ্ধতা শোধ করতে হবে। যারা হরতাল-অবরোধের নামে শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে ভবিষ্যত প্রজন্মকে দাবিয়ে রাখতে চায় তারাই শিক্ষিত জাতি গঠনের অন্তরায়। অথচ প্রতিটি শিশুর মৌলিক অধিকার রক্ষায় তাদেরও দায়বদ্ধতা রয়েছে। সোমবার দুপুরে সুনামগঞ্জের দিরাই উচ্চ বিদ্যালয়ের শত বছর পূর্তি উপলক্ষে দু’দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সমাপণী দিনে স্থানীয় বিএডিসি মাঠে অনুষ্ঠিত ‘শতাব্দীর শিক্ষা ভাবনা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সুরঞ্জিত সেন অভিযোগ করে বলেন, বিএনপি-জামায়াত হরতাল-অবরোধ দিয়ে শিক্ষার অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে চায়। এসএসসির মতো এইচ এসসি পরীক্ষার সময়েও হরতাল-অবরোধের পায়তারা করছে তারা। তিনি বলেন, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মধ্য দিয়ে সরকার বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে ধ্বংসের রাজনীতি পরিহার করে আলোর পথে ফিরে আসার সুযোগ তৈরী করে দিয়েছে। এ সুযোগ হাতছাড়া করলে বিএনপি আর কখনো সুস্থ রাজনীতিতে ফিরে আসতে পারবে না। মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক ও লেখক সালেহ্ চৌধুরীর সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে জনপ্রিয় উপন্যাসিক আনিসুল হক বলেন, আমাদের মায়েরা হাসতে হাসতে তার ছেলেদের উৎসর্গ করেছেন মুক্তিযুদ্ধে। সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মতো দেশপ্রেমিকরা সংগঠকের দায়িত্ব পালন করেছেন। আমরা একটা স্বাধীন দেশ পেয়েছি। যে দেশ প্রতিনিয়ত এগিয়ে যাচ্ছে, শিক্ষা-দীক্ষায়, সম্ভাবনায়, অর্থনীতিতে, টেকনোলজিতে। তিনি বলেন, প্রতিবেশী দেশ ভারত থেকেও আমরা অনেক জায়গায় এগিয়ে আছি। আমাদের গড় আয়ু তাদের দেশের চাইতে বেশী। আমাদের শিশু মৃত্যুর হার, মাতৃ মৃত্যুর হার অনেকটা কমে গেছে। আমাদের দেশে শতকরা ৯০ ভাগ মানুষ এখন স্যানিটারি লেট্রিন ব্যবহার করে যা ভারতে ৫০ ভাগ। আমরা আরও ভালো করতে চাই। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তা সফল হবে যদি তোমরা ভালো হও। তোমরা যদি যোগ্য মানুষ হয়ে গড়ে ওঠো ।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে লেখক এটিএম মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, আমাদের হতাশ হবার কোনো কারন নেই। এই স্কুল থেকে যেমন একজন দুখু সেন আজ সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত হয়েছেন। অনেক কৃতি সন্তানেরা আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন দেখছেন। যার একমাত্র কারন শিক্ষা, শিক্ষা, শিক্ষ। একমাত্র শিক্ষাই অরন্য থেকে বিজ্ঞান মনস্ক সভ্যতার আলোকে পৌছে দিয়েছে। তিনি বলেন, ভাবতে অবাক লাগছে, শতবর্ষী একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাস্তবে কথটা মাথা উচু করেছিল জানি না। তবে লাখো নাগরিকের চেতনাকে নাড়া দিতে পেরেছে। এ জন্য আজ ইতিহাসের অংশ হয়ে গেছে দিরাই উচ্চ বিদ্যালয়।
মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, আমরা যেখানে দাড়িয়েছি সেটা হচ্ছে বিজ্ঞান শাষিত সভ্যতার যুগ। প্রতিদিন বদলাচ্ছে বিশ্বের পথ-পরিক্রমা। ইন্টারনেট-টেকনোলজির সুবিধায় সবকিছু চলে এসেছে হাতের মুঠোয়। তার পরেও আমাদের ফিরে যেতে হয় সেই অরণ্যে যার শিক্ষক ছিল প্রকৃতি।
এছাড়াও বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সাবেক সাংসদ মতিউর রহমান, শতবর্ষ উদ্যাপন কমিটির আহবায়ক আলতাব উদ্দিন ও হাফিজুর রহমান তালুকদার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন, দিরাই ডিগ্রী কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ আব্দুল হান্নান চৌধুরী, বিবিয়ানা মডেল কলেজের অধ্যক্ষ নৃপেন্দ্র চন্দ্র তালুকদার ও দিরাই উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সব্যসাচি দাস।
এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্তিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও তথ্য প্রযুক্তি) ড. আহমেদ উল্যাহ্, প্রাক্তন যুগ্ম সচিব ডা. ওমর খৈয়াম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক প্রদীপ রায়, দিরাই পৌরসভার মেয়র আজিজুর রহমান, মধুরাপুর স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি পাকি চৌধুরী প্রমূখ। পরে সমাপনী অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানেও প্রধান অতিথি ছিলেন, এলাকার সাংসদ সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত। পরে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।লাখো মানুষ আনন্দ উৎসবে গান গেয়ে উৎসব অঙ্গনকে প্রাণবন্ত করে তুলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24