শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯, ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন

মিরাজ ও সাকিব ঘুর্ণিতে বিধ্বস্ত ইংল্যান্ড, জয়ের উৎসবে ভাসছে দেশ

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ৩০ অক্টোবর, ২০১৬
  • ৯৬ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: ২০০০ সালে টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়ার পর বাংলাদেশের ক্রিকেটে এতোবড় উপলক্ষ্য আর আসেনি। টেস্টে ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল ও ঐতিহ্যবাহী দল ইংল্যান্ডকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। রোববার মিরপুরে ক্রিকেটের অভিজাত দলটিকে ১০৮ রানে হারিয়েছে মুশফিকের দল। বাংলাদেশের দেয়া ২৭৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে মিরাজ ও সাকিব ঘুর্ণিতে বিভ্রান্ত হয়ে ১৬৪ রানেই গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ডের ইনিংস।

সিরিজ জিততে ইংল্যান্ডের সামনে ২৭৩ রানের লক্ষ্য রাখে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৯৬ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসের চেয়ে ২৪ রানে পিছিয়ে ছিল টাইগাররা। তাই সব মিলিয়ে ইংল্যান্ডের জন্য জয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৭৩ রান।

ইংলিশদের হয়ে ব্যাটিংয়ের শুরুটা করেন বেন ডাকেট ও অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক। ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশের স্পিনারদের দারুণ দক্ষতার সাথে খেলতে থাকেন ডাকেট ও কুক। সিরিজে এই প্রথম উদ্বোধনী জুটিতে ভালো সংগ্রহ পেল ইংল্যান্ড। এ পর্যন্ত সিরিজের তিন ইনিংসে প্রথম পঞ্চাশোর্ধ রানের জুটি গড়লেন ওপেনাররা। এর আগে উদ্বোধনী জুটিতে সবোর্চ্চ ২৬ রান করেছিলেন কুক ও ডাকেট।

ওয়ানডে সিরিজে দুর্দান্ত ব্যাটিং করলেও টেস্টে সুপার ফ্লপ ছিলেন ডাকেট। আজ অবশ্য রানের দেখা পেয়েছেন এই ব্যাটসম্যান। অন্যদিকে নিজেকে খুজে পাচ্ছিলেন অ্যালিস্টার কুকও। এর আগে তিন ইনিংসে বাংলাদেশী স্পিনারদের সামনে অসহায় ছিলেন ইংলিশ অধিনায়ক। উদ্বোধনী জুটিতে ১০০ রান তোলেন এই দুই ব্যাটসম্যান।

চা বিরতির পরই খেলায় ফেরে বাংলাদেশ। প্রথম ওভারের প্রথম বলেই বেন ডাকেটকে ফেরান মেহেদী হাসান মিরাজ। ৬৪ বলে ৭ চার ও এক ছয়ে ৫৬ করেন ডাকেট। এরপরের ওভারেই জো রুটকে লেগ বিফোরের ফাদে ফেলেন সাকিব আল হাসান। দুই বলে মাত্র এক রান করে ফিরে যান রুট।

দলীয় ১২৪ রানে গ্যারি ব্যালেন্সের উইকেট তুলে নেন মিরাজ। মাত্র ৫ রান করেন ইংলিশ মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। মঈনকে তো রানের খাতাই খুলতে দেননি মিরাজ। দারুণ এক বলে বাম হাতি এই ব্যাটসম্যানকে পরাস্ত করেন তিনি। লেগ বিফোরের আবেদনে সাড়া দেন ধর্মসেনা। মঈন রিভিউ নিলেও বাচতে পারেননি।

সফরকারীদের সবচেয়ে বড় ধাক্কাটি দেন মিরাজ। ৫৯ রান করা কুককে মমিনুলের দারুণ ক্যাচে পরিণত করেন এই স্পিনার। ইংল্যান্ডের রান তখন ১২৭। ৪৩তম ওভারে তিনটি উইকেট তুলে নিয়ে খেলার মোড় ঘুরিয়ে দেন সাকিব।

ওভারের তৃতীয় বলে বেন স্টোকসকে বোল্ড করে ম্যাচটা পুরোপুরি বাংলাদেশের দিকে নিয়ে চলে আসেন। পরের বলে আদিল রশীদকে ফিরিয়ে দেন সাকিব। তবে জাফর আনসারী তৃতীয় বলটি ঠেকিয়ে দিলে হ্যাটট্রিক বঞ্চিত হন তিনি।

অভিষিক্ত আনসারীকে আউট করতে বেগ পেতে হয়নি সাকিবকে। পরের বলেই ইমরুলের ক্যাচে পরিণত করান আনসারীকে। এরপর শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে স্টিভেন ফিনকে ফিরিয়ে দিয়ে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম জয়ের আনন্দে মেতে ওঠে বাংলাদেশ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24