বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ০৭:৫৬ অপরাহ্ন

যুক্তরাজ্যে স্ত্রীকে বিক্রি করতে বিজ্ঞাপন!

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
  • ২৩ Time View

অনলাইন ডেস্ক::

সাইমন ও’কেন পেশায় একজন টেলিকম ইঞ্জিনিয়ার। ‘সহানুভূতিহীন মনোভাবকে’ কারণ দেখিয়ে স্ত্রীকে বিক্রির জন্য অনলাইন বিকিকিনির সাইট ইবেতে বিজ্ঞাপন দিয়েছেন তিনি। দাম উঠেছে প্রায় ৬৬ হাজার পাউন্ড! এ ঘটনায় স্ত্রী রেগেমেগে ঘোষণা দিয়েছেন, স্বামীকে স্রেফ খুন করতে চান তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাজ্যে।

গত বুধবার সন্ধ্যায় এসব ঘটনার সূত্রপাত। ইয়র্কশায়ারের বাসিন্দা ৩৩ বছর বয়সী সাইমন তখন মাত্রই ঘরে ফিরে এসেছেন। আর বাড়ি ফিরেই স্ত্রীকে বললেন, শরীর ভালো লাগছে না তাঁর।

এ কথা শোনার পর যেন মোমবাতির দুই প্রান্তেই আগুন ধরে গেল। ২৭ বছর বয়সী স্ত্রী লিয়ানড্রা স্বামীর অসুস্থতাকে খুব বেশি পাত্তা না দিয়ে খুলে বসলেন অভিযোগের বাক্স। সাইমনের আর সহ্য হয়নি। দুম করে ঠিক করলেন, স্ত্রীকে তিনি বিক্রি করে দেবেন।

এরপরই তিনি ইন্টারনেটে কেনাবেচার ওয়েবসাইট ইবে খুললেন। সেখানে ঠিক গাড়ি বিক্রির বিজ্ঞাপনের আদলে লিখলেন স্ত্রীকে বিক্রির বিজ্ঞাপন। এর শিরোনাম ছিল ‘ব্যবহৃত স্ত্রী’। বিজ্ঞাপনে স্ত্রীর ভালো দিক ও মন্দ দিক তুলে ধরার পাশাপাশি তাঁকে কেনার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় শর্তও জুড়ে দেন সাইমন।

বিজ্ঞাপনে লেখা ছিল, ‘একজন স্ত্রীকে বিক্রি করা হবে। নতুন নয়, কিন্তু এখনো তাঁর অনেক মাইল যাওয়ার সামর্থ্য আছে।’ বিক্রির কারণ হিসেবে সাইমন লেখেন, ‘আমার সাধ মিটে গেছে এবং মনে করছি, এখন সেখানে অন্য কারও আসা উচিত (হে ঈশ্বর, দয়া করে কাউকে এনে দাও)।’

স্ত্রীর ভালো দিক তুলে ধরে সাইমন লিখেছেন, ‘ঘরের কাজ ভালো করতে পারেন এবং রান্নাঘরের কাজও মোটামুটি পারেন।’ খারাপ দিক সম্পর্কে লেখা হয়েছে, ‘মাঝে মাঝে এমন হইচই বাধিয়ে দেন যে নতুন গয়না কিনে না দেওয়া পর্যন্ত তাঁকে চুপ করানো যায় না।’

বিজ্ঞাপনে আরও লেখা হয়েছে, ‘মাঝে মাঝে তাঁর রান্না খাওয়ার কারণে হাসপাতালে যেতে হয়। তবে সে একদম খারাপ মডেল নয়। আমি মনে করি, কারও না কারও কাজে আসবে সে। তবে বিক্রির চেয়ে যদি তরুণ মডেল অদল-বদলের প্রস্তাব কেউ দেন, তবে আমি সানন্দে রাজি হব।’

বিজ্ঞাপন দেওয়ার দুই দিনের মধ্যে লিয়ানড্রার দাম ওঠে ৬৫ হাজার ৮৮০ পাউন্ড।

সাইমনের স্ত্রী এই বিজ্ঞাপনের ব্যাপারে জানার পর তো রেগে আগুন। দুই সন্তানের মা লিয়ানড্রা বিউটি থেরাপিস্ট হিসেবে কাজ করেন। তিনি বলেন, ‘আমার খুব রাগ হয়েছে। আমি তাঁকে খুন করতে চাই। যেখানে কাজ করি, সেখানকার সবাই আমার দিকে আড়চোখে চাইছিল, আর মাথা নিচু করে হাসছিল। সে শুধু আমাকে বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়েছে তা-ই নয়, সেখানে আমার খুব বাজে একটা ছবি দিয়েছে। ইবে কর্তৃপক্ষ যদি এই বিজ্ঞাপন না নামায়, তবে কে জানে এটি আমাকে কতটা নিচে নামাবে।’

অন্যদিকে, ইবে কর্তৃপক্ষ বিজ্ঞাপনটি নামিয়ে দেওয়ার পর সাইমন বলেছেন, স্রেফ মজা করার জন্যই স্ত্রীকে বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন তিনি। সত্যি সত্যি বিক্রি করার ইচ্ছে তাঁর ছিল না। সূত্র প্রথম আলো

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24