শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯, ১২:৪০ অপরাহ্ন

সুনামগঞ্জে মরমী কবি হাছন রাজার কবরের পাশে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় চিরনিন্দ্রায় শায়িত হলেন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাজী কেবি রশিদ

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ২৯ এপ্রিল, ২০১৬
  • ১২৮ Time View

সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা-
মরমী কবি হাছন রাজার কবরের পাশে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় চিরনিন্দ্রায় শায়িত হলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সুনামগঞ্জ জেলা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার ও বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি হাজী কেবি রশিদ (যোদ্ধাহত)। শুক্রবার সকাল ১১টায় শহরের জামাইপাড়া আবাসিক এলাকাধীন বাসভবনে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী,৩ পুত্রসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন। তার আকস্মিক মৃত্যু সংবাদে মরহুমের বাসভবনে তাৎক্ষনিকভাবে ছুটে আসেন জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খন্দকার মামুনুর রশীদ, জেলা পুলিশ সুপার হারুন-অর রশীদ,জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ আব্দুল হাকিম,আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ রফিকুল ইসলাম,পৌর মেয়র আয়্যুব বখত জগলুল,জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট আলী আমজাদ, জেলা জাসদ সভাপতি আতম সালেহ,জেলা ইউনিট কমান্ডার হাজী নূরুল মোমেন,চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের সভাপতি খায়রুল হুদা চপল,মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি ফৌজিআরা বেগম শাম্মী,সহ-সভাপতি জসীম উদ্দিন দিলীপ,সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক আল-হেলাল,আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগের সাধারন সম্পাদক কাজী জালাল উদ্দিন জাহান,সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল মজিদ, সাবেক কমান্ডার আব্দুল হাশিম,মোঃ রেনু মিয়া,আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সদর উপজেলা কমিটির সভাপতি কাজী জসিম কামাল ও মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের সভাপতি মোঃ মইন উদ্দিনসহ সমাজের বিভিন্ন স্তরের পেশাজীবী রাজনৈতিক ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সংগঠনের প্রতিনিধিবর্গ। তারা মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনাসহ তার শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। পরিবারের ইচ্ছানুযায়ী বাদ আছর তাকে শহরের তেঘরিয়া আবাসিক এলাকাধীন ইদগাহ ময়দানে নামাজে যানাজা শেষে গাজীর দরগাহ কবরস্থানে দাফন করা হয়। এর আগে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত করার লক্ষ্যে সুনামগঞ্জ সদর থানার ওসি তদন্ত মাসুক আলীর নেতৃত্বে মরহুমের মরদেহে সশস্ত্র সালাম ও গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। মরহুমের কফিনে পুস্পস্তবক অর্পন করেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিট,সদর উপজেলা কমান্ড ও আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এসময় পুলিশের বিউগলে বেজে উঠে করুন সুর। আগামীকাল শনিবার সকাল ১১টায় সুনামগঞ্জ ট্রাফিক পয়েন্টে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন এর উদ্যোগে আয়োজিত পূর্বঘোষিত মানববন্ধন কর্মসুচিতে তাঁকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করা হবে। যোদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী কেবি রশীদ জীবদ্ধশায় বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ,বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন,বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগ,মুক্তিযোদ্ধা সুপ্রীম কমান্ড কাউন্সিল,সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম, যোদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবার সংগঠন,মুক্তিযোদ্ধা ঐক্য পরিষদসহ বিভিন্ন সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের ফিরাসতপুর গ্রামে ১৯৪৩ সালের ১ নভেম্বর জন্মগ্রহন করেন। দীর্ঘদিন চাকুরী করেন ইস্টবেঙ্গল রেজিমেন্ট এর অধীনে ওয়ারেন্ট অফিসার পদে। ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে কোম্পানী কমান্ডার হিসেবে বালাট সাব সেক্টরের বিভিন্ন রনাঙ্গনে পাক বাহিনীর সাথে সম্মুখযুদ্ধে কৃতিত্বের সাথে লড়াই করেন। দেশ স্বাধীনের পর যুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত সুনামগঞ্জেই তিনি স্বপরিবারে অবস্থান করেন। সুনামগঞ্জের জামাইপাড়া আবাসিক এলাকার মোহনা ২৪ নং বাসভবনের স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে স্থায়ীভাবে বসবাসের একপর্যায়ে জেলার সকল অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের পূনর্বাসনে পালন করেন গৌরবোজ্জল ভূমিকা। সুনামগঞ্জবাসী আজীবন এই বীর সেনানীকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24