মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:২৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে পঞ্চাশ ঊর্ধ্ব ব্যক্তির বয়স ২৪ বছর! এ অভিযোগে মনোনয়ন বাতিল, গেলেন আপিলে জগন্নাথপুরে নদীর পাড় কেটে মাটি উত্তোলনের দায়ে দুই ব্যক্তির কারাদণ্ড জগন্নাথপুর বাজার সিসি ক্যামেরায় আওতায় আনতে এসআই আফসারের প্রচারণা জগন্নাথপুরে নিরাপদ সড়ক ও যানজটমুক্ত রাখতে প্রশাসনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুর উপজেলা ক্রিকেট এসোসিয়েসনের নতুন কমিটি গঠন মিরপুরে আ.লীগ প্রার্থী আব্দুল কাদিরের সমর্থনে কর্মীসভা অনুষ্ঠিত ফেসবুকে ক্ষমা চেয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক সম্পাদক রাব্বানী প্রায়ই বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকেন শিক্ষক জগন্নাথপুরে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার, থানায় জিডি সংস্কারের দাবীতে জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে মঙ্গলবার থেকে আবারও অনিদিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট

সুনামগঞ্জের যুব সমাজের যুব তারকা ব্যারিষ্টার এম এনামুল কবির ইমন-

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ৬ জুন, ২০১৫
  • ১১০ Time View

বিশ্বজিত রায় বিশ্ব:: ‘যৌবন জল তরঙ্গ…’। আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম তাঁর লেখায় উক্তিটি ব্যবহার করেছেন। সমুদ্রে যখন জোয়ার আসে তখন তার বিশাল জলরাশির উন্মাতাল গর্জন, ঢেউয়ের ধাক্কায় কুলঘেষা তরীর দিগি¦দিক ছুটে চলা কিংবা নিজ বক্ষে ভাসমান বস্তুটিও যেন সাগরকন্যার যৌবন তোড়ে বেসামাল হয়ে পড়ে। সাগরের মাতাল ওই জল তরঙ্গের সাথেই বিদ্রোহী কবি হয়তো যৌবনের তুলনা করেছেন। নজরুল তাঁর অসংখ্য লেখায় গেয়েছেন যৌবনের জয়গান। যৌবন শব্দটিকে সংজ্ঞায়িত করতে হলে আগে একজন যুবক কিংবা যুবতীর সহজাত বৈশিষ্ট্যের সাথে পরিচিত হতে হবে। তবেই যৌবন শব্দটির মর্মার্থ খোঁজে বের করা সম্ভব। একজন যুবকের লক্ষ্য যদি হয় সৎ, সুন্দর ও নির্ভীক তাহলে ওই তারুণ্যদীপ্ত মানুষটি সমাজের চিত্র যেমন বদলে দিতে পারবে তেমনি উপকৃত হবে দেশ তথা একটি জাতি। যুবসমাজ যেন আজ পথভ্রষ্ট। তাই ভ্রষ্ট পথিককে সঠিক পথে ফিরিয়ে আনতে যুবসমাজকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। যুগশ্রেষ্ঠ স্বামী বিবেকানন্দ বলেছেন, যৌবন শক্তির উদ্বোধন চাই। হ্যাঁ মহামনীষী ওই মানুষের সুরে সুর মিলিয়ে আমিও বলতে চাই যুবশক্তির বিস্ফোরণ ঘটুক সমাজ, দেশ ও জাতির কল্যাণে। গত ১৬ মে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান তাঁর বক্তব্যের এক অংশে ‘যুবসমাজের যুব তারকা’ উক্তিটি ব্যবহার করেছিলেন। মাননীয় মন্ত্রী সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমনকে ‘যুবসমাজের যুব তারকা’ হিসেবে অভিহিত করেন এবং তাঁর বক্তব্যের বেশকিছু অংশ জুড়েই প্রশংসার ফুলঝুরি যেমন ছিটিয়েছেন তেমনি যুব তারকার প্রতি শুভকামনা জানাতেও ভুল করেননি সাদামনের সাদাসিধে মানুষটি। স্বচ্ছ রাজনীতিতে সুনামগঞ্জ তথা সিলেটের ভবিষ্যত কান্ডারী হিসেবেও মূল্যায়িত হন এই যুব তারকা। সর্বশ্রেণির কাছে রাজনীতি যখন ‘জোর যার মুল্লুক তার’ কিংবা অবৈধ অর্থ উপার্জন নতুবা ক্ষমতা প্রয়োগের ঘৃণ্য ক্ষেত্র হিসেবে পরিগণিত তখন ব্যারিস্টার ইমনকে নিয়ে প্রতিমন্ত্রী মহোদয়ের এমন দৃষ্টিভঙ্গি বর্তমান প্রেক্ষাপটে কতটুকু বিশ্বাসযোগ্য বার্তা বহন করে সেটিই আজ প্রশ্নবোধক চিহ্নে সীমাবদ্ধ। অবহেলিত সুনামগঞ্জকে নান্দনিক সুনামগঞ্জ গঠনের স্বপ্নে বিভোর যে মানুষটি সেই যুব তারকা আগামীর পথে কতটুকু সফলতা দেখাতে পারবেন সেটি ভবিষ্যত পথচলাতে প্রতীয়মান হবে। প্রত্যন্ত অঞ্চল চষে বেড়ানো ব্যারিস্টার ইমন যেন আজ সুনামগঞ্জের প্রান্তিক মানুষের স্বপ্ন সারথী। নিজেও যেমন স্বপ্ন দেখছেন তেমনি স্বপ্নও দেখাচ্ছেন অবহেলিত সুনামগঞ্জবাসীকে। সৎ ও আদর্শবাদী একজন মানুষ হিসেবে নিজেকে মেলে ধরতে সমর্থ হয়েছেন এই রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান। গানের শহর, কবিতার শহর, জোছনার শহর, হাওরের শহর, আপনি যে শহর বলেই সম্বোধন করেন না কেনÑ সবগুলোর মিলিত রূপ হচ্ছে সুনামগঞ্জ। সর্বগুণে গুণান্বিত শহরটি যেন অবহেলিত, অরক্ষিত এবং অপূর্ণ। দেশ-বিদেশে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সুনামগঞ্জের সুনাম সমাদৃত থাকলেও নিজের নামের প্রতি সে অনুযায়ী সুনাম কুড়াতে না পারায় সুনামগঞ্জ যেন আজ লজ্জায় লজ্জাবতী। গান-কবিতা-জোছনা ও হাওরের শহরটি যেন মাথা নত করে নিজের লজ্জা নিবারণের চেষ্টা করছে বারবার। হাছন রাজা, রাধারমণ দত্ত, বাউল আব্দুল করিম ও রামকানাই দাশের রচিত বিখ্যাত গানগুলো রাখালের মন পাগল করা বাশির সুরে যেমন ছন্দ তুলে তেমনি তাঁদের সৃষ্টিকর্ম আমাদের সুনামগঞ্জকে পরিচয় করিয়ে দেয় নতুন আঙ্গিকে। প্রজ্ঞাবান অনেক জ্ঞানী-গুণী ব্যক্তির জন্ম হয়েছে সুনামগঞ্জে। প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধশালী শহরটি দেশকে দু’হাত ভরে দিলেও নিজেই থেকে যাচ্ছে অবহেলায় আড়ালে। সুনামগঞ্জে জন্ম হওয়া প্রথিতযশা অনেক রাজনীতিক সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ে থেকেও ওই জেলা শহরটির প্রতি তাঁদের মমত্ব দেখাতে পারেননি সে অনুযায়ী। তাই সুনামগঞ্জবাসী আজ আগামী নেতৃত্বের অপেক্ষায়। রাজনীতি সম্পর্কে মানুষের মনে সৃষ্টি হওয়া দোয়াশা দূর করতে শিক্ষিত যুবশক্তিকে রাজনীতিতে নতুনভাবে সম্পৃক্ত করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সমুন্নত রাখতে যুবসমাজকে এগিয়ে আসতে হবে। ভাটি অঞ্চলখ্যাত সুনামগঞ্জের কৃতিসন্তান ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন তরুণ নেতৃত্বের এক উজ্জ্বল মুখ। তাঁর চিন্তাচেতনা ও সৎ দৃষ্টিভঙ্গী ভবিষ্যত প্রজন্মকে রাজনীতিতে এগিয়ে আসতে উৎসাহ যোগাবে। ব্যারিস্টার ইমন আপাদমস্তক এক রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান। পিতা মরহুম এডভোকেট আব্দুর রইছ সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের আমৃত্যু সভাপতি ও সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ছিলেন এবং মাতা মরহুমা রফিকা রইছ চৌধুরী সুনামগঞ্জ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও সুনামগঞ্জ জেলা মহিলা সংস্থার সভানেত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পিতামাতার রাজনৈতিক পদাঙ্ক অনুসরণ ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে ব্যারিস্টার ইমন এগিয়ে যাচ্ছেন তারুণ্যের অগ্রসৈনিক হিসেবে। তিনি বর্তমানে সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক, কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, পাওয়ার গ্রীড কোম্পানীর বোর্ড অব ডাইরেক্টর, পাওয়ার গ্রীড এর লিগ্যাল এফেয়ার্স এর চেয়ারম্যান এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ এ টু ওয়ান এর আইন উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তারুণ্যদীপ্ত এই মুজিব সৈনিকের চিন্তাচেতনায় রয়েছে মানবসেবা, সমাজসেবা ও দেশমাতৃকার কল্যাণে নিজেকে অকাতরে বিলিয়ে দেওয়া। তিনি দ্বিতীয়বারের মতো বাংলাদেশের সর্বকনিষ্ঠ জেলা পরিষদ প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক ব্যারিস্টার ইমন অবহেলিত জেলাটিকে নান্দনিক সুনামগঞ্জ গড়তে সকল প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যে জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে শহীদ মিনার, স্মৃতিসৌধ, নামফলক, যাত্রী ছাউনি, কবরস্থান, শ্মশানঘাট নির্মাণসহ জনকল্যাণমুখী বেশকিছু কাজ সম্পন্ন করেছেন। সুনামগঞ্জের বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানের জন্য ১৩২/৩৩ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সাবস্টেশন স্থাপনের কাজ হাতে নেন। প্রথম মেয়াদে জেলা পরিষদ প্রশাসকের দায়িত্বভার গ্রহণ করার পর প্রায় ২ কোটি টাকা রাজস্ব বৃদ্ধি করেন। মসজিদ ও মন্দির উন্নয়নের জন্য তাঁর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। সুনামগঞ্জের প্রবীণ রাজনৈতিক নেতারা উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবে এর প্রতিফলন ঘটাতে ব্যর্থ হয়েছেন। তাই তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে এসে নতুনভাবে দায়িত্বভার গ্রহণ করতে হবে। একজন যুব প্রতিনিধি হিসেবে ব্যারিস্টার ইমন জাতীয় রাজনীতিতে সুনামগঞ্জের নেতৃত্ব দেবেন এটাই সুনামগঞ্জবাসীর প্রত্যাশা। লেখক-কলামিস্ট

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24