মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯, ১০:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:

লন্ডনে শিক্ষার্থীদের মেইনটেনেন্স গ্র্যান্টস বাতিলের প্রতিবাদ জানিয়েছেন রুশনারা আলী এমপি ‍

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী, ২০১৬
  • ২৯ Time View

আমিনুল হক ওয়েছ লন্ডন থেকে:: ব্রিটিশ পাল‍ামেন্টের বেথনাল গ্রীণ এন্ড বো আসনের এমপি রুশনারা আলী উচ্চচ শিক্ষায় নিম্ন আয়ের পরিবারের শিক্ষার্থীদের মেইনটেনেন্স গ্র্যান্ট বাতিলের সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন সরকার যথাযথ পার্লামেন্টারী বিতর্ক ছাড়াই পিছনের দরজা দিয়ে বিশেষ ক্ষমতাবলে মেইনটেনেন্স গ্র্যান্টকে লোন হিসাবে রুপান্তর করেছে। এখন থেকে এই পরিবর্তনের দায় বহন করতে হবে দরিদ্র পরিবারের প্রায় অর্ধ মিলিয়ন শিক্ষার্থীকে। রুশনারা আলী পার্লামেন্টে ব্যয় সংকোচন বিষয়ে বিরোধী দলের জন্য নির্ধারিত বিতর্কে অংশ নিয়ে একথা বলেন।তিনি একে উচ্চচ শিক্ষায় আগ্রহীদের পথের কাটা হিসাবে আখ্যায়িত করেন।এক বিশেষ বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, তীব্র বিরোধীতা সত্ত্বেও সরকার শিক্ষার্থী, জনসাধারন এবং উচ্চ শিক্ষায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সাথে কোন ধরনের পরামর্শ ছাড়াই এই কাজটি করেছে। রুশনারা মিনিস্টারকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, এই গ্র্যান্টসকে লোন হিসাবে রুপান্তরের ফলে এর উপর নির্ভরশীল টাওয়ার হ্যামলেটসের ৫ হাজারেরও বেশী শিক্ষার্থী ক্ষতিগ্রস্থ হবে। উচ্চ শিক্ষায় সহযোগীতার কথা বলে এধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহনকে রুশনারা সরকারের ভন্ডামী হিসাবে আখ্যায়িত করেন।
তিনি বলেন এটি হচ্চেছ মানুষের আকাংখাকে লাগাম টেনে ধরার সামিল। উল্লেখ্য যে, এতোদিন দরিদ্র পরিবারের শিক্ষার্থীরা তাদের প্রাত্যহিক জীবনের খরচ চালানোর জন্য বছরে ৩,৩৮৭ পাউন্ড মেইনটেইনেন্স গ্র্যান্ট পেয়ে আসছিলেন। এটা তাদের ফেরত দিতে হতো না। নতুন আইনে এই গ্র্যান্ট কেউ গ্রহন করলে তা টিউশন ফির সাথে লোন হিসাবে যোগ হবে। চলতি বছর অর্থাত ২০১৬ সাল থেকে কার্যকর হতে যাওয়া সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে দরিদ্র পরিবারের একজন শিক্ষার্থীর শিক্ষা জীবন (গ্র্যাজুয়েশন) শেষ হবে ৫৩ হাজার পাউন্ড লোনের মধ্যে দিয়ে। এতোদিন তা ছিলো ৪০ হাজার ৩শ পাউন্ড।এ বিষয়ে জগন্নাথপুর টাইমস্ এর প্রধান সম্পাদক মুহাম্মদ শাহেদ রাহমানের মুখোমুখি হলে তিনি বলেন – নিম্ন আয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এভাবে লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়া খুবই কষ্টকর হবে । মেইনটেনেন্স গ্র্যান্ট থাকলে ছাত্র-ছাত্রীরা উপকৃত হতো । ভাল ফলাফলে সহায়ক ভূমিকা পালন করতো ।
লন্ডনে পড়ুয়া একজন শিক্ষার্থী সাজিদ রহমান বলেন- যুক্তরাজ্যের শিক্ষার্থীর উপর এখন এমনিতেই স্টিমরোল চলছে , তারপরও যদি এটি আরেকটি এসে যোগ হয় , তবে ভবিষ্যত কেমন হবে ব্রিটিশ সরকারের এখনই ভাবা উচিত ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24