সোমবার, ২৬ অগাস্ট ২০১৯, ০৩:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
কাশ্মীরে প্রতিবাদের ঝড় বইছে, পাথরই হাতিয়ার, নিহত ট্রাক চালক ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ,গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ ফারুক হত্যা মামলায় এক রোহিঙ্গা ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত জগন্নাথপুরে বিদ্যালয় সমূহে পরিচ্ছিন্ন রাখতে ডাষ্টবিন বিতরণ শুরু জগন্নাথপুরে কমিউনিটি পুলিশিং সভায় পুলিশ সুপার- সুনামগঞ্জের শান্তি শৃঙ্খলা নিশ্চিতে কাজ করতে চাই বিশ্বনাথে পাইপগানসহ গ্রেফতার-১ মাহী বি চৌধুরীকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ ভিডিও কেলেঙ্কারি : জামালপুরে নতুন ডিসি নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জগন্নাথপুরে সৈয়দপুর গ্রামবাসীর উদ্যোগে সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের নির্বাচন সম্পন্ন:সভাপতি পঙ্কজ দে,সেক্রেটারী মহিম

রোহিঙ্গাদের আবাসনে ২৩১২ কোটি টাকার প্রকল্প

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৭
  • ১৮ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক ::সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে রোহিঙ্গাদের আবাসন সংকট নিরসনে আশ্রয়ন-৩ প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ নির্বাহী কমিটি (একনেক)। নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলাধীন চরঈশ্বর ইউনিয়নের ভাসানচরে ১ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থীর আবাসন ও দ্বীপের নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ করা হবে। প্রকল্পের মোট ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ২ হাজার ৩১২ কোটি ১৫ লাখ টাকা। ডিসেম্বর ২০১৭ থেকে নভেম্বর ২০১৯ মেয়াদে রোহিঙ্গাদের জন্য আবাসন নির্মাণ করা হবে। মঙ্গলবার রাজধানীর শেরে-বাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় আশ্রয়ন-৩ প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়।
প্রকল্পের আওতায় ১ লাখ ৩ হাজার ২০০ জনের বসবাসের জন্য ১২০টি গুচ্ছগ্রাম নির্মিত হবে। যেখানে ১ হাজার ৪৪০টি ব্যারাক হাউজ, ১২০টি শেল্টার স্টেশন থাকবে। এছাড়া উপসানলয়সহ দ্বীপটির নিরাপত্তার জন্য নৌ-বাহিনীর অফিস ও বাসভবন নির্মিত হবে।
এছাড়াও ভাসানচরের অভ্যন্তরীণ সড়ক, পানি নিষ্কাশন অবকাঠামো, নলকূপ, ওয়াচ টাওয়ার, বেড়া, নির্মিত হবে। রোহিঙ্গাদের সুবিধায় একটি মাইক্রোবাস, ১২টি মোটরসাইকেল, ২৩টি হিউম্যান হলার, ৪০টি ঠেলাগাড়ি, ৪৩টি ভানগাড়ি এবং আটটি হাইস্পিড বোট কেনা হবে।
বিশাল প্রকল্পের আওতায় গুদামঘর, জ্বালানি ট্যাঙ্ক, হেলিপ্যাড, চ্যানেল মার্কিং, বোট ল্যান্ডিং সাইট, রাডার স্টেশন, সোলার প্যানেল, জেনারেটর, বৈদ্যুতিক সাব স্টেশন নির্মিত হবে।
একনেক সভা সূত্র জানায়, নানা কারণে প্রকল্পটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। মিয়ানমার থেকে আসা বিপন্ন রোহিঙ্গাদের বিশাল ¯্রােত দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকি। বলপূর্বক এসব রোহিঙ্গাদের দেশ ছাড়তে বাধ্য করা হয়েছে। কক্সবাজারে শরণার্থী রোহিঙ্গারা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। প্রতিনিয়ত এখানে পাহাড়ি জমি ও বনাঞ্চল ধ্বংস হচ্ছে। টেকনাফ ও উখিয়ায় প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা আছে।
সব মিলিয়ে ১০ থেকে ১২ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে বসবাস করছেন। বাংলাদেশে পর্যটনের প্রধান কেন্দ্র কক্সবাজার হুমকির মুখে পড়েছে। এই প্রেক্ষাপটে জরুরি ভিত্তিতে ১ লাখ নাগরিকের আবাসন সমস্যা নিরসনে প্রকল্পটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24